চাঁদপুরে বিএমটিসিএম এর আলোচনা সভা

স্টাফ রিপোর্টার : বাংলাদেশ মাদরাসা শিক্ষক সমন্বয় আন্দোলন (বিএমটিসিএম) চাঁদপুর জেলা শাখার উদ্যোগে “আলিয়া মাদরাসার স্বতন্ত্র-স্বকীয়তা ও শিক্ষকদের পেশাগত মান উন্নয়নে” শীর্ষক আলোচনা সভা গতকাল বৃহস্পতিবার (১৮ আগস্ট) চাঁদপুর এলিট চাইনিজ রেস্টুরেন্টে অনুষ্ঠিত হয়েছে।

আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আরবী বিভাগের চেয়ারম্যান প্রফেসর ডক্টর মো: আব্দুল কাদির।

তিনি বলেন, আপনাদের দাবিগুলি যুক্তিক। আগামী দিনে আলিয়া মাদ্রাসার অস্থিত্ব রক্ষার বিএমটিসিএম এর দাবিগুলি বাস্তবায়ন করা দরকার। আলিয়া মাদরাসার অস্থিত্ব রক্ষায় মরহুম মাও. আব্দুল মান্নান জমিয়াতুল মুদার্রেছীন বাংলাদেশের আলিয়া মাদরাসাসমূহের শিক্ষকগণের একটি অরাজনৈতিক সংগঠন তৈরী করে গেছেন। এমন আরো কয়েকটি সংগঠন হলেও সমস্যা নাই। কারণ সংগঠন বেশী হলে সরকারের কাছ থেকে দাবিগুলি সহজে আদায় করা যায়। কারণ একাধিক সংগঠন থাকলে যে বিষয়গুলি বাকি থাকে ওই বিষয়গুলি কারো না কারো চোখে পরে।

তিনি বলেন, আজ আলিয়া মাদরাসার ছাত্ররা বিশ্ববিদ্যালয়ের দিকে দাবিত হচ্ছে। আলিয়া মাদরাসার মেধা বিশ্ববিদ্যালয়ের দিকে চলে যাচ্ছে। আমাদের সন্তানদেরকে মাদরাসায় শিক্ষায় শিক্ষিত করে ভালো আলেম তৈরী করে আলিয়ার খেদমতে লাগাতে হবে। আজ আমাদের সন্তানরা সকালে ভোরে কিন্ডারগার্টেন স্কুলে চলে যায়। মাদরাসার সেই মুক্তব গুলি ধ্বংস করে দিচ্ছে। যার কারণে মাদরাসার শিক্ষা বিলিন হয়ে যাচ্ছে। আজ প্রাথমিক বিদ্যালয়ে টাকা ও খাবার দিচ্ছে। কিন্তু মাদরাসার ছাত্ররা তা পাচ্ছে না। তাই ইবতেদায়ী (প্রাথমিকে)ও মাদরাসার ছাত্ররা ভর্তি হচ্ছে না। এ জন্য আমাদের প্রচেষ্টা থাকবে আলিয়া মাদ্রাসার অস্থিত্ব রক্ষার ছাত্রদেরকে যৌগ্য করে গড়ে তোলা।

বিএমটিসিএম এর জেলা সেক্রেটারী মাওলানা জিল্লুর রহমানের সঞ্চালনায় ও কেন্দ্রিয় চেয়ারম্যান আল্লামা মাহফুজ উল্যাহ খান ইউসুফীর সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, চাঁদপুর মেডিকেল কলেজের সহকারী অধ্যাপক ডা. সাইফুল ইসলাম সোহেল।

এসময় আরো বক্তব্য রাখেন, কেন্দ্রিয় সেক্রেটারী জেনারেল আলহাজ্ব মাও. সালাউদ্দিন চাঁদপুরী, ঢাকা বিভাগিয় কমিটির আহ্বায়ক মাওলানা নূর মোহাম্মদ জুনায়েদ, সেক্রেটারী ফাহিমুর রহমান।

এছাড়া আরো বক্তব্য রাখেন, অনুষ্ঠান বাস্তবায়ন কমিটির আহ্বায়ক আ.ন.ম ফখরুল ইসলাম মাসুম ও সদস্য সচিব এ.জে.কে মুজ্জাম্মেল হোসাইন। স্বাগত বক্তব্য রাখেন, কেন্দ্রিয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও জেলা সভাপতি মাওলানা ড. মোশাররফ হোসাইন।

এসময় বক্তারা বলেন, জনবল কাঠামো ২০১৮ (মাদ্রাসা) সৃষ্টপদ সমুহে শিক্ষক নিয়োগের লক্ষ্যে স্কুল ও কলেজের ন্যায় প্রজ্ঞাপন জারি করা। প্রভাষকদের চাকরির মেয়াদ ১০বছর পূর্তিতে বেতন কোড ৭ এ টাইমস্কেল প্রদান করা। প্রভাষকদের চাকরির মেয়াদ ১৬ বছর পূর্তিতে বেতন কোড-৬ এ দ্বিতীয় টাইম স্কেল প্রদান করা। সহকারী অধ্যাপক এর ক্ষেত্রে ৫:২ সমীকরণ বাতিল করা।

সহযোগী অধ্যাপক পদে পদোন্নতির ক্ষেত্রে ৫:২ সমীকরণ চালু করা। আলিম মাদ্রাসার অধ্যক্ষ ও উপাধ্যক্ষ নিয়োগে সুপার ও সহ-সুপারদের অভিজ্ঞতা বাতিল করা। জনবল কাঠামো ও এমপিও নীতিমালা ২০১৮ (মাদ্রাসা) বর্নিত সকল সুবিধা প্রয়োাজনীয় সংশোধনসহ চালু করা। বেসরকারি শিক্ষক বদলি সুবিধা চালু করা। মাদ্রাসার আরবি বিষয়ে শিক্ষকদের যুগোপযোগী প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা। বিএমটিটিআই এর আঞ্চলিক প্রশিক্ষণ কেন্দ্র স্থাপন করা। সরকারি কলেজ প্রভাষকদের ন্যায় মাদ্রাসা প্রভাষকদের উচ্চতর ডিগ্রির যথাযথ মূল্যায়ন করা জরুরী।

আলোচনা সভায় নেতৃবৃন্দ দাবি করেন, বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান মাদ্রাসা জনবল কাঠামো ও এমপিও নীতিমালা ২০১৮ তে মাদ্রাসার আরবী প্রভাষকদেরকে ব্যাপকভাবে কোণঠাসা করা হয়েছে। তাদের চাকরি জীবনের অভিজ্ঞতা ও দক্ষতাকে ব্যাপকভাবে অবমূল্যায়ন করার পথ খোলা হয়েছে। আগামী দিনে আলিয়া মাদ্রাসার অস্থিত্ব রক্ষার প্রশ্নে আরবি প্রভাষকদেরকে অবমূল্যায়ন প্রতিরোধ করে নীতিমালা সংশোধন করার দাবি জানান তারা।

পবিত্র কুরআন তেলাওয়াতের মাধ্যমে অনুষ্ঠান শুরু করা হয়। শেষে বাংলাদেশ মাদরাসা শিক্ষক সমন্বয় আন্দোলন (বিএমটিসিএম) চাঁদপুর জেলা শাখার সভাপতি ও কেন্দ্রিয় সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা মোশাররফ হোসাইন এমফিল ডিগ্রি অর্জন করায় ক্রেস্ট দিয়ে সংবর্ধণা প্রদান করেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আরবী বিভাগের চেয়ারম্যান প্রফেসর ডক্টর মো: আব্দুল কাদির।

একই রকম খবর