চাঁদপুর জেলা পরিষদের নির্বাচিত চেয়ারম্যান-সদস্যদের শপথ

ইব্রাহিম খান : চাঁদপুর জেলা পরিষদের পুণরায় নির্বাচিত চেয়ারম্যান আলহাজ ওচমান গনি পাটোয়ারী ও নির্বাচিত সদস্যদের শপথ পড়ানো হয়েছে। সোমবার (১৪ নভেম্বর) রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক কনভেনশন সেন্টারে (বিআইসিসি) এ শপথ অনুষ্ঠিত হয়।

জেলা পরিষদের চেয়ারম্যানদের শপথ বাক্য পাঠ করান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এসময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আমরা মানুষের কল্যাণে ও স্বার্থে কাজ করে যাচ্ছি। তাদের উন্নত জীবন দিতে চাই। একটি লোকও দরিদ্র, গৃহহীন-ভূমিহীন ও অন্ধকারে থাকবে না। আপনারা সেবা দিয়ে জনগণের মন জয় করে দেশের উন্নয়নে আত্মনিবেশ করবেন।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘যারা জনপ্রতিনিধি হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন তারা ভোগ দখলের জন্য নির্বাচিত হননি। বরং জনগণের সেবা করার জন্য আপনারা নির্বাচিত হয়েছেন। আপনারা যদি চান নিজেরা ভোগ দখল করবেন, তাহলে একবারেই বিদায় নিতে পারেন।’

তিনি বলেন, ‘অনেকে রিজার্ভ নিয়ে অপপ্রচার চালাচ্ছে। কিন্তু অপপ্রচার চালানোর কী আছে? রিজার্ভ আমরা দেশের মানুষের জন্য খরচ করেছি। আমার দেশের মানুষ যদি না খেয়ে থাকে তাহলে আমার রিজার্ভ থেকে কী হবে?’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘তারা নিজেরাই নিজেদের গঠনতন্ত্র লঙ্ঘন করে সাজাপ্রাপ্ত আসামিকে চেয়ারম্যান করে রেখেছে। আমার মা-বাবা, ভাই হত্যার আসামি জিয়াউর রহমান। সাজাপ্রাপ্ত আসামিদের দল আবার এতো কথা বলে কী করে? বিএনপি ক্ষমতায় এসে আমাদের যত নেতাকর্মীকে নির্যাতন করেছে, সেই তুলনায় আওয়ামী লীগ কিছুই করেনি।’

তিনি বলেন, ‘দেশের সব মানুষ যেন উন্নয়নের ছোঁয়া পায়, আমরা সেই ব্যবস্থা নিয়েছি। বাংলাদেশকে এখন আর কেউ অবহেলা করে না। আমরা জনকল্যাণমূলক স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠা করতে চাই।’

পরিষদের সদস্য ও সংরক্ষিত নারী সদস্যদের শপথ পড়ান স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী তাজুল ইসলাম। শপথ বাক্য পরিচালনা করেন স্থানীয় সরকার বিভাগের সচিব মো. ইব্রাহীম। শপথ অনুষ্ঠানে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদসহ মন্ত্রীবর্গ ও জাতীয় নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

চাঁদপুর জেলা পরিষদ নির্বাচনে শপথ নিয়েছেন যারা: চেয়ারম্যান আলহাজ ওচমান গণি পাটওয়ারী।
সাধারণ সদস্য ১নং ওয়ার্ড (চাঁদপুর সদর উপজেলা) মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান মানিক, ২নং ওয়ার্ড (হাইমচর উপজেলা) খোরশেদ আলম, ৩নং ওয়ার্ড (ফরিদগঞ্জ উপজেলা) আলী আক্কাছ, ৪নং ওয়ার্ড (মতলব দক্ষিণ উপজেলা) মো. আল-আমিন ফরাজী, ৫নং ওয়ার্ড (মতলব উত্তর উপজেলা) মো. আলাউদ্দিন সরকার. ৬নং ওয়ার্ড (কচুয়া উপজেলা) তৌহিদুল ইসলাম, ৭নং ওয়ার্ড (হাজীগঞ্জ উপজেলা) মো. বিল্লাল হোসেন ও ৮নং ওয়ার্ড (শাহরাস্তি উপজেলা) মো. জাকির হোসেন।

এছাড়া সংরক্ষিত মহিলা সদস্য ১নং ওয়ার্ড (সদর, ফরিদগঞ্জ ও হাইমচর) আয়শা রহমান, ২নং ওয়ার্ড (মতলব উত্তর, মতলব দক্ষিণ ও কচুয়া) তাছলিমা আক্তার ও ৩নং ওয়ার্ড (হাজীগঞ্জ ও শাহরাস্তি) জান্নাতুল ফেরদৌসী।

উল্লেখ্য, গত ১৭ অক্টোবর জেলা পরিষদের নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে বিপুল ভোটে নির্বাচিত হন আলহাজ ওচমান গণি পাটওয়ারী। এছাড়া ৮জন সাধারণ সদস্য ও ৩জন মহিলা সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন।

একই রকম খবর