চাঁদপুর টাইমস সম্পাদক ইব্রাহীম জুয়েলের ঈদ শুভেচ্ছা

পাঠকপ্রিয়তায় শীর্ষে থাকা চাঁদপুর টাইমস সম্পাদক ও প্রকাশক কাজী মোহাম্মদ ইব্রাহীম জুয়েল চাঁদপুরবাসীকে ঈদ শুভেচ্ছা জানিয়েছেন।
শুভেচ্ছা বার্তায় তিনি জানান, আত্মশুদ্ধি ও আত্মসংযমের মাস পবিত্র মাহে রমজান। দীর্ঘ এক মাস সিয়াম সাধনার পর ঈদুল ফিতর আমাদের মাঝে সমাগত হয় । প্রতিবছর ঈদ আমাদের জন্যে নিয়ে আসে অনাবিল আনন্দ। ধনী, দরিদ্র,অসহায়, বিত্তবান ও স্বাবলম্বী সকলের জন্যই ঈদ এক পরম আনন্দের বার্তা নিয়ে আসে।
ঈদকে কেন্দ্র করে সমাজের বিত্তশালীগণ নিজ নিজ এলাকার অসহায় গরিব-দুঃখীদের মধ্যে অর্থ,খাদ্য ও পোশাক বিতরণ করে গরীব ও অসহায়দের সাথে ঈদের আনন্দ উপভোগ করতে পারেন।
ঈদে এমনটি করা হলে ইবাদতের পাশাপশি সমগ্র সৃষ্টির প্রতি দয়ামায়া,অকৃত্রিম ভালোবাসা, সৌহার্দ্য,সম্প্রীতি ও সহানুভূতি বজায় রাখা সম্ভব। সমাজের সবাইকে হাশি-খুশিতে রাখাই তো বিত্তবান ও সমাজপতিদের নৈতিক দায়িত্ব ।
পবিত্র ঈদুল ফিতরে দেশ-বিদেশে অবস্থানরত চাঁদপুর টাইমসের অসংখ্য পাঠক, পাঠিকা, রাজনীতিবিদ, বুদ্ধিজীবী,আইনজীবী, সকল গণমাধ্যমের সম্পাদক ও কর্মী, সাংবাদিক, শিক্ষাবিদ, শিক্ষক, শিক্ষানুরাগী, শিল্পপতি, ব্যবসায়ী, পেশাজীবী, সমাজসেবী, সংগঠক, সাংস্কৃতিক কর্মী, সুধী, শুভাকাংখীসহ সকল পেশার মানুষকে জানাই পবিত্র ঈদুল ফিতরের শুভেচ্ছা।
এছাড়া চাঁদপুর টাইমসে সকল সংবাদকর্মী ও বিজ্ঞাপন দাতাদের প্রতি তার অকৃত্রিম ভালোবাসা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন। আগামি চলার পথে চাঁদপুর টাইমসের সাথে সবাই থাকবেন-এমনটাই প্রত্যাশা করেছেন তিনি।
কাজী মোহাম্মদ ইব্রাহীম জুয়েলের ছাত্রজীবন থেকেই চাঁদপুরের সামাজিক, রাজনৈতিক অঙ্গন ও গণমাধ্যমে তাঁর গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা ছিলো। গরীব-দুঃখীদের লালন-পালনসহ সমাজসেবামূলক বিভিন্ন কর্মকা-ে রেখেছেন অগ্রণী ভূমিকা। এই পথপরিক্রমায় তিনি ফিরোজা হাফেজ হাফেজিয়া মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা।
কাজী মোহাম্মদ ইব্রাহীম জুয়েল চাঁদপুর শহরে এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম বংশ কাজী পরিবারে ১৯৭৮ সালের ২রা ডিসেম্বর জন্মগ্রহণ করেন। বাবা- মরহুম হাফেজ কাজী, মা ফিরোজা বেগম। পড়াশোনায় জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিনে হাসান মেমোরিয়া ডিগ্রি কলেজ থেকে ১৯৯৭ সালে বি.কম, ১৯৯৫ সালে চাঁদপুর সরকারি বিশ্ববিদ্যালয় কলেজে থেকে এইচএসসি ও ১৯৯৩ সালে চাঁদপুর গনি মডেল উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি পাস করেন।
৯০এর দশকের মাঝামাঝি সময় চাঁদপুর ক্যাবল নেটওয়ার্কের মাধ্যমে জেলা শহরে স্যাটেলাইট সেবা চালু করেন। এরপর সাফল্যের ধারাবাহিকতায় তিনি আরো অনেক ব্যবসা প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলেন।
বর্তমানে প্রযুক্তিকে উন্নয়নের হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করে জেলা শহরে ব্রডব্যান্ড সেবা চালু করেছেন। জেলা থেকে প্রকাশিত গণমাধ্যমগুলোতেও ছাত্রজীবন থেকেই তাঁর পদচারণা রয়েছে। হাজারো গণমাধ্যমের ভিড়ে ডিজিটাল এই যুগে সব ধরনের পাঠক যাতে কম্পিউটার, ল্যাপটপ, মোবাইল কিংবা স্মার্টফোন থেকে তাৎক্ষণিক খবর, ভিডিও, ছবি দেখতে পারে সে জন্যে ‘চাঁদপুর টাইমস’ চালু করেন। বর্তমানে জেলার শীর্ষে থাকা এ নিউজ পোর্টালটি চাঁদপুর ডায়াবেটিক হাসপাতালের বিপরীতে তাঁর নিজস্ব বাণিজ্যিক কার্যালয় ফিরোজা হাফেজ শান্তি নিকেতন থেকে প্রকাশ হচ্ছে।
খেলাধুলার উন্নয়নেও সব সময় সচেষ্ট কাজী মোহাম্মদ ইব্রাহীম জুয়েল। জেলার তরুণ ও পেশাদার খেলোয়াড়দের জন্য রেখেছেন বিশেষ অবদান। পুরোনো এবং জনপ্রিয় ক্লাব মুক্তিযোদ্ধা ক্রীড়াচক্র চাঁদপুর ও চাঁদপুর ফুটবল একাডেমির সাধারণ সম্পাদক এবং নাজিরপাড়া ক্রীড়াচক্রে যুগ্ম সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করছেন।

একই রকম খবর