চৌমুহনী-হাজীগঞ্জ সড়কের স্ট্রীলের ব্রীজটির বেহালদশা

স্টাফ রিপোর্টার : কচুয়া উপজেলার ৮নং কাদলা ইউনিয়নের চৌমুহনী বাজারে সংলগ্ন চৌমুহনী – হাজীগঞ্জ সড়কের এই স্ট্রীল ব্রীজটির অবস্থা খুবই নাজুক।

এতে করে প্রায় কয়েকটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী ও এলাকাবাসী চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। প্রায় প্রতিদিনই ঘটছে ছোট বড় দুর্ঘটনা। এনিয়ে এলাকাবাসীর মাঝে চাপা ক্ষোভ বিরাজ করছে।

জানা যায়, ব্রিজটি দিয়ে চলাচল করতে গিয়ে কিন্ডাগার্টেনের কোমলমতি শিক্ষার্থীরা (৪ থেকে ১০ বছরের) অহরাহর দূর্ঘটনার স্বিকার হচ্ছে। এছাড়াও ৩ টি কলেজ, ২টি উচ্চ বিদ্যালয়, কয়েকটি মাদ্রাসা ও ২টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীসহ এলাকাবাসীও ছোট বড় দুর্ঘটনার স্বিকার হচ্ছে। কচুয়া- হাজীগঞ্জ উপজেলার অসংখ্য যাত্রী নিয়ে ঝুঁকির মধ্যে চলাচল করছে যানবাহন।

এ বিষয়ে এলকাবাসীর সাথে আলাপকালে তারা জানান, আল্লাহ না করুক বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটার আগে একটা ব্যবস্থা নেওয়া জরুরী।

ব্রিজটির এমন বেহাল দশায় যেখানে মানুষ যানবাহন চলাচল করতে দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে, এর মধ্যে ব্রীজটির উপর সিএনজি স্টেশন করা হয়েছে। সি.এন.জি. স্টেশন এখানে থাকলে পুরো ব্রীজটাই নষ্ট হয়ে যাবে। সি.এন.জি. তে ব্যবহৃত মবিল ও তেল প্রতিনিয়ত ব্রীজের উপর পড়ে ব্রীজটি নষ্ট হচ্ছে। সি.এন.জি. ড্রাইভাররা নিজেদের রাজপ্রাসাদ বানিয়ে নিয়েছে ব্রীজকে। একে তো ব্রীজটা সরু, তার উপর ব্রীজেই রাখা হয় সি.এন.জি.।

ব্রীজের উপর সি.এন.জি. রাখার কারনে মানুষ ও অন্যান্য গাড়ি যাতায়াত করতে অনেক সমস্যা হয়। আমরা সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নিকট আকুল আবেদন জানাচ্ছি ব্রিজটির উপর থেকে সিএনজি স্টেশন সড়িয়ে ব্রিজটি দ্রুত যেন সংস্কার করে। না হলে যে কোন সময় ঘটতে পারে বড় ধরনের দুর্ঘটনা।

একই রকম খবর