চাঁদপুরে গুজব প্রতিরোধে জনপ্রতিনিধিদের সাথে জেলা পুলিশের মতবিনিময়

গাজী মো. ইমাম হোসেন : চাঁদপুর পুলিশ সুপার জিহাদুল কবির পিপিএম, বিপিএম বলেছেন, পদ্মাসেতু নির্মাণে মানুষের রক্ত এবং মাথা লাগবে এমন একটি ভ্রান্ত ধারনা ও গুজবের ভিত্তিতে সারাদেশে একটি অস্থিতিশীল অবস্থা তৈরী হয়েছে। এই গুজবের কোন ভিত্তি নেই। এটি সচেতন মহল জানেন। গুজব প্রতিরোধে কাজ করছে জেলা পুলিশ । গুজব প্রচারনাকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনী ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে । চাঁদপুরে ইতোমধ্যে ৪টি ঘটনা ধরা পড়েছে। ৪টি ঘটনায় পুলিশ মামলা নিয়েছে। এর মধ্যে ৩টি মানসিক রোগী এবং একটি মধু সংগ্রহ করতে আসা ব্যাক্তি। যাদেরকে ছেলে ধরা সন্দেহে পিটুনি দিয়ে আহত করে। এসব ঘটনায় জড়িত সন্দেহে ১০জনকে আটক করা হয়েছে।

বুধবার (২৪ জুলাই) বিকাল ৪টায় চাঁদপুর পুলিশ সুপার কার্যালয়ে স্থানীয় সরকারের জন প্রতিনিধি ও জেলা সদরে কর্মরত স্থানীয় ও জাতীয় গণমাধ্যমের সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়কালে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, আগামী এক সপ্তাহ সারাদেশের ন্যায় চাঁদপুরেও পুলিশ গুজব প্রতিরোধ সপ্তাহ পালন করবো। এ সময়ে সমাজের সব শ্রেণি পেশার মানুষদের সাথে নিয়ে প্রিয় দেশটাকে কুচক্রি মহলে কুচক্র প্রতিহত করার জন্য আমরা সবাই কাজ করবো। আমরা জানি একটি কুচক্র মহল গুজব ছড়িয়ে দেশে অস্থিতিশীলতা সৃষ্টি করে অনেক মানুষের প্রাণ হানির ঘটনা ঘটিয়েছে। তারাই এখন আবার সেই কাজ করে অস্থিতিশীল অবস্থা তৈরী করছে। এই ধরনের একটি সংবাদ প্রথমে দুবাই থেকে একটি অনলাইনে প্রকাশ হয়। এরপর এটি ভাইরাল হতে শুরু করে। এরপর দেশে যতগুলো এই ধরনের ঘটনা ঘটেছে, প্রত্যেকটি গুজবের ভিত্তিতে ঘটেছে। এসব ঘটনার মূল কোন ভিত্তি নেই। প্রতি উপজেলায় থানার পুলিশের উদ্যোগে মাইকিং করা হচ্ছে ।

তিনি সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে বলেন, এই ধরনের যত ঘটনা ঘটবে, আপনারা মূল ঘটনাটি তুলে ধরবেন। এমন কোন ঘটনা প্রকাশ করবেন না, যে ঘটনা বিভ্রান্তি ছড়ায়।

এছাড়া, এ গুজব ছড়িয়ে দেশে অস্থিতিশীলতা তৈরী করা রাষ্ট্র বিরোধী কাজের সামিল এবং গণপিটুনি দেয়া ফৌজদারী অপরাধ। তাই এই কাজগুলো যেন কেউ না করতে পারে সেদিকে খেয়াল রাখতে পুলিশ সুপার মহোদয় অনুরোধ করেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (এসপি হেড কোয়াটার) মো. আসাদুজ্জামান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মো. জাহেদ পারভেজ চৌধুরী, চাঁদপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. নাসিম উদ্দিন, পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) হারুনুর রশিদ, চাঁদপুর প্রেসক্লাব সভাপতি শহীদ পাটওয়ারী, সাধারণ সম্পাদক লক্ষ্মণ চন্দ্র সূত্রধরসহ বিভিন্ন পর্যায়ের সাংবাদিকবৃন্দ।

এসময় স্থানীয় সরকারের জনপ্রতিনিধিদের মধ্য উপস্থিত ছিলেন, চাঁদপুর সরদ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. নুরুল ইসলাম নাজিম দেওয়ান, ভাইস চেয়ারম্যান আইয়ুব আলী বেপারী, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আবিদা সুলতানা, মৈশাদী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ

মনিরুজ্জামান মানিক, শাহমাহমুদপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান স্বপন মাহমুদ, রামপুর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আল-মামুন পাটওয়ারী, হানারচর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সাত্তার ঢ়াড়ী।

একই রকম খবর