চাঁদপুরে নারীদের অন্তভূর্তি নিয়ে পরিকল্পনা কর্মশালা

শওকত আলী : চাঁদপুরে নারীর জয়ে সবার জয় এই শ্লোগানে চাঁদপুরে নারী অন্তভূর্তি পরিকল্পনা কর্মশালা এবং নীতি নির্ধারকদের সাথে সংলাপ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

মঙ্গলবার (২৭ সেপ্টেম্বর) ডেমোক্রেসি ইন্টারন্যাশনাল কুমিল্লা অঞ্চলের আয়োজনে চাঁদপুর প্রেসক্লাবের দ্বিতীয় তলায় এলিট চাইনিস এন্ড রেস্টুরেন্টে অংশ গ্রহনকারীরা সংলাপের বিষয়বস্তুর উপর তাদের যৌক্তিক বক্তব্য পেশ করেন।

এই কার্যক্রমের মূল উদ্দেশ্য হচ্ছে ৩ টি। যথাক্রমে রাজনীতিতে নারীদের দক্ষ তৈরি করা, বিভিন্ন নির্বাচনে সংরক্ষিত আসনের পাশাপাশি সাধারণ আসনে নারীদের উৎসাহ তৈরি করা ও মূল দলে নারীদের অন্তভূক্ত করা।

সংলাপে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, চাঁদপুর জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. সলিম উল্যাহ্ সেলিম। তিনি তার বক্তব্যে বলেন, যোগ্যতার মানদন্ডে বেগম খালেদা জিয়া প্রধানমন্ত্রী হয়েছেন।

নারীদের যোগ্যতার মানদন্ডে মূল্যায়ন করা হবে। কমিটিতে নারীদের মূল্যায়নের ক্ষেত্রে ডেমোক্রেসি ইন্টারন্যাশনালের ভুমিকা অনেক। চাঁদপুর জেলা বিএনপির কমিটি সম্মেলনের পরপরই কমিটি জমা দেওয়া হয়েছে। হয়ত শিঘ্রই পূর্নাঙ্গ কমিটি চলে আসবে। ১৫১ সদস্য বিশিষ্ট্য কমিটির মধ্যে শতকরা ১০ ভাগ নারী অন্তভুক্ত রয়েছে। বিএনপি পুরুষ বা মহিলার দল নয়।

চাঁদপুর জেলা বিএনপির সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক মুনির চৌধুরীর সভাপতিত্বে কুমিল্লা জোনাল অফিসার আবুল বাশার এর পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন, চাঁদপুর জেলা বিএনপির সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক মাহবুব আনোয়ার বাবলু, সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক জসিম উদ্দিন খান বাবুল, চাঁদপুর মহিলাদলের সভাপতি অ্যাড: মুনিরা চৌধুরী, চাঁদপুর জেলা কৃষকদলের সভাপতি এনায়েত উল্যাহ খোকন, চাঁদপুর জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের হযরত আলী ঢালী, চাঁদপুর জেলা যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক ফয়সাল গাজী বাহার। মূল দলে নারীদের অন্তভুক্তের বিষয়ে বক্তব্য রাখেন, অ্যাড: শিরিন সুলতানা সুপ্তা, ফারজানা লাকী, নাহিদা সুলতানা সেতু ও উদ্যোক্তা তানিয়া ইসলাম।

সংলাপ চলাকালে চাঁদপুর জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. সলিম উল্যাহ্ সেলিমের হাতে জেলা বিএনপিসহ অন্যান্য কমিটিতে নারীদের অন্তভুক্ত করা যায় তাদের একটি নামের তালিকা তুলে দেন মহিলাদলের নেতৃবৃন্দরা।

বক্তারা বলেন, সরকার আইন করেছে ৩৩ ভাগ নারী দলে অন্তভুক্তি করতে হবে। এটা সকল দলেরই প্রয়োজন। সকল দলেই নারী অন্তভুক্তির বিষয়ে কাজ করছেন। নেতৃত্ব দেওয়ার মতো যোগ্য নেত্রীর অভাব নেই। পুরুষদের অনেক কমিটি থাকে, কিন্তু মহিলাদের দল একটাই মহিলাদল।

অনেক সময় প্রশ্ন উঠে যোগ্য নেত্রী নাই। দলে মহিলাদের সুযোগ দেওয়া হলে পুরুষদের পাশাপাশি মহিলারা তাদের যোগ্যতায় দলকে শক্তিশালী করবে।

একই রকম খবর