অতিরিক্ত উপ-পুলিশ মহাপরিদর্শক হলেন ড. শামসুন্নাহার

চাঁদপুর খবর রির্পোট: পুলিশ অধিদপ্তর ঢাকার (টিআর) পুলিশ সুপার থেকে পদোন্নতি পেয়ে অতিরিক্ত উপ-পুলিশ মহাপরিদর্শক হলেন চাঁদপুরের সাবেক পুলিশ সুপার ড. শামসুন্নাহার।

গত ৩অক্টোবর (সোমবার) স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে জারিকৃত এক প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে এই তথ্য জানানো হয়।

জনস্বার্থে জারিকৃত ওই প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, বিসিএস (পুলিশ) ক্যাডারের নিম্নবর্ণিত কর্মকর্তাকে ‘অতিরিক্ত উপ-পুলিশ মহাপরিদর্শক’ (জাতীয় বেতন স্কেল ২০১৫-এর চতুর্থ গ্রেড; টাকা ৫০,০০০-৭১,২০০/-) পদে পদোন্নতি করা হলো।’
প্রজ্ঞাপনে আরও বলা হয়, এই আদেশ যোগদানের তারিখ হতে কার্যকর হবে।

ড. শামসুন্নাহার বাংলাদেশের পুলিশ প্যারেডে নেতৃত্বদানকারী প্রথম নারী পুলিশ কর্মকর্তা। ২০তম বিসিএসে উত্তীর্ণ হয়ে ২০০১ সালে সহকারী পুলিশ সুপার হিসেবে মানিকগঞ্জ জেলায় যোগদান করেন তিনি। পরবর্তীতে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ, পুলিশ সদর দপ্তর, ট্যুরিস্ট পুলিশসহ বাংলাদেশ পুলিশের বিভিন্ন ইউনিটে সফলতার সাথে দায়িত্ব পালন করেন।

তিনি ২০১৫ থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত চাঁদপুর জেলা পুলিশ সুপার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন শামসুন্নাহার। জাতিসংঘের শান্তিরক্ষী মিশনে ইতালিতে দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে দায়িত্ব পালনে সাত বার (২০০৯-২০১৪) জাতিসংঘ শান্তি পদক পান।

২০১৮ সালে রাষ্ট্রপতি পুলিশ পদকও পেয়েছেন শামসুন্নাহার। সাহসী নারী পুলিশ কর্মকর্তা হিসেবে নারী পুলিশ পদক (২০১৮) ও দুই বার আইজি ব্যাজ প্রাপ্ত হন। নিউজিল্যান্ডের সুপরিচিত সাময়িকী ‘দ্য ওয়েলিংটন’ ম্যাগাজিনে শামসুন্নাহারকে নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। যেখানে তাকে সবচেয়ে বিশ্বাসযোগ্য ও রুচিশীল পুলিশ কর্মকর্তা হিসেবে বর্ণনা করা হয়েছে।

শামসুন্নাহার ফরিদপুরের সদর উপজেলার চর মাধবদিয়া ইউনিয়নে ১৯৭৩ সালের ১ নভেম্বর জন্মগ্রহণ করেন। তার বাবা শামসুল হক ভোলা মাস্টার একজন মুক্তিযোদ্ধা ও আইনজীবী। মা আমিনা বেগম ‘রত্নগর্ভা’ সম্মানে ভূষিত। দুই ভাই ও দুই বোনের মধ্যে শামসুন্নাহার সবার বড়।

একই রকম খবর