উন্নয়নের স্বার্থেই শেখ হাসিনার সরকার বার বার দরকার : মায়া চৌধুরী

স্টাফ রির্পোটার : বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য বৃহত্তর ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বীর বিক্রম বলেছেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ এখন উন্নয়নের মহাসড়কে অবস্থান করছে। দেশের অবস্থা এখন অনেক ভালো। দেশের এই উন্নয়নের ধারাবাহিকতায় বজায় রাখার স্বার্থে শেখ হাসিনার সরকার বার বার দরকার। বিএনপি ষড়যন্ত্রে বিশ্বাসী, আ’লীগ কখনও ষড়যন্ত্রে বিশ্বাসী নয়। শেখ হাসিনা জনগনের ভোট ও ভাতের অধিকার প্রতিষ্ঠিত করেছে।’

২২ মে রোববার বিকেলে ঢাকার মিরপুর হযরত শাহআলী বোগদাদী (রহ.) মাজার প্রাঙ্গনে বাংলাদেশ বাউল সমিতির আয়োজনে বাংলাদেশ বাউল সমিতির সংবর্ধনা ও অভিষেক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেতে গিয়ে তিনি এসব কথা বলেন।
আওয়ামী লীগের এই প্রভাবশালী নেতা বলেন, ‘শেখ হাসিনা আছে বলেই দেশের মানুষ শান্তিতে আছে, পেট ভরে খায়, শান্তিতে ঘুমায়। ৩০ বছর আমরা ক্ষমতার বাইরে ছিলাম। এই ৩০ বছর আমাদের জীবনের নিরাপত্তা ছিল না। অনেক নির্যাতন সহ্য করেছি।’

বিএনপি-জামায়াত ক্ষমতায় এলে মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মান ধূলিসাৎ হয়ে যাবে উল্লেখ করে বীর মুক্তিযোদ্ধা মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বলেন, শেখ হাসিনা বিনা পয়সায় বই দিয়ে স্কুলের শিক্ষার্থীদের লেখাপড়া করাচ্ছেন। মুক্তিযোদ্ধারা বিনা পয়সায় চিকিৎসা পাচ্ছেন। চাকরি-বাকরি নাই, মাস শেষে ২০ হাজার করে ভাতা পাচ্ছেন। ‘শেখ হাসিনার সরকার বারবার দরকার’ – কথাটা শুনলেই মন ভরে যায়। তিনি বাউল শিল্পিদের পাশে থাকার অঙ্গিকার ব্যক্ত করেন।

বাংলাদেশ বাউল সমিতির সংবর্ধনা ও অভিষেক অনুষ্ঠানে অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ বাউল সমিতির চেয়ারম্যান আবদুস সোবহান সরকার।

অনুষ্ঠানটির সঞ্চালনা ও সার্বিক তত্বাবধানে ছিলেন, বাংলাদেশ বাউল সমিতির ভাইস চেয়ারম্যান ও মতলব উত্তর উপজেলা শ্রমিকলীগের সভাপতি মোহাম্মদ মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন,মিরপুর শাহআলী থানা আওয়ামীলীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা জনাব আগা খাঁন মিন্টু এমপি, বাংলাদেশ বাউল সমিতির প্রধান উপদেষ্টা মতলব উত্তর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা এমএ কুদ্দুস, বাংলাদেশ আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবকলীগের সিনিয়র যুগ্মসাধারণ সম্পাদক মোবাশ্বের চৌধুরী।

স্বাগত বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ বাউল সমিতির মহাসচিব মোঃ আবুল সরকার, বাংলাদেশ বাউল সমিতির ভাইস চেয়ারম্যান শাহআলম সরকার, ভাইস চেয়ারম্যান ফকির আনুল সরকার, ভাইস চেয়ারম্যান, সুনীল কর্মকার প্রমূখ। মানপত্র পাঠ করেন ঝর্না সোবহান ও দীপ্তি সরকার। এরপর সারারাত বাংলাদেশ বাউল সমিতির সদস্যরা গান পরিবেশন করেন।

একই রকম খবর