ফরিদগঞ্জে ছাত্রদল নেতার উপর হামলা ঘটনায়, আটক- ৪

এস এম ইকবাল, ফরিদগঞ্জ : চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জে ছাত্রদল নেতার উপর হামলার ঘটনায় আদালতে দায়ের করা মামলায় যুবদল ও ছাত্রদলের ৪ নেতা-কর্মীকে আটক করেছে পুলিশ।

২১ অক্টোবর শুক্রবার রাতে তাদের আটকের পর ২২ অক্টোবর শনিবার তাদের চাঁদপুর আদালতে পাঠানো হয়।

জানা গেছে, গত ১৬ অক্টোবর রাতে ফরিদগঞ্জ দক্ষিণ ইউনিয়ন ছাত্রদলের সভাপতি শরীফ হোসেন বাড়ী যাওয়ার পথে হামলার শিকার হয়। হামলাকারীরা তাকে দেশীয় অস্ত্র দিয়ে পিটিয়ে ও কুপিয়ে আহত করে। পরে তাকে উদ্ধার করে চাঁদপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এ ব্যাপারে ফরিদগঞ্জ দক্ষিন ইউনিয়ন ছাত্রদলের সভাপতি শরীফ হোসেন চাঁদপুর সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে অভিযুক্তদের সোহাগ পাটওয়ারীসহ ৬জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করে।
পরে গত ১৯ অক্টোবর চাঁদপুর সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কার্তিক চন্দ্র ঘোষ অভিযোগটি এফআইআর পুর্বক ব্যবস্থা নেয়ার জন্য ফরিদগঞ্জ থানা পুলিশের অফিসার ইনচার্জকে নিদের্শ দেয়। আদালতের নিদের্শে থানা পুলিশ গত ২১ অক্টোবর মামলা দায়ের করে।

পরে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই নুরুল ইসলাম সঙ্গীয় ফোর্সসহ ২১ অক্টোবর শুক্রবার রাতে উপজেলা সদর এলাকা থেকে পৌর যুবদলের যুগ্মআহ্বায়ক সোহাগ পাটওয়ারী(৩৪), পৌর ছাত্রদলের সদস্য সচিব আমজাদ হোসেন শিবলু (২৮), ছাত্রদল নেতা আশিকুর রহমান ও অপু পাটওয়ারীকে আটক করে।
এদিকে ঘটনাটিকে রাজনৈতিক প্রতিহিংসা বলে আখ্যায়িত করে বিএনপির নেতাকর্মিরা জানান, মূলত দলীয় অভ্যন্তরীণ ঘটনাকে কেন্দ্র করে এ ঘটনা ঘটেছে।

এ ব্যাপারে উপজেলা ছাত্রদলের সভাপতি মেহেদী মাসুদ মঞ্জু জানান, ১৪ নং ফরিদগঞ্জ দক্ষিণ ইউনিয়ন ছাত্রদলের সভাপতির ওপর হামলার ঘটনা আমি জেনেছি। তবে হামলা এবং মামলার ঘটনা দুঃখ জনক।
উপজেলা বিএনপির সভাপতি শরীফ মোহাম্মদ ইউনুস জানান, ফরিদগঞ্জ দক্ষিণ ইউনিয়ন ছাত্রদলের সভাপতি ওপর হামলার ঘটনা সম্পর্কে আমি অবগত হয়েছি। তবে হামলা এবং মামলার ঘটনা দুঃখ জনক।

এ বিষয়ে ফরিদগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ, আদালতের আদেশে আমরা মামলাটি দায়ের করে অভিযুক্তদের আটক করেছি। তদন্ত শুরু হয়েছে।

একই রকম খবর