চাঁদপুরে সুমন হত্যায় জড়িতদের দ্রুত বিচারের দাবিতে মানব বন্ধন

গাজী মোঃ ইমাম হাসানঃ চাঁদপুরে দুর্বৃত্তের হাতে নিহত লঞ্চযাত্রী সুমন গাজীর হত্যার সাথে জড়িতদের ফাঁসি ও বিচারের দাবিতে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনে সড়ক অবরোধ মানববন্ধন করেছে নিহতের স্বজনসহ এলাকাবাসীরা।

১৪ ডিসেম্বর বুধবার বিকালে নিহত সুমন গাজীর মরদেহ নিয়ে চাঁদপুর -কুমিল্লা আঞ্চলিক
মহাসড়কের চেয়ারম্যান ঘাট এলাকায় ৩০ মিনিট ধরে প্রায় শতাধিক এলাকাবাসী ও স্বজনরা এই মানববন্ধনে অংশ নেয়।এসময় তারা সড়ক অবরোধ করে সুমন হত্যার সাথে জড়িতদের দ্রুত ফাঁসি কার্যকর করার জন্য দাবি জানায়।

পুলিশ জানায়, মঙ্গলবার রাত পৌনে ৮টার দিকে ঢাকা থেকে এমভি সোনার তরী-৩ লঞ্চযোগে চাঁদপুরের উদ্দেশে রওনা হয় সুমন গাজী। পথিমধ্যে লঞ্চটি চাঁদপুরের কাছাকাছি এলে অপর লঞ্চযাত্রী বাবুর সঙ্গে সিটে বসা নিয়ে বাকবিতণ্ডা হয়। একপর্যায়ে ক্ষুব্ধ বাবু লঞ্চযাত্রী সুমনকে হুমকি দেন। লঞ্চটি রাত সোয়া ১১টার দিকে চাঁদপুর ঘাটে পৌঁছালে বাবু ও তাঁর বন্ধুরা মিলে সুমনের ওপর চড়াও হয়।

এ সময় তারা সুমনকে মারধর ও ছুরিকাঘাত করে। তাঁর কাছে থাকা নগদ টাকা ও মোবাইলসহ অন্যান্য জিনিসপত্র ছিনিয়ে নেওয়ার ঘটনা ঘটে। পরে সুমনকে চাঁদপুর সদর হাসপাতালে নেওয়া হলে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বুধবার ভোরে মারা যান।

নিহত সুমনের মেঝোভাই শরিফ গাজী ও চাচাতো ভাই মিজান বলেন, ‘তিন ভাই ও এক বোনের মধ্যে সবার বড় ছিলেন সুমন। যারা আমাদের ভাইকে হত্যা করেছে, আমরা তাদের ফাঁসি চাই।’

হাসপাতালের দায়িত্বরত চিকিৎসক ডা. সাইফুল ইসলাম বলেন, ‘সুমনকে গুরুতর আহত অবস্থায় হাসপাতালে আনা হয়েছিল। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, বুকে আঘাতের কারণে তাঁর মৃত্যু হয়েছে।

নিহত সুমন গাজীর জানাযার নামাজ বাদ মাগরিব তরপুরচন্ডী জি এম ফজলুল হক উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে অনুষ্ঠিত হয়।পরে পারিবারিক কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়।তার এই মৃত্যুতে এলাকাবাসী জড়িতদের দ্রুত শাস্তি কার্যকরের দাবি জানায়।

একই রকম খবর