চাঁদপুর পৌর নির্বাচনে বিএনপির মেয়র প্রার্থী আক্তার মাঝির মতবিনিময়

স্টাফ রিপোর্টার : আসন্ন চাঁদপুর পৌরসভা নির্বাচনে বিএনপি মনোনীত ধানের শীষ প্রতীকের মেয়র প্রার্থী জেলা বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক আক্তার হোসেন মাঝি সোমবার বিকেলে শহরের প্রফেসরপাড়াস্থ নিজ বাড়ির সামনের মাঠে মতবিনিময় সভায় পুলিশ বাধা দেওয়ার অভিযোগ করেছেন বিএনপির মেয়র প্রার্থী।

পরে সন্ধ্যায় প্রার্থীর নিজ বাড়ি মাতৃছায়া ভিলায় মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। মতবিনিময় সভায় আক্তার হোসেন মাঝি মনোনয়নপত্র দাখিলের জন্যে নিজ এলাকাবাসীর কাছে দোয়া কামনা করেন। জেলা বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক অ্যাড. সলিম উল্লাহ সেলিমের সভাপতিত্বে এবং পৌর মৎসজীবী দলের সভাপতি আমিন শেখ জিলানীর পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন জেলা বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক সেলিমুছ সালাম, সাবেক সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক হাজী মোশারফ হোসেন, জেলা ছাত্রদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক কাজী মোহাম্মদ ইব্রাহিম জুয়েল। বক্তারা বলেন, চাঁদপুর পৌরসভা নির্বাচনে বিএনপি এমন একজন পরীক্ষিত নেতাকে মনোনয়ন দিয়েছেন, চাঁদপুর পৌরসভা নির্বাচনে আমরা প্রশাসনের কাছে সকল প্রার্থীর সমান অধিকার চাচ্ছি। আমাদের প্রার্থীর নির্বাচনী প্রচার-প্রচারণা এবং সভাগুলোতে প্রশাসনের সহযোগিতা কামনা করছি।

তিনি আরো বলেন, যিনি দল-মত নির্বিশেষে পৌরবাসীর কাছে অত্যন্ত সৎ-আদর্শবান এবং জনপ্রিয় হিসেবে পরিচিত। তিনি আপনাদের এই এলাকার সন্তান হিসেবে এই এলাকার মুখ উজ্জল করেছেন। তিনি মনোনয়পত্র দাখিলের আগ মুহূর্তে নিজ এলাকাবাসীর কাছে দোয়া কামনায় এই মনতবিনিময় সভায় মিলিত হয়েছেন। আপনারা ওনার জন্যে দোয়া করবেন এবং দলমত নির্বিশেষে তাকে বিজয়ী করার লক্ষ্যে কাজ করবেন।

ধানের শীষ প্রতীকের মেয়র প্রার্থী আক্তার হোসেন মাঝি তার বক্তব্যে বলেন, আজকে আমি এলাকার মুরব্বীদের কাছে দোয়া চেয়ে তাদের সাথে মনতবিনিময় করেছি। এই সভাটি বিকেল ৩টায় আমার বাড়ির সামনের মাঠে হবার কথা ছিল। অথচ হঠাৎ করেই পুলিশ আমাদের সভা করতে বাধা দেয়। পরে বাধ্য হয়ে এলাকাবাসীর অনুরোধে আমার বাড়ির উঠানে সভা করতে হয়েছে। অথচ একই দিন আওয়ামী লীগ প্রার্থী এই এলাকায় সমাবেশ করেছে। আমরা পুলিশের এই দ্বৈতনীতিতে অবাক হয়েছি। দুই প্রার্থীর ক্ষেত্রে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর দুই নিয়েম আমরা প্রত্যাশা করি না।

তিনি এলাকাবাসীর উদ্দেশ্যে আরো বলেন, আমার এই আক্তার মাঝি হবার পেছনে এ এলাকাবাসীর অবদান সবচেয়ে বেশি। তাই আমি আপনাদের প্রতি কৃতজ্ঞ। আপনাদের সন্তান হিসেবে আগামী ১০ তারিখ ভোটের মাধ্যমে আমাকে নির্বাচিত করবেন। আমি মনোনয়নপত্র উত্তোলন করবো, তাই আমি দোয়া কামনা করছি।

একই রকম খবর