চাঁদপুরে সদরে বিনামূল্যে প্রান্তিক কৃষকের মাঝে ধানের বীজ বিতরণ

স্টাফ রিপোটার : বাংলাদেশের প্রান্তিক কৃষকের ধান চাষে ফলন বৃদ্ধি করতে বায়ার ফর বাংলাদেশ একটি প্রচেষ্টা” এই স্লোগানকে সামনে রেখে বৈশ্বিক মমহামারী করোনা ভাইরাসের কারণে খাদ্য সংকট মোকাবেলায় বায়ার ক্রপসায়েন্স লিমিটেডের উদ্যোগে বিনামূল্যে চাঁদপুর সদরে ১৩৩ জন প্রান্তিক কৃষকের মাঝে ৩ কেজি করে উচ্চ ফলনশীল হাইব্রিড ৭০০৬ জাতের ধানের বীজ বিতরণ করা হয়েছে।

গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় বায়ার ফর বাংলাদেশ লিমিটেড এর আয়োজনে ও সদর উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের সার্বিক সহযোগিতায় উপজেলার ১১নং বালিয়া ইউনিয়ন পরিষদে বিনামূল্যে প্রত্যেকের হাতে ৩ কেজি পরিমাণ এসব ধানের বীজের প্যাকেট বিতরণ করা হয়।

চাঁদপুর সদর উপজেলার উপ সহকারি কৃষি কর্মকর্তা ফারুক আহমেদ খানের সভাপতিত্বে ও বায়ের ক্রপসায়েন্সের ফিল্ড এ্যাসোসিয়েট কর্মকর্তা শাকিল মিয়াজির সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত হয়ে ধানের বীজ বিতরণ করেন ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ তাজুল ইসলাম।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন বায়ার ক্রপ সায়েন্স লিমিটেডের টেরিটরি এক্সিকিউটিব কর্মকর্তা মোঃ রায়হান উল্লাহ, বায়ার ক্রপসায়েন্স লিমিটেডের চাঁদপুরের ডিলার জহিরুল ইসলাম খান, স্থানীয় কীটনাশক ব্যবসায়ী হাজী মোঃ আব্দুল হাই প্রমূখ।

এই সময় ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ তাজুল ইসলাম কৃষকের উদ্দ্যেশে বলেন করোনা ভাইরাসের কারনে যেন, দেশে কোন ধরনের খাদ্য সংকট দেখা না দেয়, সেই লক্ষ্যে উন্নতমানের হাইব্রিড জাতের ধান চাষাবাদের কৃষকের আগ্রহ বাড়াতে হবে, সেজন্যই উচ্চ ফলনশীল হাইব্রিড ধান উৎপাদন বৃদ্ধি করতে বায়ার সাইন্স লিমিটেড বাংলাদেশের পক্ষ থেকে এই বীজ বিনামূল্যে আপনাদের দেওয়া হচ্ছে। এই বীজ আপনারা বাহিরে বিক্রি না করে যত্ন সহকারে চাষাবাদ করবেন।

এসময় বায়ার ক্রপ সায়েন্স লিমিটেড টেরিটরি এক্সিকিউটিব কর্মকর্তা মোঃ রায়হান উল্লাহ

বলেন দেশে আমন ধান বেশি পরিমাণ জমিতে আবাদ হলে বোরো ধানের চেয়ে উৎপাদন অনেক কম হয়। এর কারন আমনে কম উৎপাদনশীল দেশি জাতের ধানের চাষ বেশি হয়।

এই কারণে উৎপাদন বাড়াতে হলে মানসম্পন্ন বীজের চারা আবাদ করতে হবে। এই ক্ষেত্রে আমি মনে করি বায়ার এর উচ্চফলনশীল হাইব্রিড অ্যারাইজ এজেড ৭০০৬ জাতের বীজ চাষাবাদে অনেক ভালো ফলন হবে। এই জাতের ধানের বিঘা প্রতি ফলন হবে ২২ থেকে ২৫ মন।

একই রকম খবর