চাঁদপুর জেলা বাপসা নির্বাচনে সভাপতি-সম্পাদক পদে প্রচার-প্রচারণা এগিয়ে

চাঁদপুর খবর রিপোর্ট : বাংলাদেশ ইউনিয়ন পরিষদ সচিব সমিতি (বাপসা) চাঁদপুর জেলা শাখার নির্বাচনে সভাপতি প্রার্থী, আশিকাটি ইউপি সচিব সুলতান মাহমুদ ছাতা প্রতীক নিয়ে প্রচার প্রচারণায় এগিয়ে রয়েছে। নির্বাচনকে ঘীরে তিনি পোস্টার, পেস্টুনসহ বিভিন্ন ভাবে প্রচার-প্রচারণা করে যাচ্ছে। সৎ, যৌগ্য থাকার কারনে সুলতান মাহমুদ এ নির্বাচনে তার প্রতিদ্ব›িদ্ব প্রার্থীর চেয়ে এগিয়ে রয়েছে।

এদিকে আসন্ন বাংলাদেশ ইউনিয়ন পরিষদ সচিব সমিতি (বাপসা) চাঁদপুর জেলা শাখার নির্বাচনে সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী, শাহমাহমুদপুর ইউপি সচিব মোহাম্মদ এমএ কুদ্দুছ আখন্দ রোকন কলম প্রতীক নিয়ে ব্যাপক প্রচার-প্রচারণায় এগিয়ে রয়েছে।

নির্বাচনকে সামনে রেখে তিনি পোস্টার, ব্যানার, পেস্টুনসহ বিভিন্ন ভাবে প্রচার প্রচারনা করে যাচ্ছে। সৎ, যৌগ্য ও আইটির উপর বিশেষ জ্ঞান থাকায় এ নির্বাচনে তার প্রতিদ্ব›িদ্ব প্রার্থীর চেয়ে তিনি এগিয়ে রয়েছে।

সরজমিনে অনেক ভোটারদের সাথে আলাপ করে এমন তথ্য পাওয়া গেছে। নির্বাচনের আর মাত্র বাকি কয়েকদিন, সব কিছু ঠিক থাকলে চলতি মাসের ২৪ তারিখে নির্বাচন হওয়ার কথা রয়েছে। এ নির্বাচনকে ঘীরে সংগঠনের সদস্য ও প্রার্থীদের মাঝে ব্যাপক আনন্দ উৎসব বিরাজ করছে। প্রচার-প্রচারনায় প্রার্থীরা বর্তমানে ব্যস্ত সময় পার করছে। সকাল থেকে শুরু করে দিনবর ইউনিয়নের বিভিন্ন স্থানে, হাট বাজার, দোকান পাটসহ বাসা বাড়ি গিয়ে ভোটারদের সাথে প্রার্থীরা কৌশল বিনিময় করে চলছে। সংগঠনকে গতিশীল ও শক্তিশালী করার এবং সদস্যদের বিভিন্ন সমস্যায় এগিয়ে যাওয়ার প্রতিশ্রæতি নিয়ে প্রার্থীরা পুর জেলা চষে বেড়াচ্ছে।

কলম প্রতীকে বিজয়ী করার জন্য মোহাম্মদ কুদ্দুছ আখন্দ রোকনের সমর্থিত নেতা-কর্মীরা বিভিন্ন কৌশল অবলম্বন করে কলম প্রতীকে ভোট চাচ্ছে। তারা প্রার্থীর ভালো দিক গুলো ভোটারদের কাছে তুলে ধরে কলম প্রতীকে পোস্টার ও লিফলেট ভোটারদের হাতে তুলে দিচ্ছে। সব কিছু ঠিক থাকলে আসন্ন নির্বাচনে কলম প্রতীকে বিপুল ভোটে বিজয়ী হবে বলে ভোটাররা জানিয়েছে।

সভাপতি প্রার্থী সুলতান বলেন, সংগঠনের সদস্যরা যদি আমাকে বিজয়ী করে তাহলে সংগঠনকে শক্তিশালী করার জন্য সকল শ্রেষ্ঠা করে যাব। সংগঠনের সদস্যদের বিভিন্ন বিপদ-আপদে পাশে দাঁড়াবো। তাই সংগঠনের সদস্যদের সেবা করার জন্য আমাকে ছাতা প্রতীকে একটি করে ভাট দিয়ে বিজয়ী করার জন্য সকলের কাছে প্রার্থনা করছি।

সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী এমএ কুদ্দুছ আখন্দ রোকন বলেন, সংগঠনের সদস্যরা যদি আমাকে বিজয়ী করে তাহলে সংগঠনকে শক্তিশালী করার জন্য সকল শ্রেষ্ঠা করে যাবে। সংগঠনের সদস্যদের বিভিন্ন বিপদ- আপদে পাশে দাঁড়াবে। তাই সংগঠনের সদস্যদের সেবা করার জন্য আমাকে কলম প্রতীকে একটি করে ভাট দিয়ে বিজয়ী করার জন্য সকলের কাছে প্রার্থনা করেছেন।

প্রসঙ্গত, আগামি ২৪ নভেম্বর তারিখে অনুষ্ঠিত হবে বাংলাদেশ ইউনিয়ন পরিষদ সচিব সমিতি (বাপসা) চাঁদপুর জেলা শাখার নির্বাচন। এত মোট ভোটার সংখ্যা হলো ৮৫ জন। ভোটার যোগ্য প্রার্থীদেরকে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন।

একই রকম খবর

Leave a Comment