চাঁদপুর পালবাজার ব্যবসায়ীদের দুই দিনব্যাপী আনন্দ উৎসব

বিশেষ প্রতিনিধি : মেসির আর্জেন্টিনা দল কাতারে মরুপ্রান্তরে প্রতিপক্ষ ফ্রান্সের সাথে বিশ্বকাপ ফুটবল খেলে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করায় চাঁদপুর শহরের ঐতিহ্যবাহী পালবাজারের ব্যবসায়ীদের দুই দিনব্যাপী আনন্দ উৎসব ও বর্ণাঢ্য মিছিল করেছে। তাদের এই উৎসব ঈদ কিংবা পুঁজার আনন্দকে হার মানিয়েছে। জয়ের উন্মাদনায় সড়কে নেমে এসেছে সব শ্রেণী পেশার মানুষ।

নিজেদের সমর্থিত দল চ্যাম্পিয়ান হওয়ায় ৮ শতাধিক ব্যবসায়ী ও সমর্থকদের মাঝে সোমবার (১৯ ডিসেম্বর) রাতের খাবারের আয়োজন করেন ব্যবসায়ী নেতারা। এ সময় ব্যবসায়ীদের উৎসাহ যোগাতে তাদের সাথে সার্বিক সহায়তা করেন এবং উপস্থিত ছিলেন পৌরসভার ৬নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. সোহেল রানা।

গত দুই রাতে ব্যবসায়ী, এলাকাবাসী ও সমর্থকরা ব্যাপকভাবে আনন্দে মেতে উঠে ও শহরের বর্নাঢ্য মিছিল করে শহর প্রদক্ষিন করে। রাতে পালবাজার ও তার আসে পাশে আতশবাজি করে এবং নেচে গেয়ে আনন্দ উপভোগ করতে দেখা যায়।

জানাগেছে, আর্জেন্টিনা ফুটবল দল জয়লাভের আনন্দে পালবাজারের ব্যবসায়ী নেতা হারুন-অর-রশিদ পাটওয়ারী, সফরউদ্দিন মোল্লা (মাস্টার), আকবর হোসেন গাজী, সঞ্জিব পোদ্দার, লিটন নন্দী, মো. সোহেল খান, শিবু সাহা, তপন সাহা, বিল্লাল হোসেন, কামরুল ইসলাম গাজী, হাবিবুর রহমান হাবিব খান, জাহাঙ্গীর বেপারী, মনু মিয়া, জসিম গাজী, মাহবুবুর রহমান মাহবুব তপাদার বড় পর্দায় খেলা দেখার আয়োজন করেন। বিশেষ করে এই ব্যবসায়ীরা ৮০০ জনের রাতের খাবারের আয়োজন করেন।

পরে সোমবার ও মঙ্গলবার রাতে আজেন্টিনা ফুটবল দল কাতারে মরুপ্রান্তরে প্রতিপক্ষ ফ্রারাস ফুটবল দলকে হারিয়ে বিশ্বকাপ ফুটবল খেলে চ্যাম্পিয়ান হওয়ার গৌরব অর্জন করায় ২দিন ব্যাপী আনন্দ উৎসব ও মিছিলের আয়োজন করেন উপরোক্ত ব্যবসায়ী নেতারা।

দুই দিনব্যাপী এই আয়োজনে আরো সহযোগিতা করেন বাজারের ব্যবসায়ী নজরুল ইসলাম সেকুল, মিজানুর রহমান, জাকির হোসেন গাজী, নূর হোসেন, মো. রুবেল তপাদার, মমিন হাওলাদার, হুমায়ুন খান, রুবেল খান প্রমূখ।

অপরদিকে গত রোববার রাতে চাঁদপুর শহরের পাড়া মহল্লা, মাঠে, ময়দানে সড়কের বিভিন্ন স্থানে আর্জেন্টিনার ভক্তদের বড় বড় পর্দায় খেলার ব্যবস্থা করে খেলা উপভোগ করতে দেখা যায় এবং তারা আনন্দ ও উল্লাসে মেতে উঠে।

নিজদল আর্জেন্টিনা জয়লাভ করায় মটরসাইকেলসহ বিভিন্ন যানবাহনে পতাকা উড়িয়ে শহরের সড়ক প্রদক্ষিন করে আনন্দ উৎসব করে। তাদের এই উৎসব ঈদ কিংবা পুঁজার উৎসবকে হার মানিয়েছে।

একই রকম খবর