শাহরাস্তিতে প্রভাবশালী বন্ধ করে দিল ২৫ বছরের পুরাতন রাস্তা

শাহরাস্তি প্রতিনিধি: শাহরাস্তিতে জনগণের চলাচলের ২৫ বছরের পুরনো রাস্তা বন্ধ করে দিয়েছে স্থানীয় প্রভাবশালী এক রাজনৈতিক নেতা।

এ বন্ধ রাস্তাটির দুর্ভোগ দুর্দশা নিয়ে প্রতিদিন স্কুল পড়ুয়া শিক্ষার্থী বৃদ্ধ নারী পুরুষ বিভিন্ন পথে ঘর থেকে বের হয়ে তাদের নৃত্যদিনের কাজকর্ম সম্পন্ন করছে। ভুক্তভোগীরা এই দুর্ভোগের বিষয়টি ইতোমধ্যে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, উপজেলা ও জেলা প্রশাসনের সংশ্লিষ্টদের আবেদনের মাধ্যমে অভিহিত করেছেন।

এ বিষয়টি জানাজানি হতেই ওই প্রভাবশালী আলীগ নেতা রেজাউল করিম মিন্টু ক্ষিপ্ত হয়ে পথ চলাচলের রাস্তাটুকু একেবারে টিনের বেড়া দিয়ে বন্ধ করে সেখানে দোকান স্থাপন করেছেন। শাহরাস্তি উপজেলার পৌরসভার ৭ নং ওয়ার্ডের নিজ মেহের মহল্লার শাহরাস্তি পরিবার পরিকল্পনা অফিস সংলগ্ন কাজীবাড়ি রাস্তায় এ সেখানে দুরবস্থা বিরাজ করছে।

ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার ও তাদের অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, ওই রাস্তাটি দিয়ে পরিবারগুলো গত ২৫ থেকে ৩০ বছর ধরে শাহরাস্তি উপজেলার ফ্যামিলি প্লানিং এর দক্ষিণ পাশের এ রাস্তা দিয়ে যাতায়াত করে আসছে । গত কয়েক বছর পূর্বে স্থানীয় আলীগ নেতা রেজাউল করিম মিন্টু গংরা রাস্তাটি তাদের ব্যক্তিগত জায়গা দাবি করে পথচারীদের বিভিন্নভাবে হেনস্থা করছে।

তখন এই রাস্তার সম্পত্তির বিষয়টি নিয়ে উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মোঃ ফারুক হোসেন শাহরাস্তি উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর তাদের সরকারি সম্পত্তি সীমানা নির্ধারণের একটি আবেদন করেন । পরে শাহরাস্তি উপজেলা ভূমি অফিসের কানুনগো (অ:দা) ১৫.০৩.২০২০ তারিখে, ৬০ নং নিজ মেহের মৌজা উপজেলা ফ্যামিলি প্ল্যানিং অফিসের ভূমি সরজমিনের সিএস ও বিএস মোতাবেক পরিমাপ করেন। ওই সময় ফ্যামিলি প্ল্যানিং অফিস মালিকানাধীন ভূমি বিএসএ ৬৩২৪ নং দাগ এ নকশা ০.৫৯১৫ একর ভূমি পাওয়া যায় ।

ওই পরিমাপ অনুসারে ১০ ফুট ভূমি ফ্যামিলি প্লানিং এর দক্ষিণ পাশে খালি পতিত রয়েছে বলে সরকারি আমিন ও কানুনগো মোহাম্মদ অহিদুর রহমান গত ১৭.০৬.২০২০ একটি প্রতিবেদন দাখিল করে । ওই প্রতিবেদন অনুসারে ফ্যামিলি প্লানিং অফিসের পতিত ভূমিটি কাজী বাড়ির রাস্তা হিসেবে জনগণের জন্য উন্মুক্ত ছিল। একই বছর মিন্টু গংরা রাস্তাটি নিয়ে আপত্তি করলে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি জনগণের রাস্তার পক্ষে তাদের মতামত দেন। ওই হিসেবে সাবেক পৌর চেয়ারম্যান মোশারফ হোসেন পাটোয়ারী সময় রাস্তাটিতে মাটি ভরাটের কাজ করা হয়।

পরবর্তীতে পৌর চেয়ারম্যান মোস্তফা কামাল চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়ে ৫০ ফিট রাস্তা পাকা করন সম্পন্ন করেন। বর্তমানে পৌরসভার অর্থায়নে নির্মিত রাস্তাটির পূর্ব অংশের কিছু ভূমি নিয়ে মিন্টু গংরা আবারো সম্প্রতি বাধা সৃষ্টি করে। পরে এ রাস্তা গমনকারী কাজী বাড়ির সহ স্থানীয় বাসিন্দারা বিষয়টি আবারও স্থানীয় সাংসদ উপজেলা প্রশাসন সংশ্লিষ্ট প্রশাসনকে অবহিত করে। এতে মিন্টু আবারো ক্ষিপ্ত হয়ে ওই রাস্তাটি প্রথমে তারকাটার ভেড়া পরে রাস্তার পূর্ব অংশের মুখে দোকান স্থাপন করে একেবারে বন্ধ করে দেয়।

বিষয়টি জানাজানি হলে শাহরাস্তি পুলিশ প্রশাসন রাস্তাটির মুখে স্থাপিত দোকানটি অপসারণ করে দিয়ে আসলে পুনরায় আবার দোকান স্থাপন করে রাস্তাটি একবারে বন্ধ করে দেওয়া হয়। বর্তমানে ওই এলাকার বসবাসরত স্থানীয় বাসিন্দাদের স্কুল পড়ুয়া কোমলমতি শিশু ও অসুস্থ নারী পুরুষ ঘর থেকে বের হতে পারছে না। তারা এই কষ্টের কথা গণমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে নথিপত্র সহকারে তুলে ধরেন। তাদের দাবি জনপ্রতিনিধি স্থানীয় সাংসদ সংশ্লিষ্ট আইন প্রয়োগকারী সংস্থা তাদের এই দুঃখের কথা আমলে নিয়ে দ্রুত তাদের পথ চলাচলের জন্য রাস্তাটি আবারও খুলে দিবে।

উল্লেখ ভুক্তভোগীরা আরও জানান সম্প্রতি মিন্টু গংরা এই রাস্তাটি খোলার বিষয়ে যারা মাথা ঘামাচ্ছে তাদেরকে বিভিন্নভাবে হুমকি-ধমকি ও মামলা জড়াবার পাঁয়তারা তারা লিপ্ত রয়েছে ।

 

একই রকম খবর