আশিকাটিতে নববধুকে শ্বাসরোধ করে হত্যা : স্বামীর পালায়ন

স্টাফ রির্পোটার : চাঁদপুর সদর উপজেলার আশিকাটি ইউনিয়নে শাপলা আক্তার রিমি (২০) নামে নববধুকে শ্বাসরোধ করে হত্যার পর লাশ খাটের নিচে ফেলে রেখে ঘাতক স্বামী শাহ পরান পালিয়ে গেছে।

মঙ্গলবার (১৭ মে) দুপুরে ওই ইউনিয়নের দক্ষিণ আশিকাটি গ্রামের ১ নং ওয়ার্ড এনায়েত পাটোয়ারী বাড়িতে এই দুর্ঘটনা ঘটে। তারা স্বামী-স্ত্রী ওই বাড়ির একটি ঘরে ভাড়া থাকতেন।

শাপলা আক্তার রিমির মরদেহ ওই ঘরের খাটের নিচ থেকে উদ্ধার করে মডেল থানা পুলিশ। রিমিকে শ্বাসরোধ করে হত্যার পর ঘাতক স্বামী শাহ পরান গাজী ঘরে তালা মেরে পালিয়ে যায়। পাশের বাসার ভাড়াটিয়া খাটের নিচে লাশ দেখতে পেয়ে পুলিশকে জানায়।

খবর পেয়ে চাঁদপুর সদর সার্কেল আসিফ মহিউদ্দীন, মডেল থানার ওসি আব্দুর রশিদ , পিবিআই ও সিআইডি কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে গিয়ে মৃত্যুর ঘটনা তদন্ত করে ও আলামত সংগ্রহ করেন।

শাপলা আক্তার রিমি ময়মনসিংহ চরকুমারিয়া গ্রামের ইদ্রিস আলীর মেয়ে। হত্যার ঘটনার সাথে জড়িত স্বামী শাহ পরান গাজী চাঁদপুর সদর উপজেলার ৪নং শাহমাহমুদপুর ইউনিয়নের পাইকদী (গাজী বাড়ী) শহর গাজীর ছেলে।

চাঁদপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ( ওসি) মোহাম্মদ আব্দুর রশিদ বলেন, একমাস পূর্বে শাহ পরান গাজী স্ত্রীসহ এনায়েত পাটোয়ারি বাড়ি একটি কক্ষ ভাড়া নেয়। রাতের কোন এক সময়ে স্ত্রী শাপলা আক্তার রিনিকে শ্বাসরোধ করে হত্যার পর লাশ ফেলে রেখে তার স্বামী শাহপরান পালিয়ে যায়। সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলে এসে খাটের নিচ থেকে লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এই ঘটনায় পলাতক আসামিকে ধরতে পুলিশ তৎপর রয়েছে।

একই রকম খবর