মাধ্যমিকে উর্ত্তীর্ণদের ভর্তি প্রতিযোগিতায় ব্যর্থ হওয়ার সুযোগ নেই : শিক্ষামন্ত্রী

স্টাফ রির্পোটার : শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, এবছর এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় পাশের হার যেমন বেড়েছে, সেই সঙ্গে মেধাবী শিক্ষার্থীর সংখ্যাও বেড়েছে। এবার এসএসসিতে উত্তীর্ণদের সংখ্যার চেয়ে প্রায় ৭ লাখ বেশি আসন (সিট) রয়েছে। ফলে তাদের উচ্চ শিক্ষার জন্য ভর্তি হওয়ার প্রতিযোগিতায় ব্যর্থ হওয়ার কোনো সুযোগ নেই। সবাই সিট পাবে।

৫ ডিসেম্বর সোমবার দুপুরে চাঁদপুর আউটার স্টেডিয়ামে আয়োজিত মাসব্যাপী মুক্তিযুদ্ধের বিজয় মেলার উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

ডা. দীপু মনি বলেন, ভালো শিক্ষা প্রতিষ্ঠান দাবি করা প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে বিশেষ কোনো মাহাত্ম্য আছে বলে আমি মনে করি না। আমাদের দেশের বেশ কিছু প্রতিষ্ঠান আছে, যেগুলো এ দেশের একেবারে সেরা মেধাবীদেরকে বেছে নিয়ে তাদের প্রতিষ্ঠানে ভর্তি করে। আর সেরা মেধাবী শিক্ষার্থীরা সবাই এক জায়গায় যায়, তখন তারা তাদের প্রচেষ্টায় বাবা-মা ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রচেষ্টায় আরও ভালো ফলাফল করে। সে ক্ষেত্রে প্রতিষ্ঠানের খুব মহত্ত্ব রয়েছে বলে আমি মনে করি না।

তিনি আরও বলেন, আমাদের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে প্রশিক্ষিত এবং যোগ্য শিক্ষক রয়েছে। তাই কোনো প্রতিষ্ঠানে ভর্তি হলাম সেটি না ভেবে, তার চাইতে বেশি প্রয়োজন শিক্ষার্থীরা পড়াশুনা ঠিকমতো করল কি না, কিংবা ভুল পথে চলে যায় কি না সে বিষয়ে বাবা-মায়ের ঠিকভাবে নজর রাখা।
এর আগে জাতীয় সংগীত এবং পতাকা উত্তোলনের মধ্য দিয়ে মাস-বিপি ৩১ তম মুক্তিযুদ্ধ বিজয় মেলার উদ্বোধন করেন তিনি।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক কামরুল হাসান, পুলিশ সুপার মো. মিলন মাহমুদ, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব ওসমান গণি পাটোয়ারী, চাঁদপুর পৌরসভার মেয়র মো. জিল্লুর রহমান জুয়েল।

বিজয় মেলার স্টিয়ারিং কমিটির চেয়ারম্যান ও জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার এমএ ওয়াদুদের এবং মহাসচিব হারুন আল রশীদের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে রণাঙ্গনের বীর মুক্তিযোদ্ধা এবং অন্যান্য অতিথিরা উপস্থিত ছিলেন।

একই রকম খবর