কুমারডুগী ভুট্রো হত্যা মামলা তুলে নিতে চার্জসীটভুক্ত আসামীদের অপতৎপরতা !

চাঁদপুর খবর রিপোর্ট ঃ চাঁদপুর সদর উপজেলার ৪নং শাহমাহমুদপুর ইউনিয়নের কুমারডুগী নিবাসী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাবেক সহ-সভাপতি আলোচিত আজিজুর রহমান খান ভুট্রো হত্যা মামলা তুলে নিতে চার্জসীটভুক্ত কতিপয় আসামীদের অপতৎপরতা শুরু হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে । মামলার বাদী পক্ষকে বিভিন্ন ভাবে চাপ সৃষ্টি করছে মামলা তুলে নেবার জন্য ।

এ ধরনের অভিযোগ আসছে । সেই সাথে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই রাশেদুজ্জামানের তদন্ত নিয়ে ভিত্তিহীন প্রশ্ন তুলেছে । জানা গেছে, এই আলোচিত মামলার চাজর্সীটভুক্ত আসামী সুমন খান ও মোস্তফা খান কালু সম্প্রতি পুলিশ সুপারের নিকট মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই রাশেদুজ্জামানের বিরুদ্ধে একটি ভিত্তিহীন অভিযোগ দাখিল করেছেন ।

যদিও চার্জসীটভুক্ত ওই দুই আসামী এজহারনামীয় আসামী এবং বাদী তাদের নাম এজহারে অর্ন্তভুক্ত করেছেন । ব্যাপক তদন্ত ও সাক্ষ্যপ্রমানের ভিত্তিতেই ঘটনার ৫মাস পর মামলার আইও এই আলোচিত মামলায় এজহারভুক্ত ৫জনসহ ১৬৪ ধারায় জবানবন্দী আলোকে মোট ৮জনকে অভিযুক্ত করে চার্জসীট দাখিল করেন আদালতে ।

বাদীপক্ষ চার্জসীটে ইতিমধ্যে সন্তুষ্ট প্রকাশ করেছেন । চার্জসীটকে ইতিমধ্যে স্বাগত জানিয়েছে এলাকাবাসী । কিন্তু শুরুমাত্র মামলার আইও কে ম্যানেজ করতে না পেরে ওই দুই আসামী এখন মিথ্যা প্রচারনা চালাচ্ছে । পুলিশ সুপারের নিকট ভিত্তিহীন মিথ্যা তথ্যের ভিত্তিতে অভিযোগ দিয়েছে । আসামী পক্ষ স্বাক্ষ্য প্রমানের ভিত্তিতে আদালতে মামলা লড়বে ।আদালতেই এখন প্রমান হবে আলোচিত এই মামলায় কে দোষী আর দোষী না ।

এ ব্যাপারে চাঁদপুর পুলিশ সুপার কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে,সম্প্রতি এ ধরনের একটি অভিযোগ এসেছে । বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে ।
এ ব্যাপারে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই রাশেদুজ্জামান গতকাল শনিবার দৈনিক চাঁদপুর খবরকে জানান, ব্যাপক তদন্ত ও সাক্ষ্যপ্রমানের ভিত্তিতেই ঘটনার ৫মাস পর মামলায় এজহারভুক্ত ৫জনসহ ১৬৪ ধারায় জবানবন্দী আলোকে মোট ৮জনকে অভিযুক্ত করে চার্জর্সীট আদালতে দাখিল করি । আর আসামী সুমন খান ও মোস্তফা খান কালু এজহারনামীয় আসামী । বাদী নিজে তাদের নাম এজহারে দিয়েছে ।সেই ১৬১ ধারায় জবানবন্দী ও স্থানীয় স্বাক্ষ্য প্রমানের ভিত্তিতে এই মামলায় চার্জসীট দাখিল করেছি । এখন আদালতেই মামলা চলবে । মামলার তদন্ত নিয়ে প্রশ্ন করার সুযোগ নেই । আইন মোতাবেক তদন্ত করেছি । এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন,আসামী পক্ষ সবসময়ই তদন্তকারী কর্মকর্তার প্রতি অসন্তোষ থাকে ।তাই নানা মিথ্যা ভিত্তিহীন অভিযোগ তুলে ।

এদিকে জানা গেছে, মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা চাঁদপুর মডেল থানার এসআই রাশেদুজ্জামান একজন দক্ষ পুলিশ অফিসার । তিনি মামলার তদন্তে, মাদক নিমূল ও ওয়ারেন্ট আসামী গ্রেফতারে ব্যাপক সাফল্যতা অর্জন করেছে ।

উল্লেখ্য গত ১৮ মে রাতে চাঁদপুর সদর উপজেলার ৪নং শাহমাহমুদপুর ইউনিয়নের কুমারডুগী নিবাসী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাবেক সহ-সভাপতি আজিজুর রহমান খান ভুট্রোকে গলায় দেশীয় অস্ত্র চালিয়ে শ্বাসরুদ্ব করে হত্যা করে ।

 

একই রকম খবর