২২ দিন চাঁদপুর নৌ থানা পুলিশের অভিযান

সাইদ হোসেন অপু চৌধুরী : ইলিশের প্রজনন রক্ষায় ৭ অক্টোবর শুরু হওয়া নিষেধাজ্ঞা চলে গতকাল ২৮ অক্টোবর শুক্রবার পর্যন্ত। ইলিশ উৎপাদন বৃদ্ধিতে চাঁদপুরের পদ্মা-মেঘনা নদীতে নৌ পুলিশ ছিল তৎপর।

গত ২২ দিনে মা ইলিশ শিকারের অপরাধে ১১৮৮জন জেলেকে আটক করা হয়েছে। ইলিশ মাছ উদ্ধার হয়েছে ৬৬৯৫ কেজি, ৪৭৪টি মাছ ধরার নৌকা, ৮টি ট্রলার, ৪টি স্পীডবোট আটক করা হয়েছে।

নদীতে থেকে নিষিদ্ধ কারেন্টজাল উদ্ধার হয়েছে ৩৯ কোটি ৬ লাখ ৫৫ হাজার ৩২৭ মিটার। আর নিয়মিত মামলা হয়েছে ১৬০টি এবং টাস্কফোর্সে নিয়োজিত নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ১৩০টি ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে জেলেদেরকে জেল এবং জরিমানা করেছে বলে জানান চাঁদপুর নৌ পুলিশের অফিসার ইনচার্জ কামরুজ্জামান।

নৌ-পুলিশ চাঁদপুর অঞ্চলের পুলিশ সুপার মো. কামরুজ্জামান জানান, মা ইলিশ রক্ষা অভিযানে নৌ-পুলিশ খুবই তৎপর ছিল। গত ৭ অক্টোবর থেকে ২৮ অক্টোবর পর্যন্ত অবৈধভাবে মা ইলিশ শিকারের অপরাধে ১১৮৮জন জেলেকে আটক করা হয়েছে।

ইলিশ মাছ উদ্ধার হয়েছে ৬৬৯৫ কেজি। ৪৭৪টি মাছ ধরার নৌকা, ৮টি ট্রলার, ৪টি স্পীডবোট আটক করা হয়েছে। মাছ ধরা অবস্থায় এবং নদীতে পেতে রাখা নিষিদ্ধ কারেন্টজাল উদ্ধার হয়েছে ৩৯ কোটি ৬ লাখ ৫৫ হাজার ৩২৭ মিটার।

এসব ঘটনায় নিয়মিত মামলা হয়েছে ১৬০টি এবং টাস্কফোর্সে নিয়োজিত নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ১৩০টি ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে জেলেদেরকে জেল এবং জরিমানা করেছেন। আশা করছি আমাদের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় ইলিশের উৎপাদন বৃদ্ধি হবে।

একই রকম খবর