কচুয়া পৌর মেয়র পদে বিএনপি’র একক মনোনয়ন প্রত্যাশী হাবিব উল্যাহ হাবীব

কচুয়া প্রতিনিধি : নির্বাচন তফসিল ঘোষনা অনুযায়াী আগামী ১৪ ফেব্রুয়ারি কচুয়া পৌরসভার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। রাতযত ঘনিয়ে আসছে নির্বাচনীর প্রভাত ততো নিকটে আসছে। নির্বাচনের পরিক্রমার মাঠে কচুয়া পৌর মেয়র পদে বিএনপি থেকে মনোনয়ন প্রত্যাশী পৌর বিএনপি’র সিনিয়র সহ-সভাপতি ও বিএনপি’র প্রতিষ্ঠা পরিবারের সন্তান মো: হাবিব উল্যাহ হাবীব। দীর্ঘদিন দল ক্ষমতার বাইরে থাকলেও দল ও দলের নেতাকর্মীদের ছেড়ে কচুয়া ছাড়েনি হাবিব উল্যাহ হাবীব ও তার পরিবার। দলের নির্যাযিত,হামলা-মামলা ও হয়রানির শিকার নেতাকর্মীদের পাশে ছিলেন তিনি। একজন ত্যাগী ও পরীক্ষিত বিএনপি কর্মী হিসেবে দল থেকে ধানের শীষ প্রতীকে মনোনয়ন পাবেন এমন প্রত্যাশা করছেন তিনি।

জানা গেছে, কচুয়া উপজেলা বিএনপি’র প্রতিষ্ঠাতা মরুহম সোলেমান মিয়া ভেন্ডারের ভাতিজা হাবিব উল্যাহ হাবীব। তাঁর আরেক চাচা আবু তাহের ভেন্ডার কচুয়া উপজেলা ছাত্রদলের প্রতিষ্ঠাতা সেক্রেটারী ও বাবা হাজী ডাক্তার আনোয়ার হোসেন কচুয়া উপজেলা কৃষক দলের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ছিলেন। তিনি ১৯৯৭ সালে কচুয়া বঙ্গবন্ধু সরকারি ডিগ্রি কলেজ শাখা ছাত্রদলের সাবেক জিএস প্রার্থী ছিলেন, উপজেলা ছাত্রদলের সাবেক যুগ্ন সাধারন সম্পাদক,উপজেলা য্বুদলের সহ-সভাপতি ছিলেন। বর্তমানে তিনি জাসাস কচুয়া উপজেলা শাখার প্রতিষ্ঠাতা সেক্রেটারী,কচুয়া বাজার বণিক সমিতির সেক্রেটারী,কচুয়া সাবরেজিস্টার জামে মসজিদের সহ-সভাপতি, দলিল লেখক সমিতির সহ-সভাপতি,কচুয়া প্রেসক্লাবের কার্য নির্বাহীর কমিটির সিনিয়র সদস্য ও কচুয়া থেকে প্রকাশিত প্রথম পত্রিকা পাক্ষিক কচুয়া কন্ঠের প্রতিষ্ঠাতা ও সম্পাদক পদে দায়িত্ব পালন করছেন।

বিএনপি’র দুর্দিনের কান্ডারী ভেন্ডার পরিবারের সন্তান হাবিব উল্যাহ হাবীব নির্বাচনকে সামনে রেখে পৌর এলাকায় প্রতিটি ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে বিভিন্ন ভাবে প্রচার প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন। পাশাপাশি দল থেকে সমর্থন পেলে এবং মেয়র পদে নির্বাচিত হলে কী কী উন্নয়ন কর্মকান্ড পরিচালনা করবেন তার প্রতিশ্রুতি ভোটারদের মাঝে তুলে ধরছেন।

ধানের শীষ প্রতীকের একক মনোনয়ন প্রত্যাশী মো: হাবিব উল্যাহ হাবীব বলেন, আমি ও আমার পরিবার দীর্ঘদিন ধরে কচুয়ায় বিএনপি’র রাজনীতি করে আসছি। দল থেকে কখনো কিছুই চাইনি।

এখন সময় এসেছে চাওয়ার। বিগত দিনের রাজনীতির কর্মকান্ড বিবেচনা করে আমাকে বিএনপি’র ধানের শীষ প্রতীকে মনোনয়ন দিলে বিজয়ী হয়ে সকলের মতামতের ভিত্তিতে একটি আর্দশ ও বসবাসযোগ্য পৌরসভা গঠনের চেষ্টা করব। এজন্য তিনি পৌরবাসীর ও দলীয় নেতাকর্মীদের সমর্থন ও দোয়া চেয়েছেন।

 

একই রকম খবর