চাঁদপুরে করোনায় আক্রান্ত কমছে, নতুন করে শনাক্ত ৮ : সুস্থ্য ১১৭০

চাঁদপুর জেলায় করোনায় আক্রান্ত সংখ্যা কমছে। গত কয়েকদিন শনাক্তের সংখ্যা ১৩ ও ১৪ এর মধ্যে রয়েছে। নতুন করে জেলায় করোনা ভাইরাস শনাক্ত হয়েছে ৮জনের। জেলায় বর্তমানে করোনায় শনাক্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৮৫৩জন। এ পর্যন্ত ৭৫জন। আজকে পর্যন্ত সুস্থ্য হয়েছেন ১১৭০জন। রিপোর্ট অপেক্ষমান আছে ৩৪টি।

রোববার (২ আগস্ট) রাতে চাঁদপুর সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্রে জানাগেছে, আজকে প্রাপ্ত রিপোর্ট সংখ্যা হচ্ছে ১৫টি। এর মধ্যে পজিটিভ ৮টি এবং নেগেটিভ ৭টি। পজিটিভ ৮টির মধ্যে চাঁদপুর সদরে ৬ ও হাজীগঞ্জে ২জন।

সিভিল সার্জন কার্যালয়ের করোনা আপডেট দৈনিক প্রতিবেদন সূত্রে জানাগেছে, এ পর্যন্ত জেলায় করোনার নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয় ৬৭৫৩টি। এর মধ্যে রিপোর্ট এসেছে ৬৭১৯টি। এর মধ্যে পজিটিভ ১৮৩৪টি। নেগেটিভ ৪৮৮৫টি। অপেক্ষমান রিপোর্ট ৩৪টি। এ পর্যন্ত জেলায় করোনায় আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ১৮৫৩জন।

আক্রান্ত রোগীর মধ্যে চাঁদপুর সদরে ৭২৯জন, হাইমচরে ১২৭জন, মতলব উত্তর ১৪৪জন, মতলব দক্ষিণ ১৯৯জন, ফরিদগঞ্জে ২১০, হাজীগঞ্জে ১৮১জন, কচুয়া ৭৮জন ও শাহরাস্তিতে ১৮৫জন।

আজকে পর্যন্ত জেলায় করোনায় আক্রান্তের পর সুস্থ্য হয়েছেন ১১৭০জন। আজকে সুস্থ্য হয়েছেন ১৩ জন। এর মধ্যে চাঁদপুর সদরে ৬, মতলব দক্ষিণে ৩ ও মতলব উত্তরে ৪জন।

এ পর্যন্ত জেলায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেছেন ৭৫জন। এর মধ্যে অনেকের মৃত্যুর পর রিপোর্ট পজিটিভ আসে। উপজেলা ভিত্তিক মৃত্যুর সংখ্যা হচ্ছে- চাঁদপুর সদরে ২১, ফরিদগঞ্জে ১০, হাজীগঞ্জে ১৭, শাহরাস্তি ৭, কচুয়া উপজেলায় ৬, মতলব উত্তরে ১০ জন, মতলব দক্ষিণে ৩ ও হাইমচরে ১ জন।

চাঁদপুরের সিভিল সার্জন ডাঃ মো. সাখাওয়াত উল্লাহ লিখিত প্রতিবেদনে জানান, এ পর্যন্ত জেলায় চিকিৎসাধীন রোগী সংখ্যা ৬০৮। এর মধ্যে হাসপাতালে ১৯, ঢাকায় রেফার ৬ ও হোম আইসোলেশনে ৫৮৩জন। এ পর্যন্ত আইসোলেশনে রোগীর সংখ্যা ৬২৭। আইসোলেশন থেকে ছাড়প্রাপ্ত রোগীর সংখ্যা ৬০২। বর্তমানে আইসোলেশনে রোগীর সংখ্যা ২৫জন। এর মধ্যে কোভিড ১৯জন, নন কোভিড ৬জন।

তিনি আরো জানান, জেলায় এ পর্যন্ত হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা ব্যাক্তির সংখ্যা ১০৬৭৩। হোম কোয়ারেন্টাইন থেকে ছাড়প্রাপ্ত ব্যাক্তির সংখ্যা ৭৯৫৫। বর্তমানে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা ব্যাক্তির সংখ্যা ২৭১৮জন।

একই রকম খবর