চাঁদপুর জেলা আইন শৃঙ্খলা কমিটির সভা

চাঁদপুর খবর রির্পোট: চাঁদপুরের জেলা প্রশাসক কামরুল হাসান বলেছেন, জেলার বেশ কিছু জায়গায় যানজট থাকে। যেখানে সাধারণ মানুষের সমস্যা হয়। এ যানজট নিরসনে আমরা কাজ করছি। যানজট নিরসনে সকলকে সচেতন থাকতে হবে।

রবিবার (১১ ডিসেম্বর) সকালে চাঁদপুর জেলা প্রশাসক সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত জেলা আইন শৃঙ্খলা কমিটির সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি গ্রাম আদালতের বিষয়ে বলেন, কোর্টে এসে মামলা করা থেকে গ্রাম আদালতের মাধ্যমে নিষ্পত্তি করা গেলে মামলার চাপ অনেকটাই কমে যায়। এছাড়া কোর্টে এসে মামলা করতে গেলে অনেক সময় অনেকগুলো মামলায় জড়াতে হয়।

পাসপোর্ট অফিস সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে তিনি বলেন, পাসপোর্ট অফিসে গ্রাহক যারা আসে তাদের সাথে ভালো ব্যবহার করতে হবে। কেউ যেন হয়রানির শিকার না হয়। গ্রাহক সেবা নিতে এসে যখন ভালো ব্যবহার পায় তখন তাদের কাছে ভালো লাগে।

ডিসি বলেন, নদীতে মাছ ধরার ফাঁদ রিং চাই আমাদের জন্যে খুব ক্ষতিকর। এগুলো দিয়ে যেন মাছ আহরণ না হয়, এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্টরা যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।

কামরুল হাসান বলেন, একজন মানুষ অপরাধ করেছে, তার জরিমানা হয়েছে, তারপর সে সাধারণ জীবনযাপন করবে। জরিমানা দেয়া মানে তাকে সচেতন করা সংশোধিত হওয়ার সুযোগ দেয়।

তিনি বলেন, বালু উত্তোলনের বিষয়ে প্রচুর অভিযান করছি এবং এটি বন্ধ করার চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। বালু উত্তোলন বিষয়ে যারাই যেখান থেকে আমাদের সংবাদ দিচ্ছেন, তাৎক্ষনিক আমরা ব্যবস্থা গ্রহণ করছি। সম্মিলিত প্রচেষ্টায় আমরা জেলার আইনশৃঙ্খলা ব্যবস্থাপনা আরো ভাল রাখার চেষ্টা করব।
বক্তব্য রাখেন পুলিশ সুপার মো. মিলন মাহমুদ বিপিএম (বার)।

তিনি বলেন, যাত্রী হয়রানির অভিযোগ দিলে আমরা অবশ্যই ব্যবস্থা গ্রহণ করব। হাজীগঞ্জ যানজটের ব্যাপারে আমাদের ট্রাফিক জনবল দেয়া আছে। কিছু কিছু লোক রয়েছে যে তাদের স্বভাবই খারাপ কাজ করা। তাদের কাছ থেকে ভালো কাজ আশাকরা অন্যরকম। আমরা তাদের ব্যাপারেও ব্যবস্থা গ্রহণ করবো। যেসব সমস্যা আমাদের সমাধান করা সম্ভব, তা আমরা করছি।

অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট (এডিএম) এএসএম মোসা এর সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন নৌ-পুলিশ চাঁদপুর অঞ্চলের এসপি মো. কামরুজ্জামান, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব নাছির উদ্দিন আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু নঈম পাটওয়ারী দুলাল, সিভিল সার্জন ডা. মোহাম্মদ সাহাদাৎ হোসেন, প্রেসক্লাবের সভাপতি গিয়াস উদ্দিন মিলন।

এছাড়াও আরো বক্তব্য রাখেন হাজীগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান গাজী মো. মাইনুদ্দিন, জেলা জর্জ কোর্টের পিপি অ্যাড. রনজিত রায় চৌধুরী, জেলা মৎস কর্মকর্তা মো. গোলাম মেহেদী হাসান, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের সহকারি পরিচালক এমদাদুল ইসলাম মিঠুন, আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসের সহকারি পরিচালক মো. শরিফুল, বিআরটিএ এর সহকারি পরিচালক মো. আফজাল প্রমূখ।

সভায় জেলা আইনশৃঙ্খলা কমিটির সদস্যসহ সরকারি বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা ও প্রতিনিধিগণ উপস্থিত ছিলেন।

একই রকম খবর