চাঁদপুরে বিএফএফ-সমকাল জাতীয় বিজ্ঞান বিতর্ক উৎসব সম্পন্ন

স্টাফ রিপোর্টার : চাঁদপুরে বিএফএফ-সমকাল জাতীয় বিজ্ঞান বিতর্ক উৎসব অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে চাঁদপুর প্রেসক্লাব মিলনায়তনে বিতর্ক উৎসবের উদ্বোধন করেন উৎসবের প্রধান অতিথি চাঁদপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) বশির আহমেদ। প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, বিতর্ক চর্চা সাম্প্রতিক সময়ে শুরু হওয়া কোন শিল্প নয়, দার্শনিক সক্রেটিসের সময়কাল থেকে বিতর্ক চর্চা শুরু হয়। বিতর্ক একটি অর্জনের জায়গা।

বিতার্কিকরাবপুরো বিশ্বে সমাদৃত। অন্য সবার চেযে তারা আলাদা। তিনি আরো বলেন, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি প্রতিনিয়ত নতুন নতুন আবিস্কারের দিকে যাচ্ছে। আমাদেরকে তার সাথে পাল্লা দিয়ে চলতে হবে। তিনি বলেন, আবার তথ্য প্রযুক্তির অবাধ গড্ডালিকা পরবাহে গা ভাসিয়ে দেয়া যাবে না। বিএএফ- সমকাল এর বিজ্ঞান বিতর্ক আয়োজন স্কুল শিক্ষার্থীদের অবশ্য বিজ্ঞান মনস্ক করবে। এজন্য তাদের স্বাগত জানাই।

বিতর্ক উৎসবে চাঁদপুর জেলার ৮টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করে।

উৎসবে বাবুরহাট স্কুল এন্ড কলেজ চ্যাম্পিয়ন ও হাসান আলী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় রানার্সআপ হয়। শ্রেষ্ঠ বক্তা হন বাবুরহাট স্কুল এন্ড কলেজের উম্মে হাবিবা মুমু।

অংশগ্রহণকারি অন্যান্য স্কুলগুলো হচ্ছে, পুরান বাজার মধুসূদন উচ্চ বিদ্যালয়, মাতৃপীঠ সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, আল আমিন একাডেমি স্কুল এন্ড কলেজ, গনি মডেল উচ্চ বিদ্যালয়, লেডী প্রতিমা মিত্র বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ও লেডী দেহলভী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়।সভাপতিত্ব করেন সমকাল সুহৃদ সমাবেশের সহসভাপতি মোঃ মহিবুর রহমান খান নোবেল। সমন্বয়কারি ছিলেন সমকাল চাঁদপুর জেলা প্রতিনিধি ইকবাল হোসেন পাটোয়ারী।

সার্বিক তত্ত্ববধানে ছিলেন সমকাল সুহৃদ সমাবেশের চাঁদপুর জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক মোঃ খায়রুল আহছান সুফিয়ান। বিকেলে পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন, জেলা শিশু বিষয়ক কর্মকর্তা কাউসার আহমেদ, হাসান আলী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ কামরুজ্জামান, লেখক ও সাংস্কৃতিক সংগঠক মাহাবুবুর রহমান সেলিম, প্রভাষক মাসুদুর রহমান প্রমুখ।

মডারেটর হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন জেলার সিনিয়র বিতার্কিক জাহিদুল ইসলাম নিরব। বিচারক হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন, প্রভাষক মাসুদুর রহমান, আমিনুল ইসলাম বিএসসি, সাধারন সম্পাদক সিসিডিএফ মুশফিকা ইসলাম, সিসিডিএফ এর যুগ্ম সাধারন সম্পাদক তানজিল রুবেল, সহকারি শিক্ষক আবদুল্লাহ আল নোমান।

 

একই রকম খবর