ফরিদগঞ্জে মুক্তিযোদ্ধার আবাসন প্রকল্পের নির্মাণ কাজে বাঁধা

মামুন হোসাইনঃ চাঁদপুর ফরিদগঞ্জ উপজেলা ৫ নং গুপ্টি পুর্ব ইউনিয়ন ১ নং ওয়ার্ড আস্টা গ্রামে বীর মুক্তিযুদ্ধা খোকন চন্দ্র সরকার এর আবাসন প্রকল্পের নির্মান কাজে বাঁধা প্রদান করে প্রতিপক্ষ আব্দুল আওয়াল চৌধুরী, আনোয়ার হোসেন চৌধুরী, আব্দুল রহিম চৌধুরী গংরা। ঘর নির্মানে বাঁধা প্রদান করে বলে অভিযোগ করেন বীর মুক্তিযুদ্ধা খোকন চন্দ্র সরকার।

সরজমিনে গিয়ে জানা যায়, স্বাধীনতার পুর্ব থেকে খোকন চন্দ্র সরকার গংরা বসবাস করছে, আস্টা মৌজা খতিয়ান ৫৬৪ দাগ নং ৬৭০ জমির পরিমান ৬ শতক তার নিজ সম্পত্তি।আবাসন প্রকল্পের নির্মান কাজ গত ৬ জুলাই থেকে ১০ জুলাই কাজ চলমান রয়েছে।১১ জুলাই প্রতিপক্ষ কাজে বাঁধা প্রদান করে, বর্তমানে কাজ বন্ধ রয়েছে।

বীরমুক্তিযুদ্ধা খোকন চন্দ্র সরকার জানান, আমরা স্বাধীনতার পুর্বে থেকে এখানে বসবাস করি স্বাধীনতার পর থেকে আমাদের প্রতিপক্ষ প্রভাশালী আব্দুল আওয়াল চৌধুরী, আনোয়ার হোসেন চৌধুরী, আব্দুল রহিম চৌধুরী গংরা পুরো বাড়ি দখল করার জন্য আমার এক ভাই এর জমি কৌশলে ক্রয় করে।তারপর থেকেই তারা আমাদের বাড়ি ছাড়ার জন্য বিভিন্নভাবে হুমকি দেয় এবং আদালতে মামলাও করে।

যা আমি ৩ বার রায় পেয়েছি।তারপর ও তারা বসে থাকেনি বিভিন্নভাবে ষড়যন্ত্র করে যাচ্ছে,আমাদের ঘর না থাকার কারণে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য আবাসন প্রকল্প দেয়, এতে তারা আরো ক্ষিপ্ত হয়ে আমাদের হয়রানি শুরু করেছে আমাদের কাজ বাঁধা প্রদান করে বন্ধ রেখেছে।তিনি আরো জানান আবাসন প্রকল্প যখন আসছে ভুমি অফিস থেকে যাচাই বাছাই করে কাজ করার অনুমতি দিছে,এবং ৬ দিন কাজ চলছে,তারা ক্ষমতার দাপটে কাজ বন্ধ করে রাখছে,খোকন চন্দ্র সরকার চাঁদপুর জেলা প্রশাসক ও ফরিদগঞ্জ উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তাকে জানিয়েছেন বলে জানান।তিনি আরো বলেন আমি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সু- দৃষ্টি কামনা করি।

উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তা তাছলিমুন নেছা জানান সরজমিনে গিয়ে তদন্ত করে ব্যব¯হা গ্রহণ করা হবে।

একই রকম খবর