বিবৃতি

প্রেস বিজ্ঞপ্তি : নৌপথে চলাচলকারী লঞ্চের ভাড়া ৩০ % বৃদ্ধি করাকে অবাস্তব উল্লেখ করে এই সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করতে নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বশীলদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন ইসলামী মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্ম পরিষদ সভাপতি শহিদুল ইসলাম কবির।

লঞ্চের অস্বাভাবিক ভাড়াবৃদ্ধির প্রতিক্রিয়ায় গণমাধ্যমে প্রেরিত এক বিবৃতিতে ইসলামী মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্ম পরিষদ সভাপতি বলেন, জ্বালানি তেলের মূল্য বৃদ্ধির অজুহাতে লঞ্চের ভাড়া যেভাবে বৃদ্ধি করা হয়েছে তা বাস্তবতা বিবর্জিত। সরকারের সংশ্লিষ্ট বিভাগের নেয়া এ সিদ্ধান্ত লঞ্চ যাত্রীদের প্রতি নির্দয় আচরণ। সাধারণ মানুষের রক্ত চোষা সিদ্ধান্ত নিয়ে কতিপয় লঞ্চ মালিককে লাভবান করার জন্য এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

শহিদুল ইসলাম কবির বলেন, দেশে মূল্য বৃদ্ধির পাগলা ঘোড়া লাফিয়ে ডিমের হালি ৬০ টাকা, চাল-ডাল-ভোজ্য তেলসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির মধ্যে লঞ্চের অস্বাভাবিক ভাড়াবৃদ্ধির সিদ্ধান্ত মরার উপর খাঁড়ার ঘা ছাড়া আর কিছুই নয়।

তিনি বলেন,দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতিতে দেশের খেটে খাওয়া কৃষক শ্রমিক মেহনতি মানুষের পিঠ দেয়ালে ঠেকে গেছে। নিরব দুর্ভিক্ষ চলছে। তাই লঞ্চ ও বাসের অস্বাভাবিক ভাড়াবৃদ্ধির সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার ও নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি রোধ করতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানান।

একই রকম খবর