উপাদী উত্তর ইউপি সদস্য কামাল গাজীর বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ

স্টাফ রিপোর্টার : চাঁদপুরের মতলব দক্ষিণ উপজেলার উপাদী উত্তর ইউনিয়নের প্যানেল চেয়ারম্যান ও ইউপি সদস্য মোঃ কামাল গাজীর বিরুদ্ধে বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগ এনে থানায় অভিযোগ করেছেন মোঃ রফিকুল ইসলাম।

গত ৩০ জুলাই অভিযোগ পত্রে উল্লেখ করেছেন মোঃ কামাল গাজী বিভিন্ন সময়ে আমার নিকট হাওলাদ হিসেবে টাকা চাইলে আমি বিবাদীর কথা বিশ্বাস করিয়া আমার সরল বিশ্বাসে নির্বাচন চলাকালীন সময়ে ৫ লাখ টাকা নগদ প্রধান করে থাকি এবং নির্বাচনের পরে নির্বাচনীয় কিছু দেনা পরিশোধের জন্য এবং রাস্তার কাজ করার জন্য ৬০ হাজার টাকা নগদ প্রদান করি।

সর্বমোট ৫ লাখ ৬০ হাজার টাকা নগদ প্রদান করি। কথা ছিল নির্বাচনের ৩ মাস পরে আমার হাওলাদকৃত ৫ লাখ ৬০ হাজার টাকা ফেরত দিয়ে দিবে মর্মে কথা ছিল। এখন আমি উক্ত ৫ লাখ ৬০ হাজার টাকা চাইতে গেলে সকল উপস্থিত সাক্ষীদের সম্মুখে অঙ্গিকার করে। এখন আমি বিবাদীর নিকট আমার হাওলাদকৃত টাকা চাইলে সে দেব দিচ্ছি বলিয়া আমাকে ঘুরাইতে থাকে। এই নিয়ে স্থানীয়ভাবে কয়েকবার বিচার-আচার করিয়াও বিবাদীর নিকট হইতে আমার পাওনাকৃত উপরোক্ত টাকা উদ্ধার করিতে পারি নাই। উপরোক্ত ঘটনার তারিখ সময় ও স্থানে আমি উপরোক্ত সাক্ষীগনসহ এলাকার গন্যমান্য লোকজনকে নিয়া ঘটনাস্থলে যাইয়া বিবাদীর পাইয়া আমার পাওনাকৃত ৫ লাখ ৬০ হাজার টাকা ফেরত দেওয়ার কথা বলিলে তাহারা বলে কিসে টাকা, আমরা আপনার নিকট হইতে হাওলাদ হিসাবে কোন টাকা নেই নাই এবং আপনি আমাদের নিকট কোন টাকা পাইবেন না।

এই নিয়ে তাহাদের সাথে আমার কথাকাটাকটি হওয়ার একপর্যায়ে বিবাদী আমাকে বিভিন্ন ধরণের হুমকী প্রদান করে। আমি যদি পরবর্তীতে বিবাদীদের নিকট আমার পাওনাকৃত ৫ লাখ ৬০ হাজার টাকা চাইলে অথবা এই বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করিলে বিবাদীগণ আমাকে ও আমার পরিবারের লোকজনকে ভাড়াটিয়া গুন্ডা দিয়ে সুযোগ মতপাইলে খুন জখমসহ যে কোন ধরণের ক্ষতিসাধন করিবে মর্মে একাধিকবার হুমকী প্রদান করে।

এ ব্যাপারে ইউপি সদস্য কামাল গাজীর কাছে জানতে চাইলে তিনি বিষয়টি অস্বীকার করে বলেন, এটা আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র। এ ব্যাপারে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ মহিউদ্দিন মিয়া জানান, অভিযোগ পেয়েছি, তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নিবো।

 

একই রকম খবর