ইতালির ভেনিস নগরে বৃহত্তর কুমিল্লা সমিতির আত্মপ্রকাশ

প্রেস বিজ্ঞপ্তি : ‘ঐক্য, সৌহার্দ্য, শান্তি, প্রগতি’ এই শ্লোগানে বাংলাদেশের ঐতিহ্যবাহী সাবেক কুমিল্লা জেলা তথা বর্তমান কুমিল্লা, চাঁদপুর ও ব্রাহ্মনবাড়িয়া জেলার প্রবাসীদের নিয়ে একটি সংগঠনের আত্মপ্রকাশ হয়েছে। ইতালির পর্যটন নগরী ভেনিস প্রবাসীদের এই সংগঠনের নাম ‘বৃহত্তর কুমিল্লা সমিতি’। সংগঠনের আহবায়ক কমিটিও গঠন করা হয়েছে।

বিপুল সংখ্যক প্রবাসী বৃহত্তর কুমিল্লাবাসীর উপস্থিতিতে গত ১০ মার্চ ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনা ও আনন্দঘন পরিবেশে স্থানীয় মেস্ত্রের বিসমিল্লাহ রেস্টুরেন্ট এন্ড ক্যাফেতে অনুষ্ঠিত সমিতির প্রথম সাধারণ সভায় এই কমিটি গঠিত হয়। একই সাথে উপদেষ্টা কমিটিও গঠিত হয়েছে।

৩৭ সদস্যবিশিষ্ট নবগঠিত কমিটিতে সর্বসম্মতিক্রমে আহবায়ক নির্বাচিত হয়েছেন ভেনিসের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও চাঁদপুরের সাবেক কৃতি সাংবাদিক শাহাদাত হোসেন (এস টি শাহাদাত)। কমিটির সদস্য সচিব প্রবাসী সাংবাদিক মেসবাহ উদ্দিন আলাল (ব্রাহ্মনবাড়িয়া), কো-্আহবায়ক যথাক্রমে ব্রাহ্মনবাড়িয়ার মিলন মোহাম্মদ ও কুমিল্লার শরীফুল আলম মৃধা। এছাড়া কো-সদস্য সচিব যথাক্রমে মাসুদুর রহমান (কুমিল্লা), আজাদ খান (চাঁদপুর), কোষাধ্যক্ষ মাকসুদুর রহমান (কুমিল্লা), কো-কোষাধ্যক্ষ মোহাম্মদ ইয়াসিন (ব্রাহ্মনবাড়িয়া), মোহাম্মদ জসীম (চাঁদপুর)। কমিটির সদস্য যথাক্রমে চাঁদপুরের আশরাফ পাটোয়ারী, শাহিন পাটোয়ারী, কবির হোসেন, সাহিদুল ইসলাম লিটন, মোশাররফ হোসেন, সোহেল রানা, প্রফেসর মুন্না ও হারুন খান; ব্রাহ্মনবাড়িয়ার মোঃ শাহ আলম, শেখ আমান উল্লাহ, মোঃ হাবিব মিয়া, জিল্লাল মিয়া, ফয়সাল আহম্মেদ, ফখরুল ইসলাম দুলাল, রফিকুল ইসলাম ও মোঃ জামাল; কুমিল্লার নজরুল ইসলাম, নিমাল চৌধুরী, আবুল কালাম আজাদ, রহিম জাবেদ মামুন, তুহিন রহমান, নাছির উদ্দিন, মামুনুর রশিদ, জামাল উদ্দিন, নুর আলম ভূঁইয়া, খালেদ সরকার, হাবিবুর রহমান ও আজিজুর রহমান।

৯ সদস্যবিশিষ্ট উপদেষ্টা কমিটিতে রয়েছেন রেহান উদ্দিন দুলাল, মাহাবুবুর রহমান, এ টি এম কামরুজ্জামান, সাইদ হোসাইন, আবদুল কুদ্দুছ চৌধুরী, ছিদ্দিকুর রহমান বকুল, রফিকুল ইসলাম, আবদুল মান্নান ও হুমায়ুন কবির।

সাধারণ সভায় সভাপতিত্ব করেন সাবজেক্ট কমিটির অন্যতম সদস্য বিশিষ্ট কমিউনিটি ব্যক্তিত্ব আইনজ্ঞ রেহান উদ্দিন দুলাল। সভা পরিচালনা করেন মাহবুব হোসেন ও আবদুল মান্নান। সভায় আহŸায়ক কমিটি আগামী ১২০ দিনের মধ্যে সম্মেলনের মাধ্যমে একটি পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠনের দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেন। সবশেষে প্রীতিভোজ অনুষ্ঠিত হয়।

একই রকম খবর

Leave a Comment