গণমাধ্যম বিএনপিকে ধরে না রাখলে তাদের খুঁজেও পাওয়া যেত না : মায়া চৌধুরী

ঢাকা অফিস : আওয়ামী লীগের সর্বোচ্চ নীতিনির্ধারনী ফোরাম প্রেসিডিয়াম সদস্য মনোনীত হওয়ায় বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধ নিবেদন করেছেন মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বীর বিক্রম ও এডভোকেট কামরুল ইসলাম।

৮ ফেব্রুয়ারি মঙ্গলবার দুপুরে রাজধানীর ধানমন্ডির-৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে তারা ফুল দিয়ে এ শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। এসময় ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা এবং চাঁদপুরের মতলব উত্তর-দক্ষিণ উপজেলার নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বীরবিক্রম সাংবাদিকদের বলেন, ‘২০ থেকে ৩০ বছর ধরে বিএনপি, খালেদা জিয়া ও ফখরুলের কথাই শুনে আসতেছি। তারা শুধু কথাই বলে। রাজপথে থাকে না। যারা রাজপথে থাকে না, রাজপথে যাদের কর্মী নাই, তাদের জয়লাভের কোনো প্রশ্নই ওঠে না। তারা হলো-না বুঝেই বাঘ, গণমাধ্যম তাদের না ধরে রাখলে কবে যে হারিয়ে যেতো। হারিকেন লাগিয়েও তাদের খুঁজেও পাওয়া যেত না।’

এসময় সবার উদ্দেশ্যে দোয়া চেয়ে মায়া বলেন, ‘অতীতে যেভাবে আপনার সঙ্গে রাজপথে ছিলাম, মৃত্যুর আগ পর্যন্ত জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা কায়েম না করা পর্যন্ত আল্লাহ যেন আমাদের মৃত্যু না দেয়।’

কামরুল ইসলাম বলেন, ‘জাতীয় পর্যায়ের অনেক প্রতিকূলতা মোকাবিলা করে আজ আমরা এ পর্যায়ে এসেছি। বিএনপি বিভিন্ন সময়ে নানা কথা বলেছিল। তারা আমাদের ওপর অনেক মামলা-হামলা করেছিল। কিন্তু বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়তে তাদের বাধা ও ষড়যন্ত্র কাজে লাগেনি।’

প্রসঙ্গত, আওয়ামী লীগের বর্তমান কমিটির কার্যনির্বাহী কমিটির নির্বাহী সদস্য ছিলেন সাবেক মন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া ও এডভোকেট কামরুল ইসলাম। আওয়ামী লীগ সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সোমবার ৭ (ফেব্রুয়ারি) এই দুইজনকে সদস্যপদ থেকে উন্নীত করে দলের সর্বোচ্চ দলীয় ফোরাম প্রেসিডিয়ামে অন্তর্ভূক্ত করেন।

একই রকম খবর