চাঁদপুরে করোনায় মাঠে তৎপর ডিসি-এসপি

বিশেষ প্রতিনিধি : ঈদুল আজহার পরবর্তী বিধি-নিষেধের কঠোর লকডাউন বাস্তবায়নে বসে নেই চাঁদপুর জেলার উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা। মাঠে নেমেছেন চাঁদপুরের ডিসি-এসপি। গত ২৪ ঘন্টায় ২২৯ জনের করোনা সনাক্ত হয়েছে। আইসলোশেন ইউনিটে করোনায় আক্রান্ত হয়ে ৩জন ও উপসর্গ নিয়ে ২জনসহ ৫জন মৃত্যুবরণ করেছেন। সংক্রমণ পরিস্থিতি এখনই সামাল দিতে না পারলে পরবর্তীতে নিয়ন্ত্রণের বাহিরে চলে যাবে। জেলা সদরের আড়াইশ’ শয্যা হাসপাতালে বর্তমানে করোনা রোগী আছে ১৬১জন। বেড না থাকায় হাসপাতালের মেঝেতেই চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে করোনা রোগীদের।

মঙ্গলবার (২৭ জুলাই) সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত শহরের গুরুত্বপূর্ণ স্থান পরিদর্শনে নামেন জেলা প্রশাসক (ডিসি) অঞ্জনা খান মজলিশ ও পুলিশ সুপার (এসপি) মো. মিলন মাহমুদ পিপিএম (বার)।

জেলা প্রশাসক বলেন, এসপিসহ লকডাউন পরিস্থিতি দেখার জন্য বিভিন্ন রাস্তা ও গুরুত্বপূর্ণ এলাকা পরিদর্শন করা হয়েছে। এসময় পথচারীদেরকে ঘরে থাকার জন্য বোঝানোর চেষ্টা করা হয়। বিনা প্রয়োজনে মোটরসাইকেল নিয়ে বের হওয়া আরোহীদের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে এবং কিছু যানবাহন আটক করা হয়। চিকিৎসার জন্য, রোগী পরিবহনে, টীকা গ্রহনকারীদের ও প্রয়োজনে বের হওয়া জনসাধারণকে সহযোগিতা করা হচ্ছে।

সিভিল সার্জন ডাঃ মো. সাখাওয়াত উল্যাহ জানিয়েছেন, চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালের আইসোলেশন ইউনিটে করোনা রোগীদের জায়গা দিতে না পেরে হাসপাতালের ৩টি ফ্লোরই প্রস্তুত করা হয়েছে। চিকিৎসা চলছে। তবে চিকিৎসক ও নার্স সংকটে খুবই হিমশিম খেতে হচ্ছে। অবস্থাই খুবই খারাপের দিকে যাচ্ছে। প্রতিদিন গড়ে দেড় শতাধিক ব্যাক্তির করোনা সনাক্ত হচ্ছে। করোনায় আক্রান্ত হয়ে এই পর্যন্ত মৃত্যুবরণ করেছেন ১৬১জন।

একই রকম খবর