রাজরাজেশ্বর ইউনিয়ন যুবলীগের বর্ধিত সভা

সাইদ হোসেন অপু চৌধুরী/ইব্রাহিম খান :চাঁদপুর সদর উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক অ্যাড. হুমায়ুন কবির সুমন বলেছেন, বাংলাদেশের স্থপতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নির্দেশে ১৯৭২ সালের ১১ নভেম্বর বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ প্রতিষ্ঠিত হয়।

এরপর হাজারো লড়াই, সংগ্রামের মধ্য দিয়ে কেটে গেছে ৪৮ টি বছর। তবুও দেশ, মাটি ও মানুষের কল্যাণে কাজ করতে পিছ পা হয়নি যুবলীগ বরং বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রী রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনার দিকনির্দেশনায় যুবলীগ দক্ষিণ এশিয়ার একটি সর্ববৃহৎ শক্তিশালী যুব সংগঠন হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে।

শনিবার (৮ সেপ্টেম্বর) সকালে দলের সাংগঠনিক কার্যাক্রমকে সুসংগঠিত ও আরো গতিশীল করতে চাঁদপুর সদর উপজেলার ১৪নং রাজরাজেশ্বর ইউনিয়ন আওয়ামী যুবলীগের বর্ধিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, ইতোমধ্যে আপনাদের কৃতিত্বে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ মানবিক যুবলীগে রূপান্তরিত হয়েছে। এখন আপনাদেরই হাত ধরে আগামীর যুবলীগ এদেশে মানবিক সমাজ ব্যবস্থা কায়েম করবে। যেই সমাজে আপনাদের মানবিকতাই প্রধান চালিকা শক্তি হিসাবে কাজ করবে এবং এই মানবিকতাই সবচেয়ে মূল্যবান সম্পদ হিসাবে বিবেচিত হবে।

ঐতিহাসিকভাবে যুবলীগ সবসময় বিভিন্ন অন্যায়-অবিচারের বিরুদ্ধে প্রতিবাদী কণ্ঠ হিসেবে ভূমিকা রেখেছে।’
বাংলাদেশ আজ উন্নয়নশীল দেশ। যুবলীগের সর্বস্তরের নেতাকর্মীরা নিজেদের মেধা, যোগ্যতা, দক্ষতা দিয়ে আমাদের নেত্রীর এগিয়ে যাওয়ার পথকে মসৃণ করবে, এটাই আমার বিশ্বাস। সেই লক্ষ্য নিয়েই যুবলীগ কাজ করে যাচ্ছে। আমি বিশ্বাস করি ‘শেখ হাসিনার হাতেই বাংলাদেশ সবচেয়ে নিরাপদ, কারণ তিনি বঙ্গবন্ধুকন্যা। এদেশের প্রতি তাঁর সর্বাধিক দায়বদ্ধতা রয়েছে এবং আগামী নির্বাচনে শেখ হাসিনা সরকারের কোনো বিকল্প নাই।’

তিনি আরো বলেন, প্রত্যেকটি ওয়ার্ডে আগামী ১ মাসের মধ্যে সম্মেলন সম্পন্ন করতে হবে। সংগঠনের স্বার্থে সবাইকে এক হয়ে কাজ করতে হবে। নির্বাচনকে সামনে রেখে দলে কোন বিভাজন করা যাবে না। আজকে রাজরাজেশ্বরে বিদ্যুৎ আছে এটি সম্ভব হয়েছে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় থাকার কারনে।বিএনপি ৫০ বছরও ক্ষমতায় থাকলে তা সম্ভব হতো না।আপনাদেরকে এই উন্নয়নের কথা মানুষের কাছে তোলে ধরতে হবে।

দীপু আপা গত ১৪ বছরে এই ইউনিয়নে যতবার এসেছে কোন উপজেলা চেয়ারম্যান ৫০ বছরেও এতোবার আসেনি।আমাদের নেত্রী এলাকার উন্নয়নের জন্য অক্লান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন। আমাদেরকে এগুলো মানুষের সামনে তুলে ধরতে হবে।আমরা এক ও অভিন্ন থেকে আগামীতে দীপু আপাকে এমপি বানাবো।আগামী জাতীয় নির্বাচনে নৌকার বিজয় নিশ্চিত করতে যুবলীগকে ঐক্য বদ্ধ হয়ে কাজ করতে হবে।

বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সদর উপজেলা যুবলীগের সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক শিমুল হাসান সামনু, যুগ্ম আহবায়ক তাজুল ইসলাম মিয়াজী।

শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন চাঁদপুর জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য দেলোয়ার হোসেন সরকার, রাজরাজেশ্বর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি ও ইউপি চেয়ারম্যান হযরত আলী বেপারি, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ আলাউদ্দিন বেপারী, ইউনিযন যুবলীগের সাবেক সভাপতি বাচ্চু মাষ্টার, সদর উপজেলা যুবলীগের অন্যতম সদস্য মোঃ জাহাঙ্গীর কবির কিশোর, আবুল হাসনাত নয়ন, মোঃ মনির ঢালী, মোঃ সেলিম মাল , ফারুক হোসেন বেপারী, সাহা জালাল বন্দুকসী, ইউনিয়ন ছাত্র লীগের সাবেক সভাপতি ইউপি সদস্য পারভেজ গাজী রনি, ইউনিয়ন ছাত্রলীগের আহ্বায়ক জহির উদ্দিন সরকার, যুগ্ন-আহবায়ক বিল্লাল হোসেন দেওয়ান সহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।

উপস্থিত ছিলেন কল্যাণপুর ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি মোঃ শাহাবুদ্দিন গাজী , রামপুর ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি মোঃ আহসান পাটওয়ারী, তরপুচন্ডি ইউনিয়ন যুবলীগের যুগ্ন-আহবায়ক মোঃ মনির হোসেন শেখ, কল্যাপুর ইউনিয়ন যুবলীগের যুগ্ন-আহবায়ক সুমন হাওলাদার , বি এম জসিম উদ্দিন, মৈশাদী ইউনিয়ন যুবলীগের যুগ্ন-আহবায়ক মোঃ সোহরাব হোসেন, বাগাদী ইউনিয়ন যুবলীগ নেতা রুবেল রিপন, জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি তানভির রেজা রনি, কামরুজ্জামান, ওমর ফারুক সুমন,তথ্য ও গভেষনা সম্পাদক রাকিব হোসেন সহ বিভিন্ন স্তরের নেতৃবৃন্দ।

অনুষ্ঠানে ইউনিয়ন যুবলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মোঃ শরাফত আলী গাজীর সভাপতিত্বে ও মোঃ রুহল আমিন মিজির পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন ইউনিয়ন যুবলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক সাহাজালার প্রধানিয়া,সাংগঠনিক সম্পাদক হুকুম আলী সর্দারসহ ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক বৃন্দ ।

একই রকম খবর