ফরিদগঞ্জে ইউপি সদস্য মিজানুর রহমানের ওপর হামলা

স্টাফ রিপোর্টারঃ চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জ উপজেলার ১ নং বালিথুবা পশ্চিম ইউনিয়নের ইউপি সদস্য মোঃ মিজানুর রহমান (৫৮) এর ওপর প্রতিপক্ষ আলাউদ্দিন (৩৮), মাঈন উদ্দিন (৩৫), জাকির হোসেন (৩০), রাশেদ (২৮) গংরা দেশীয় অস্ত্র দিয়ে হামলা চালিয়ে গুরুতর আহত করেছে।

জানা যায়, গত ০৬/১০/২০২২ইং তারিখ দুপুর অনুমান ১২.১৫ টার সময় চান্দ্রা বাজারে সরকারী টিসিবি পন্য বিক্রি করার সময়ে প্রতিপক্ষরা হঠাৎ ইউপি সদস্য মোঃ মিজানুর রহমানের সাথে তর্ক বিতর্কে লিপ্ত হইয়া একপর্যায়ে তার ওপর আক্রমন করিয়া এলোপাতাড়ী কিল, ঘুষি, লাথি মারিয়া ও লোহার রড দিয়া ডান চোখের পাশে আঘাত করে ফাঁটা ও রক্তাক্ত জখম করে।

এবিষয়টি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এবং ফরিদগঞ্জ থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে অবগত করা হয় ।

এছাড়াও টিসিবির প্রতিনিধি বিল্লাল মিজি ও ট্যাগ অফিসার উপজেলা পল্লী উন্নয়ন কর্মকর্তা আবু শামীম তাৎক্ষণিক প্রশাসনকে বিষয়টি অবহিত করেন।

ভুক্তভোগী ইউপি সদস্য মোঃ মিজানুর রহমান উপজেলার মদনেরগাঁও কাজী বাড়ীর মৃত ছালামত উল্যাহর ছেলে। তিনি ১নং বালিথুবা পশ্চিম ইউনিয়নের ৬ নং ওয়ার্ড ইউপি সদস্য হিসাবে দায়িত্ব পালন করে আসছেন।

অপরদিকে প্রতিপক্ষ হামলাকারীরা হলেন ফরিদগঞ্জ উপজেলার খাড়খাদিয়া বেপারী বাড়ির মোঃ বাবুল বেপারীর ছেলে যথাকমে আলাউদ্দিন, মাঈন উদ্দিন, জাকির হোসেন এবং একই এলাকার সকদি রামপুরের শাহাদাতের ছেলে রাশেদ।

ভুক্তভোগী থানায় একটি অভিযোগে উল্লেখ করেন, গত ০৬/১০/২০২২ইং তারিখ দুপুর অনুমান ১২.১৫ টার সময় আমি চান্দ্রা বাজারে সরকারী টিসিবি পন্য বিক্রির সময় প্রতিপক্ষরা হটাৎ আমার সাথে তর্কে লিপ্ত হইয়া একপর্যায়ে আমার উপর আক্রমন করিয়া এলোপাতাড়ী কিল, ঘুষি, লাথি মারিয়া ও লাঠি দিয়া আঘাত করিয়া আমার শরীরের বিভিন্ন স্থানে নীলাফুলা জখম করে।

১নং প্রতিপক্ষের হাতে থাকা লোহার রড দিয়া আমার ডান চোখের পাশে আঘাত করিয়া মারাত্মক ফাঁটা ও ডান চোখে রক্তাক্ত জখম করে। এমনকি প্রতিপক্ষরা হুমকি দিয়া বলে এই বিষয়ে মামলা মোকদ্দমা করিলে আমাকে দেখাইয়া দিবে, আমাকে বাড়ীতে সুখে শান্তিতে বসবাস করিতে দিবে না, আমাকে টিসিবি পন্য বিক্রি করতে দিবে না। আমার হাত পা ভাঙ্গিয়া পঙ্গু করিয়া দিবে, প্রয়োজনে আমাকে ও আমার পরিবারের অন্যান্য সদস্যদেরকে খুন করিয়া লাশ গুম করিয়া ফেলিবে বলিয়া হুমকী দেয়।

আমার আত্মচিৎকারে লোকজন আসিয়া আমাকে উদ্ধার করিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নিয়া চিকিৎসা করায়। প্রতিপক্ষের এহেন কর্মকান্ডে ও হুমকীতে আমরা খুবই আতংকে আছি এবং জীবনের নিরাপত্তাহীনতায় ভুগিতেছি। উক্ত ঘটনার বিষয়ে স্থানীয় চেয়ারম্যানসহ এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গদেরকে অবহিত করিয়াছি।

একই রকম খবর