বড় শাহতলীর বয়োবৃদ্ধ মনোয়ারা বেগমের হাজতবাস : অতপর জামিন

চাঁদপুর খবর রিপোর্ট : চাঁদপুর সদর উপজেলার ৪নং শাহমাহমুদপুর ইউনিয়নের বড় শাহতলী গ্রামের গাজী বাড়ি নিবাসী অসহায় বয়োবৃদ্ধ মহিলা মনোয়ারা বেগম(৬২)কে থেকে খালাসপ্রাপ্ত (সিআর ২৬১/১৩) মামলায় জামিনে মুক্তি দিয়েছে চাঁদপুর আদালত।

সেই সাথে মামলার ওয়ারেন্টটি মামলার ডকেটসহ নথীভুক্ত করেছে । তবে হাজতবাস থেকে শুরু করে থানার কাজে চাঁদপুর মডেল থানার ওসি আব্দুর রশিদ সার্বিক সহযোগিতা করেছে ।

গতকাল ২৩আগস্ট (মঙ্গলবার) চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সহ-সভাপতি ও দৈনিক চাঁদপুর খবর পত্রিকার প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক ও প্রকাশক সোহেল রুশদী’র সহযোগিতায় আইনীভাবে অসহায় বয়োবৃদ্ধ মহিলা মনোয়ারা বেগম জামিনে মুক্তি লাভ করেন।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, গত ২২আগস্ট বিকাল ৪টায় বয়োবৃদ্ধ অসহায় মহিলা মনোয়ারা বেগমকে আইনি ভূলের কারনে তদন্ত ছাড়াই চাঁদপুর সদর মডেল থানার ২৪ডিসেম্বর ২০১৯ইং সালে খালাস হওয়া সিআর ২৬১/১৩ মামলায় অহেতুক গ্রেফতার করে চাঁদপুর সদর মডেল থানা পুলিশের এএসআই জাহাঙ্গীর । গ্রেফতার কালে কোন মহিলা পুলিশও ছিলো না ।

এ ব্যাপারে এএসআই জাহাঙ্গীর দৈনিক চাঁদপুর খবরকে জানান, সিআর মামলায় শাহতলীর মহিলা মনোয়ারা বেগমকে এলাকা থেকে আটক করেছি ।তবে আটকের সময় মহিলা পুলিশ ছিলো না বলে স্বীকার করেন ।

এ ব্যাপারে চাঁদপুর মডেল থানার ওসি আব্দুর রশিদ দৈনিক চাঁদপুর খবরকে জানান,বিষয়টি আমি তদন্ত করে দেখবো । কোথায় ভুল হলো তা দেখবো ।বিনা কারণে কাউকে হয়রানি করা ঠিক হবে না । মামলা খালাস হওয়ার পরও কেন শাহতলীর মনোয়ারা বেগম নামের একজন মহিলা গ্রেফতার হলো তা তদন্ত করে দেখবো ।এটা অমানবিক ।

আইনজীবি জানান,শুধুমাত্র খালাস হওয়া মামলায় মডেল থানায় রিকল আদালতে প্রেরত না করায় এই আইনী জটিলতা সৃষ্টি হয়েছে ।

এদিকে বিনা অপরাধে একদিন মনোয়ারা বেগমের হাজতবাস করায় এ নিয়ে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে । কে নিবে এর দায়ভার তা নিয়ে প্রশ্ন ।

একই রকম খবর