চান্দ্রায় স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণের ঘটনায় এলাকায় তোলপাড়

স্টাফ রিপোর্টার : চাঁদপুর সদর উপজেলার ১২ নং চান্দ্রা ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ড পশ্চিম মদনা গ্রামের গাজী বাড়িতে রাতের আধাঁরে মুখে চাপ দিয়ে ভয় দেখিয়ে নবম শ্রেণির স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণ করার ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে।

গত দু’দিন যাবৎ চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালের গাইনি বিভাগে ধর্ষিতা স্কুলছাত্রী চিকিৎসাধীন রেেয়ছন।

ধর্ষণের ঘটনাটি ধামাচাপা দেওয়ার জন্য এলাকার দালালচক্র অসহায় স্কুল ছাত্রীর পরিবারকে ভয় ভীতি প্রদর্শন করছে বলে অভিযোগ করেছেন ভুক্তভোগীরা।

ঘটনাটি পুলিশকে না জানিয়ে এলাকায় ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা চালাচ্ছেন স্থানীয় দালাল চক্ররা। এখনো ধর্ষণকারী জাফর গাজী এলাকায় দিব্যি ঘুরে বেড়াচ্ছে।

ধর্ষণের ঘটনাটি দু’দিন চলে গেলেও ধর্ষণকারীকে পুলিশ গ্রেফতার না করায় জনগণের মাঝে মিশ্র প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে।

ধর্ষিতার মা আমেনা বেগম জানায়, চান্দ্রা ইউনিয়নের পশ্চিম মদনা গ্রামের খাজা আহমেদ গাজীর বখাটে ছেলে জাফর গাজী দীর্ঘদিন যাবৎ মেয়েক প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে উত্ত্যক্ত করে আসছিল।

শুক্রবার রাতে ১২ টার দিকে প্রাকৃতিক ডাকে সাঁড়া দিতে ঘরের বাইরে বেরিয়ে আসলে ধর্ষণকারী জাফর তাকে দেখতে পেয়ে মুখ চাপ দিয়ে ধরে পাশের রান্না করে নিয়ে ধর্ষণ করে। এ সময় মেয়ের চিৎকারে ঘর থেকে বেরিয়ে এসে ধর্ষক জাফর গাজীর হাত ধরে ফেললে সে ধাক্কা দিয়ে দৌঁড়ে পালিয়ে যায়।

এই ঘটনাটি পুলিশকে না জানানোর জন্য এলাকার দালাল চক্র ধর্ষকের পক্ষ নিয়ে চাপ প্রয়োগ করে।

লম্পট জাফর গাজীর পরিবারের লোকজন ভয়-ভীতি প্রদর্শন করছে যাতে করে ঘটনাটি কাউকে না জানানো হয়। এ ঘটনায় প্রশাসনের কাছে ধর্ষকের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি জানাচ্ছে ভুক্তভোগী পরিবার।

একই রকম খবর