করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে স্বেচ্ছাসেবকদের সাথে নিয়ে চাঁদপুর জেলা প্রশাসনের ব্যাপক অভিযান

স্টাফ রিপোটার : চাঁদপুরে মহামারী করোনাভাইরাস দিন দিন বাড়েই চলছে । লক্ষণ নেই কোন প্রতিশোধক । দিন দিন করোনা সংক্রামন বাড়তে থাকার কারণে জনমনে সংখ্যা ও আতঙ্ক দেখা দিয়েছে।

তাই বাংলাদেশ সরকার সংক্রমণ রোধে শতভাগ মাস্ক পরিধান করা ও জনসমাগম সহ নির্দিষ্ট সময়ে ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার ঘোষণা দিয়েছেন। করোনা প্রতিরোধ ও সংক্রমণ ঠেকাতে ২৯জুন সোমবার বিকালে ৪,টায় মাঠে নামেন চাঁদপুর জেলা প্রশাসনের কয়েকটি ইউনিট।

এ সময় চাঁদপুর অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ জামানের নেতৃত্বে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট গন সহ জেলা প্রশাসনের স্বেচ্ছাসেবকদের নিয়ে বিভিন্ন দোকানে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন। সংক্রমণ রোধে শতভাগ মাস্ক পরিধান নিশ্চিত করতে সকলকে জোর প্রশাসন ও স্বেচ্ছাসেবক গধ। এবং জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে বিভিন্ন যানবাহনের চালক, যাত্রী, ও পথচারীদের মাস্ক ব্যতীত যারা ছিলেন এমন তাদের ৫০ জনকে মাস্ক দিয়েছেন।

এদিকে যথাসময়ে দোকান বন্ধ না করে খোলা রাখার কারণে আইন অমান্যকারী দোকানিদের জরিমানা করা হয়। অভিযানে মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে আইন অমান্যকারী দোকানিদের ১২ টি মামলা ৬, হাজার ৯,শত টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক আব্দুল্লাহ আল-মাহমুদ জামানের নেতৃত্বে সংক্রমণ রোধে বিকাল ৪,টা থেকে রাত ৮,টা পর্যন্ত চাঁদপুর পৌরসভার ১,২,৩,৪ নং ওয়ার্ডে ও ৬ নং ওয়ার্ড পালের বাজার এলাকায় স্বেচ্ছাসেবকদের সাথে নিয়ে মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে অভিযান পরিচালনার মাধ্যমে সমাপ্ত করা হয়। অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ জামানের নির্দেশে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আজিজুন নাহার।

ভিযানে জেলা প্রশাসনের স্বেচ্ছাসেবকদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন প্রধান স্বেচ্ছাসেবক অধ্যক্ষ ওমর ফারুক, মোঃ ইউসুফ সরদার ওরফে সোলার ইউসুফ (হৃদয়) সহ উল্লেখিত ওয়ার্ডের সকল স্বেচ্ছাসেবক বৃন্দ।

অভিযান শেষে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ জামান উল্লেখিত ওয়ার্ডের সকল স্বেচ্ছাসেবকদের সাথে নিয়ে চাঁদপুর রসুইঘরে সামান্য ভোজের আয়োজন করেন। ভোজের শেষ সবাইকে সুস্থ্য থাকার উপদেশ দিয়ে নিজ নিজ ঘরে যাওয়ার জন্য বিদায় দেন।

একই রকম খবর