আজ চাঁদপুর জেলা রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয়ে দাখিলকৃত মনোনয়নপত্র বাছাই

আহম্মদ উল্যাহ : আজ রোববার (২ ডিসেম্বর) সকাল ১০টা থেকে চাঁদপুর জেলা প্রশাসক ও জেলা রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয়ে প্রার্থীদের উপস্থিতিতে দাখিলকৃত মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই করা হবে।

এদিন সকাল প্রার্থীদের সাথে প্রস্তাবকারী ও সমর্থনকারীদের উপস্থিত থাকতে হবে। আজ যাচাই-বাছাই শেষে বৈধ প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করবেন রিটার্নিং অফিসার। প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষদিন ৯ ডিসেম্বর। ওইদিন বিকেল ৫টার পর চূড়ান্তভাবে জানা যাবে কারা নির্বাচনী মাঠে কে থাকছেন।
এদিকে উৎসবের আমেজে ও আনন্দমুখর পরিবেশে চাঁদপুর জেলার পাঁচটি সংসদীয় আসনে ৫৯ জন মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশগ্রহণের লক্ষ্যে এঁরা মনোনয়নপত্র জমা দেন। এঁদের মধ্যে ৭ জন স্বতন্ত্র ছাড়া সবাই দলীয় এবং জোটগত মনোনয়ন নিয়ে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। জেলা রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয় ছাড়াও সহকারী রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয়েও কেউ কেউ মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। তবে অধিকাংশ এবং হেভিওয়েট প্রার্থীদের অনেকেই জেলা রিটার্নিং অফিসারের কাছে তাঁদের মনোনয়ন জমা দিয়েছেন। গতকাল ২৮ নভেম্বর মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার শেষদিন ছাড়াও এর আগের কয়েকদিনও মনোনয়নপত্র জমা দেন প্রার্থীরা।

গত ২৮ নভেম্বর সকাল ১১টা থেকেই চাঁদপুর জেলা প্রশাসক কার্যালয় তথা রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয়কে ঘিরে ছিলো উৎসবমুখর পরিবেশ। একের পর এক প্রার্থীরা তাঁদের কর্মী-সমর্থকদের নিয়ে এসেছেন এবং রিটার্নিং অফিসারের কাছে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন।

প্রার্থীরা ব্যাপক কর্মী-সমর্থক নিয়ে আসলেও মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার সময় প্রার্থীসহ পাঁচজনের অতিরিক্ত ছিলো না। সকাল থেকে বিকেল ৩টা পর্যন্ত মনোনয়নপত্র জমার কাজ ধীরগতিতে চললেও ৩টার পর চাপ পড়ে প্রার্থীদের। শেষদিকে এসে ৩-৪ জন প্রার্থীকে একসাথে ঢুকতে হয়েছে রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয়ের ভেতরে।

তাদের সাথে ৫/৭ জন করে সমর্থকও ঢুকেছেন। তখন প্রশাসনকে হিমশিম খেতে হয়েছে। মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার পর প্রাথমিক দেখাশোনার কাজটি সেরে ফেলা হয়। এ কাজে রিটার্নিং অফিসার মোঃ মাজেদুর রহমান খানকে সহযোগিতা করেন জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মোঃ হেলাল উদ্দিন ও সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কানিজ ফাতেমাসহ কয়েকজন ম্যাজিস্ট্রেট।

দল এবং জোটের প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র দাখিলকৃত ৫৯ জনের মধ্যে আওয়ামী লীগের ৮ জন, বিএনপির (জোটসহ) ১৭ জন, ইসলামী আন্দোলনের ৫ জন, জাতীয় পার্টির ৪ জন, ইসলামী ফ্রন্টের ৪ জন, গণফোরাম থেকে ৩ জন, জাকের পার্টির ৩ জন, বাসদের ২ জন, মুসলিম লীগের ২ জন ও স্বতন্ত্র পরিচয়ে ৭ জন। এছাড়া ইসলামিক ফ্রন্ট, জাসদ, তরিকত ফেডারেশন, ইসলামী ঐক্যজোট, ন্যাপ, জাসদ (ইনু) ও বাংলাদেশ বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টি ১টি করে আসনে মনোনয়নপত্র জমা দেয়।

