কচুয়ায় পরকীয়া প্রেমিকের সাথে অর্থ ও স্বর্নালঙ্কার নিয়ে প্রবাসীর স্ত্রী উধাও

ইসমাইল হোসেন বিপ্লব,কচুয়া ॥ কচুয়া উপজেলার বিতারা গ্রামে স্বামীর নগদ টাকা ও স্বর্নালঙ্কার নিয়ে উধাও হলেন প্রবাসীর স্ত্রী। শনিবার সকালে মালয়েশিয়া প্রবাসী মনির হোসেন পাঠানের স্ত্রী ফারজানা আক্তার তার পুত্র ফরহাদ হোসেনকে মাদ্রাসা দেয়ার কথা বলে বাড়ি থেকে বের হয়ে উধাও হয়ে যায়। এ ঘটনায় তার ননদী হালিমা আক্তার বাদী হয়ে রবিবার রাতে কচুয়া থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

লিখিত অভিযোগ ও বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, কচুয়া উপজেলার বিতারা গ্রামের মালয়েশিয়া প্রবাসীর মনির হোসেন পাঠানের সাথে একই উপজেলার জলবিতারা গ্রামের কদর আলীর মেয়ে ফারজানা আক্তারের সাথে প্রায় ৯ বছর পূর্বে বিয়ে হয়।

বিয়ের পর তাদের গৃহে ফরহাদ নামে একটি পুত্র সন্তান রয়েছে। বাদী হালিমা আক্তার,ননদী সেলিনা বেগম দাবি করেন তার ভাইয়ের অনুপস্থিতিতে ফারজানা আক্তার বিতারা গ্রামের ছলিম উদ্দিনের ছেলে সুজনের সাথে পরকীয়া প্রেমে লিপ্ত হয়। ঘটনার দিন ফারজানা আক্তার নগদ ৫ লক্ষ টাকা,৩ ভরি স্বর্ন সহ প্রয়োজনীয় মালামাল নিয়ে উধাও হয়ে যায় বলে তারা দাবি করেন। এ ঘটনায় এলাকায় বেশ তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে।

এদিকে কচুয়া থানায় লিখিত অভিযোগের প্রেক্ষিতে সোমবার বিকালে কচুয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. মামুনুর রশিদ সরকার সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। অন্যদিকে অভিযুক্ত ফারজানা আক্তার ও সুজন মিয়ার বক্তব্য জানতে দফায় দফায় চেষ্টা করে এবং তাদের পিত্রালয় গিয়েও পাওয়া যায়নি।

 

একই রকম খবর