চাঁদপুরে উপহার যাবে বাড়ি প্রোগ্রামের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন

আহম্মদ উল্যাহ ঃ চাঁদপুর জেলা প্রশাসরে উদ্যোগে পরিচালিত “উপহার যাবে বাড়ি” প্রোগামের আনুষ্ঠানিকতা গতকাল শনিবার (৩০ মে) সম্পন্ন হয়েছে। ( তবে জেলা ও উপজেলা প্রশাসনের স্বাভাবিক ত্রাণ কার্যক্রম চলবে)।

শনিবারও ৪৫ টি পরিবারের মধ্যে উপহার বিতরণ করা হয়। এ নিয়ে এ পর্যন্ত এ কার্যক্রমের আওতায় সর্বমোট ৪০০৫ টি

নিম্ন-মধ্যবিত্ত ও মধ্যবিত্ত পরিবারের মাঝে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর উপহার পৌঁছে দেওয়া হয়েছে। বিশেষ করে যারা চক্ষুলজ্জা ও লোক লজ্জার কারণে কারো কাছে হাত পাততে পারেন না, ওই সকল পরিবারগুলোর কাছে এই সংকটকালিন সময়ে খাদ্যসামগ্রী পৌঁছে দেয়াই ছিল এই প্রোগামের মূল উদ্দেশ্য। এই পরিবারগুলোর সম্মানের কথা ভেবে উপহার গ্রহীতা পরিবারের কারো মুখের ছবিও প্রকাশ করিনি। জেলা প্রশাসনের ২ টি হটলাইনে মোট ফোন কল রিসিভ করা হয়েছে মোট ৭১২৯ টি।

তার মধ্যে ৪০০৫ টি পরিবারের মধ্যে ৪০ জন ভলান্টিয়ারের মাধ্যমে বাড়ি বাড়ি খাদ্যসামগ্রী পৌঁছে দেয়া হয়েছে। এছাড়াও উক্ত উপহার ক্রয়, পরিবহণ, ওজন করা, প্যাকেট করা ইত্যাদি কাজে নিয়মিত ৭ জন স্কাউট ও জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তা, কর্মচারীগণ কাজ করেছেন। আনুষ্ঠানিকভাবে এ কার্যক্রমের শেষ দিন হওয়ায় ভলান্টিয়ারদের কাল থেকে লকডাউন শিথিল পরবর্তী সময়ে নিজেদের ও জনসাধারণের জন্য করণীয় সম্পর্কে পরামর্শ প্রদান করা হয়।

বিগত প্রায় আড়াই মাস যে সকল কর্মকর্তা, কর্মচারী ও ভলান্টিয়ারবৃন্দ, স্কাউট সদস্যবৃন্দ ও সাংবাদিকবৃন্দ এ কাজের সাথে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে জড়িত ছিলেন সবাইকে আন্তরিক ধন্যবাদ ও অশেষ কৃতজ্ঞতা জানান চাঁদপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ জামান।

বিশেষ করে জেলা প্রশাসক মো: মাজেদুর রহমান খান স্যারের প্রতি বিশেষ কৃতজ্ঞতা জানিয়ে তিনি বলেন, স্যারের উৎসাহ ও সার্বিক সহযোগিতার ফলে এই প্রোগামটি বাস্তবায়ন সম্ভব হয়েছে। আমরা আশা করি দেশ ও দশের কল্যাণে যে কোন ভালো কাজে জেলা প্রশাসন এভাবেই আপনাদের সর্বদা সহযোগিতা হিসেবে পাশে পাবে। অপরদিকে জানা গেছে,সরকারিভাবে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে ত্রাণের কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে ।

একই রকম খবর