হানারচর ইউনিয়নে মা ইলিশ সংরক্ষণে সচেতনমূলক সভা

ইব্রাহিম খান : চাঁদপুরে মা ইলিশ সংরক্ষণ অভিযান উপলক্ষে সচেতনমূলক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বুধবার (৫ অক্টোবর) বিকেলে চাঁদপুর সদর উপজেলার ১৩নং হানারচর ইউনিয়ন পরিষদ প্রাঙ্গনে ইলিশ সম্পদ উন্নয়ন ও ব্যবস্থাপনা প্রকল্পের আওতায় অনুষ্ঠানের আয়োজন করে সিনিয়র উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তার কার্যালয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা মৎস্য কর্মকর্তা গোলাম মেহেদী হাসান।

তিনি বলেন, ইলিশ সম্পদ যদি ফুরিয়ে যায় তাহলে আপনাদের থেকেই ফুরিয়ে যাবে। প্রতিবছর বিশ্বের ৮৬% ইলিশ আমাদের দেশে উৎপন্ন হয়। তাই আমাদের দেশে ইলিশ যদি রক্ষা না করতে পারি তাহলে বিশ্ব থেকে ইলিশ একদিন হারিয়ে যাবে। ইলিশ রক্ষার স্বার্থে বর্তমান সরকার ২০ কেজি চালের পরিবর্তে ২৫ কেজি করে দিচ্ছে। সারাদেশে এক যোগে ৪৮ টি জেলায় এই চাল দেয়া হবে। সরকার এত টাকা ব্যয় করছে শুধুমাত্র ইলিশ উৎপাদন বৃদ্ধি করার লক্ষ।

তিনি আরো বলেন, প্রতিটি ইউপি চেয়ারম্যান ও সদস্যদের দায়িত্ব হচ্ছে অভিযানের সময় খাল গুলোর মুখ বন্ধ রাখা। কারণ অসাধু জেলেরা এ সময় মাছ ধরে খুব সহজে খালের কারণে পাড় পেয়ে যায়। বছরের ৩৬৫ দিনের মধ্যে ২২ দিন মা ইলিশ রক্ষার স্বার্থে আপনারা নদীতে নামবেন না। যদি তার ব্যপ্তয় ঘঠে তাহলে প্রশাসন কঠোর হতে বাধ্য হবে।

হানার চর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুস সাত্তার রাড়ীর সভাপতিত্বে এসময় আরো বক্তব্য রাখেন, সদর উপজেলার মৎস কর্মকর্তা তানজিনুন ইসলাম, হরিনা ঘাট নৌ পুলিশের অফিসার ইনচার্জ মিজানুর রহমান, কেন্দ্রীয় কান্ট্রিফিশিং বোর্ড মালিক সমিতির সভাপতি শাহ আলম মল্লিক, সাধারণ সম্পাদক তসলিম বেপারী, আওয়ামী মৎস্যজীবী লীগের সভাপতি আব্দুল মালেক দেওয়ান।

অনুষ্ঠানে সঞ্চালনার দায়িত্ব পালন করেন উপজেলা মৎস্য অফিসের ক্ষেত্র সহকারী জামিল হোসেন।

উল্লেখ্য, আগামী ৭ অক্টোবর থেকে ২৮ অক্টোবর পর্যন্ত ২২ দিন মা ইলিশ সংরক্ষণ অভিযানের কার্যক্রম চলবে। এই মা ইলিশ সংরক্ষণ অভিযানে জেলায় ৪৪ হাজার ৩৫ জন জেলের মাঝে ২৫ কেজি করে মোট ১১ লক্ষ ৭ হাজার ৮৭৫ কেজি চাল প্রদান করা হবে।

একই রকম খবর