মনোনয়নপত্র দাখিলকৃত প্রার্থীরা হলেন : চাঁদপুর-১ (কচুয়া)- আওয়ামী লীগের ব্যানারে সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ড. মহীউদ্দিন খান আলমগীর, এনবিআরের সাবেক চেয়ারম্যান মো. গোলাম হোসেন, বিএনপির সাবেক শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী আ ন ম এহসানুল হক মিলন, তার স্ত্রী কেন্দ্রীয় মহিলা দলের সদস্য নাজমুন্নাহার বেবী, মালয়েশিয়া বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ও কেন্দ্রিয় কমিটির সদস্য মোশারফ হোসেন, জাতীয় পার্টির এমদাদুল হক, ইসলামী ঐক্যফ্রন্টের নূরুল আলম মজুমদার, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মো. জোবায়ের আহমদ, স্বতন্ত্র প্রার্থী এ কে এস এম শহীদুল ইসলাম ও খন্দকার মোশারফ হোসেন মনোনয়ন ফরম জমা দিয়েছেন।

চাঁদপুর-২ (মতলব উত্তর-দক্ষিণ)- আওয়ামী লীগের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণমন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন মায়া চৌধুরী বীর বিক্রম, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি নূরুল আমিন রুহুল, বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা ড. জালাল উদ্দিন, সাবেক এমপি নুরুল হুদার ছেলে তানভির হুদা, জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় ভাইস চেয়ারম্যান এমরান হোসেন মিয়া, ঐক্যজোটের মনির হোসেন, স্বতন্ত্রপ্রার্থী খায়রুল হাসান ও ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের আফছার উদ্দিন মনোনয়ন ফরম জমা দিয়েছেন।

চাঁদপুর-৩ (সদর-হাইমচর)- আওয়ামী লীগ হতে সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডা. দীপু মনি এমপি, বিএনপি মনোনতি প্রার্থী জেলা বিএনপির আহŸায়ক শেখ ফরিদ আহমেদ আহমেদ মানিক, বিএনপির সাবেক মহিলা এমপি রাশেদা বেগম হীরা, এস এম এম আলম, অ্যাড. ফজলুল হক সরকার, জাতীয় পার্টির অ্যাড. মহসিন খান, গনফোরামের অ্যাড. সেলিম আকবর, জাকের পার্টির মুক্তিযোদ্ধা কামরুন্নাহার রেনু, ইসলামি ঐক্যফ্রন্টের আবু জাফর মো. মাইনুদ্দিন, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মো. জয়নাল আবেদীন শেখ, জাসদের (ইনু) আব্দুল আজিজ ও বাসদের শাহজাহান তালুকদার মনোনয়ন ফরম জমা দিয়েছেন।

চাঁদপুর-৪ (ফরিদগঞ্জ)- আওয়ামী লীগ হতে সাবেক এমপি ড. মোহাম্মদ শামসুল হক ভূইঁয়া ও জাতীয় প্রেসক্লাব সভাপতি সাংবাদিক মুহম্মদ শফিকুর রহমান। বিএনপির মনোনিত প্রার্থী উপজেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি এম এ হান্নান, কেন্দ্রীয় বিএনপির সদস্য কাজী রফিকুল ইসলাম ও ড. আবুল কালাম আজাদ। স্বতন্ত্রপ্রার্থী জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি জাহিদুল ইসলাম রোমান, বিএনপির সাবেক এমপি লায়ন হারুনুর রশিদ, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মুকবুল হোসাইন, গণফোরামের ড. মো শাহজাহান, ন্যাপের দেলোয়ার হোসেন পাটওয়ারী, জাকের পার্টির বাচ্চু মিয়া ভাষানি, ইসলামী ফ্রন্টের গোলাম হোসেন ভূঁইয়া মানিক, জাতীয় পার্টির মাইনুল ইসলাম মানু ও স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে এম আনিসুজ্জামান রানা মনোনয়ন ফরম জমা দিয়েছেন।

চাঁদপুর-৫ (হাজীগঞ্জ-শাহরাস্তি)- এ আসনে আওয়ামী লীগ হতে সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মেজর (অ.) রফিকুল আসলাম বীর উত্তম, বিএনপি থেকে সাবেক জেলা সভাপতি ইঞ্জি: মমিনুল হক ও সাবেক এমপি এম এ মতিন। জাতীয় পার্টির খোরশেদ আলম খুশু, ইসলামিক ফ্রন্ট বাংলাদেশের সৈয়দ বাহাদুর শাহ, এলডিপির ড. নেয়ামুল বশির, জাকের পার্টির ওবায়েদ মোস্তফা, বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্টের মাওলানা আবু সুফিয়ান আল কাদেরী, জাসদের (ইনু) মনির হোসেন মজুমদার ও ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মো. শাহাদাত হোসেন প্রধানিয়া মনোননয়ন ফরম জমা দিয়েছেন।

একই রকম খবর

Leave a Comment