মতলব উত্তরে বিভিন্ন পূজামন্ডপ পরিদর্শণে জেলা প্রশাসক

মতলব উত্তর সংবাদদাতা : হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজার আইনশৃঙ্খলা ও সুষ্ঠু পরিবেশ দেখতে মতলব উত্তর উপজেলার বিভিন্ন পূজামন্ডপ ঘুরে দেখেছেন চাঁদপুরের জেলা প্রশাসক কামরুল হাসান ও পুলিশ সুপার মিলন মাহমুদ।

রবিবার (২ অক্টোবর) মতলব উত্তর উপজেলার গজরা ইউনিয়ন’সহ বিভিন্ন পূজামন্ডপ পরিদর্শন ডিসি ও এসপি।
এসময় মতলব উত্তর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আশরাফুল হাসান, সহকারী পুলিশ সুপার (মতলব সার্কেল) ইয়াছির আরাফাত, সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও ছেংগারচর পৌরসভার প্রশাসক হেদায়েত উল্লাহ, মতলব উত্তর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. মহিউদ্দিন, পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মো. মাসুদ, জেলা পুজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক তমাল ঘোষ, গজরা ইউপি চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি শহীদ উল্লাহ প্রধান, ছেংগারচর পৌরসভার সাবেক প্যানেল মেয়র আবদুল মান্নান বেপারী, জেলা পরিষদ নির্বাচনে ৫নং ওয়ার্ড (মতলব উত্তর) সদস্য প্রার্থী সরকার মো. আলাউদ্দিন ও কাজী হাবিবুর রহমান, উপজেলা পুজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক শ্যামল চন্দ্র দাস, গজরা সার্বজনীন পূজা মন্ডপের সভাপতি প্রভাত চন্দ্র ভৌমিক’সহ স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও হিন্দু ধর্মীয় নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

জেলা প্রশাসক কামরুল হাসান বলেন, হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের শারদীয় দুর্গাপূজা সবচেয়ে বড় উৎসব। অত্যন্ত আনন্দ ও ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে শুরু হয়েছে দুর্গাপূজা।এ উপলক্ষে আইনশৃঙ্খলা বিষয়টিকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দেয়া হয়েছে। তিনি আরও বলেন, পূজামণ্ডপের আইনশৃঙ্খলা রক্ষার্থে পর্যাপ্ত পুলিশ, আনসার ও স্বেচ্ছাসেবক নিয়োজিত করা হয়েছে। আনসার বাহিনীকে সার্বক্ষণিক কর্তব্য পালনে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। অপ্রীতিকর কোন তথ্য পেল তাৎক্ষণিক প্রশাসনকে জানাবেন। প্রশাসন পূজা নির্বিঘ্ন করতে তৎপর রয়েছে। দূর্গাপূজা উৎসবমূখর করতে সকলের সহযোগিতা কামনা করেন তিনি।

পূজা মন্ডপ পরিদর্শনে গিয়ে পুলিশ সুপার মিলন মাহমুদ সাংবাদিক’সহ পূজারীদের উদ্দেশ্যে বলেন, বারো মাসে তের পার্বণ কথাটি হিন্দু সম্প্রদায়ের জন্য প্রচলিত থাকলেও শারদীয়া বা দূর্গা পূজাই বেশি আনন্দ উৎসবের মাধ্যমে পালন করা হয়। এ দেশে ধর্মীয় সম্প্রীতি ফুটে উঠে দূর্গাপূজাতে। যারা এ দেশে ধর্মীয় সম্প্রীতি নষ্ট করতে চায় তারা সংখ্যায় অল্প। আইনশৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনী তাদের ব্যাপারে সতর্ক রয়েছে।

তিনি আরো বলেন, পাঁচদিন ব্যাপী শারদীয় দুর্গোৎসব শান্তিপূর্ণভাবে পালনের সুবিধার্থে প্রতিটি পূজা মন্ডপে পুলিশ অত্যন্দ্র প্রহরীর মতো দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছে। পূজা মন্ডপে কোনো অঘটন ঘটলে প্রশাসন তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নেয়ার জন্য প্রস্তুত রয়েছে। পূজা মন্ডপে শান্তি শৃঙ্খলা বজায় রাখতে চাঁদপুর পুলিশ সদা প্রস্তুত। আমি ব্যক্তিগত ভাবে কোন অপ্রীতিকর ঘটনার আশংকা করছি না।

একই রকম খবর