চাঁদপুর জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি ও চাঁদপুর পৌরসভার মেয়রের বিবৃতি

গত ক’দিন ধরে চাঁদপুরের স্থানীয় দৈনিকসহ বিভিন্ন গণমাধ্যমে আগামী ১০ অক্টোবর অনুষ্ঠিতব্য চাঁদপুর পৌরসভার নির্বাচন স্থগিত করার ব্যাপারে হাইকোর্টে একটি রীট নিয়ে প্রকাশিত সংবাদ সমূহ বর্তমান মেয়র ও জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি আলহাজ¦ নাছির উদ্দিন আহমেদের দৃষ্টিগোচর হয়েছে।

এতে জনমনে সৃষ্ট বিভ্রান্তি নিরসনে ব্যাখ্যামূলক বিবৃতি প্রদান জরুরি বলে তিনি প্রয়োজনীয়তা অনুভব করেছেন। সেজন্যে গতকাল প্রদত্ত এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, অতীতে ও বর্তমানে চাঁদপুর পৌরসভার নির্বাচন স্থগিত ও প্রলম্বিত করার ব্যাপারে কক্ষণো আমার কোনো হস্তক্ষেপ ছিলো না এবং কোনো মামলা-মোকদ্দমার সাথে আমার সংশ্লিষ্টতা নেই। যেহেতু হাইকোর্টে সাম্প্রতিক রীটকারীরা আমার ঘনিষ্ঠজন, সেজন্যে বিভ্রান্তি সৃষ্টি হয়েছে। আমি তাদেরকে দিয়ে রীট করানোর তো কোনো প্রশ্নই উঠে না, কেননা চাঁদপুর পৌরসভার মেয়র পদে মনোনয়নের বিষয়টি দলের সভানেত্রীর সিদ্ধান্তে হয়েছে।

তিনি যেটি ভালো মনে করেছেন সেটিকে মেনে নিয়ে জেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে মনোনয়ন-উত্তর সভা করেছি এবং এক ও ঐক্যবদ্ধ থেকে দলের প্রতীক নৌকা নিয়ে মনোনীত প্রার্থীর পক্ষে কাজ করার জন্যে বলেছি। তারপরও উক্ত রীট নিয়ে উদ্ভূত পরিস্থিতিতে আমি বিব্রত হয়েছি। সত্যি কথা বলতে কি, এই রীটের বিষয়টি আমি মোটেও অবহিত ছিলাম না। তাই আমি রীট আবেদনকারীদের ডেকে এনে তীব্র ভর্ৎসনা করেছি এবং রীট প্রত্যাহারের জন্যে নির্দেশ দিয়েছি।

তারা এতে সম্মত হয়েছে। আশা করি চাঁদপুর পৌরসভার আসন্ন নির্বাচন নিয়ে আর কোনো সংশয় থাকবে না। এটি নিয়ে কোনো পক্ষ যেনো আর উত্তেজনা সৃষ্টিতে কোনো ধরনের ভূমিকায় অবতীর্ণ না হন এবং সবাই ঐক্যবদ্ধ থেকে যেন নৌকার বিজয় সুনিশ্চিত করেন সে ব্যাপারে কাজ করতে উদাত্ত আহ্বান জানাচ্ছি।

একই রকম খবর