চাঁদপুরে কখন কোথায় ঈদের জামাত

আবদুল গনি : কাল ২১ জুলাই বুধবার পবিত্র ঈদুল আযহা । বৈশ্বিক করোনা পরিস্থিতিতে দেশের কোনো ঈদগাহে ঈদের জামাত হবে না। এর পরিবর্তে বিশেষ ব্যবস্থায় মসজিদেই বা কমিটির সিদ্দান্ত মতে মসজিদ সংলগ্ন ফাঁকা স্থানে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে।

মসজিদ কমিটির সিদ্ধান্ত মতে-নামাজের টাইম-টেবিলও নির্ধারণ করবে বলে ইফা চাঁদপুর জানিয়েছেন।

চাঁদপুরের বিভিন্ন মসজিদে এবার স্বাস্থ্য বিধি মেনে ও নিজকে সম্পূর্ণ সুরক্ষিত অবস্থায় জেলা সদরের মসজিদগুলোতে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে। স্ব-স্ব কমিটির সদস্যগণ সভা করে ঈদের জামাত অনুষ্ঠানের সময় নির্ধারণ করবে। ইতোমধ্যেই কয়েকটি মসজিদের জামাতের সময়সূচি জানা গেছে ।

প্রাপ্ত তথ্যে মতে, কালেক্টরেট জামে মসজিদে সকাল ৭ টায়,বাসস্ট্যান্ড গোর-এ-গরিবা মসজিদে ৭ টায়, চৌধুরী জামে মসজিদে সকাল ৭.৩০ মি,পুলিশ লাইনস জামে মসজিদের জামাত ৭.৩০ মি.ও বাবুরহাট জামে মসজিদে সকাল ৮ টায় জামাত অনুষ্ঠিত হবে।

পুরান বাজার জামে মসজিদে ৭.৩০ মি, পুলিশ লাইন জামে মসজিদ সকাল ৭.৩০ টায়, বায়তুল আমিনে ৭.৩০ মি,বেগম মসজিদে সকাল ৭.৩০ মি. চেয়ারম্যান ঘাটা জামে মসজিদে সকাল ৭ টায়, চাঁদপুর সরকারি কলেজ মসজিদে সকাল ৮ টায়, চিশতিয়া জামে মসজিদে প্রথম জামাত ৮ টায় ও ২য় জামাত সকাল ৮.৪৫ মি.ও কোড়ালিয়া কিতাব উদ্দিস জামে মসজিদে ৭.৩০ মি.হবে।

মসুল্রিগণ প্রথমেই স্প্রে’র মাধ্যমে মসজিদের ভেতরে প্রবেশ করা,সাবান দিয়ে হাত ধৌত বা ওজু করে মসজিদে প্রবেশ করার ব্যবস্থা,সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে কাতারবন্দি হওয়া ও বাধ্যতামূলক মাক্স ব্যবহার

করে মসজিদে প্রবেশ করার নির্দেশনা রয়েছে ।

ঐতিহাসিক হাজীগঞ্জ বড় জামে মসজিদে ৩টি জামাত হচ্ছে

চাঁদপুর জেলার সর্ববৃহৎ,প্রাচীন ও ঐতিহাসিক হাজীগঞ্জ বড় জামে মসজিদে এবার বিশেষ ব্যবস্থায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঈদুল আযহার ৩টি জামাত অনুষ্ঠিত হবে।
এতে নেয়া হয়েছে ধর্ম মন্ত্রণালয়ের নিদের্শিত বিশেষ ব্যবস্থাসমূহ ।

ঈদু ঐতিহাসিক হাজীগঞ্জ বড় জামে মসজিদেল ফিতরের নামাজ আদায়ে প্রয়োজনীয় সব রকম ব্যবস্থা গ্রহণের সিদ্ধান্ত নিয়েছে মসজিদ কমিটি। প্রথমটি হবে সকাল সাড়ে ৬ টায়,দ্বিতীয়টি হবে সকাল ৮ টায় এবং তৃতীয় জামাত অনুষ্ঠিত হবে বেলা ১০ টায় ।

তা’ছাড়াও বিশেষ ট্রাফিক ব্যবস্থা, আইন-শৃংখলা রক্ষায় থানা পুলিশ ও স্বেচ্ছাসেবক থাকবে ।

চাঁদপুরের ঐতিহাসিক হাজীগঞ্জ বড় জামে মসজিদে বিশেষ ব্যবস্থাগ্রহণ সম্পর্কে মসজিদ ব্যবস্থাপনা কমিটির পক্ষে জানানো হয়,ধর্ম- মন্ত্রণালয়ের নির্দেশিত বর্তমান বৈশ্বিক করোনা সংকটের কারণে মাস্ক পরে ও স্বাস্খ্য সুরক্ষার বিধি মেনে মুসল্লিদের নামাজ আদায়ের ব্যবস্থা থাকবে ।

 

একই রকম খবর