জনগণের চোখে পদ্মা সেতু এবং সরকারের উন্নয়ন- (আট)

বিশেষ প্রতিনিধিঃ পদ্মা সেতু বাংলার অহংকার। সাহসের প্রতীক। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তথা আওয়ামীলীগ সরকারের অনন্য অবদান। যা অনন্তকাল আওয়ামীলীগের উন্নয়নের নজির হিসেবে থাকবে। স্বপ্নের পদ্মা সেতু আজ বাস্তবে রুপ দেয়ায় “দৈনিক চাঁদপুর খবর” নাগরিকদের ধারাবাহিক অভিমত প্রকাশ করার উদ্যোগ নিয়েছে।

গতকাল (৩ জুলাই) চাঁদপুর খবরকে অভিমত ব্যক্ত করেছেন, চাঁদপুর জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহ-সভাপতি, নিরাপদ সড়ক চাই জেলা শাখার উপদেষ্টা এডভোকেট মোঃ আতাউর রহমান পাটওয়ারী।

চাঁদপুর খবর ঃ কেমন আছেন?

আতাউর পাটওয়ারী ঃ ভালো আছি।

চাঁদপুর খরব ঃ স্বপ্নের পদ্মা সেতু উদ্বোধন হয়েছে। আপনার অভিমত কি ?

আতাউর পাটওয়ারী ঃ সর্ব প্রথম মহান আল্লাহপাকের কাছে শুকরিয়া আদায় করছি। আর উছিলা হিসেবে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা এবং বর্তমান মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের আওয়ামীলীগ সরকারের অবদানের কারনে পদ্মা সেতুর জন্ম। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানাই দেশের সর্ববৃহৎ সর্বকালের এ সেতু নির্মাণ করার জন্য। উদ্বোধনী অনুষ্টানটি অনেক আকর্ষণীয় হয়েছে। যা উপভোগ্য একটি মনে রাখার মত অনুষ্ঠান হয়েছে। পদ্মা সেতু আমাদের জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর উপহার।

চাঁদপুর খবর ঃ পদ্মা সেতু উদ্বোধন নিয়ে দেশের সকল জেলায় একযোগে উৎসব অনুষ্টিত হয়েছে এ সম্পর্কে মন্তব্য কি?

আতাউর পাটওয়ারী ঃ বাংলাদেশ বর্তমানে ডিজিটাল বাংলাদেশ হিসেবে গড়ে উঠেছে। আর মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আজ ডিজিটাল বাংলাদেশের রুপকার। ডিজিটাল বাংলাদেশের কারনেই সকল জেলায় একযোগে এ জমকালো অনুষ্ঠান সম্প্রচার হয়েছে। স্মতি হয়ে রইল এ বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠান। পদ্মা সেতুর উদ্বোধনী অনুষ্ঠান স্মরণ রাখার মতো। যা আগামী প্রজন্ম যুগ যুগ ধরে স্মরণ রাখবে। যা আমাদের জন্যও একটি ইতিহাস হয়ে থাকবে।

চাঁদপুর খবর ঃ পদ্মা সেতু নির্মাণে যোগাযোগের ক্ষেত্রে কতটুকু অবদান রাখবে বলে আপনি মনে করেন?

আতাউর পাটওয়ারী  ঃ যোগাযোগের ক্ষেত্রে এ এক মাইল ফলক। বিরাট ভূমিকা রাখবে। যার দেশের দুপ্রান্তের এক বন্ধন । বিশ্বের কাছে এ সেতু একটি মডেল হয়ে থাকবে । মানুষ এখন সহজেই রাজধানীতে পৌছতে পারবে। শেখ হাসিনা বাংলাকে সোনার বাংলায় পরিণত করার জন্য আজকে এ সেতু নির্মাণ করেছেন। আরো করবেন।

চাঁদপুর খবর ঃ পদ্মা সেতু নির্মাণে কার অবদান ও ভূমিকা রয়েছে এ বিষয়ে আপনার বক্তব্য কি?

আতাউর পাটওয়ারী ঃ আগেই বলেছি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কারনেই আজকের পদ্মা সেতু। সকল বাধা বিপত্তি উপেক্ষা করে তিনি এ সেতু তৈরি করেছেন। আমি বর্তমান সরকার কে ধন্যবাদ জানাই পদ্মা সেতু বাংলার মানুষকে উপহার দেয়ার জন্য।

চাঁদপুর খবর ঃ পদ্মা সেতু দ্বারা বাংলাদেশের উন্নয়ন ও অর্থনৈতিকভাবে কেমন সুফল পাবে বলে মনে করেন।
আতাউর পাটওয়ারী ঃ বিশ্বের কাছে বাংলাদেশ আজ উন্নত রাস্ট্র। ৩০ লক্ষ শহীদের বিনিময়ে পাওয়া এ দেশ আজ জননেত্রী শেখ হাসিনার হাত ধরে স্বনির্ভর রাষ্ট্রে পরিণত হচ্ছে। বাংলাদেশ শক্তিশালী দেশ হিসেবে বিশ্বের অর্থনৈতিক বাজারে অবদান রাখছে।

চাঁদপুর খবর ঃ পদ্মা সেতুর রক্ষণাবেক্ষণে আমাদের তথা স্বেচ্ছাসেবক লীগের করনীয় কি ?

আতাউর পাটওয়ারী ঃ পদ্মা সেতু রক্ষায় এবং যড়যন্ত্র মোকাবেলা করতে বাংলাদেশ স্বেচ্ছাসেবক লীগ প্রস্তুত আছে। স্বেচ্ছাসেবক লীগ রাজপথে সকল সময় থাকবে এবং আছে। সেতুর দু’পাড়ে দুইটি থানা নির্মাণ করা হয়েছে। সেতুর নিরাপত্তায় আইনশৃংখলা বাহিনীকেও সজাগ থাকতে হবে। সকল প্রকার নাশকতা প্রতিহত করতে হবে। ইতোমধ্যে সেতুর বিভিন্ন স্থানে ক্যামেরা বসানো হয়েছে ।

চাঁদপুর খবর ঃ পদ্মা সেতুর সৌন্দর্য্য অবলোকন করতে কবে যাচ্ছেন ?

আতাউর পাটওয়ারী ঃ অবশ্যই যাবো। আমাদের স্বপ্নের সেতু স্বেচ্ছাসেবক লীগ তথা বঙ্গবন্ধুর সৈনিকরা সকল সময় নজর রাখবে। দেশের উন্নয়নে কারো বাধা আমরা মানবো না।

চাঁদপুর খবর ঃ যারা বলেছে পদ্মা সেতু হবে না। করা সম্ভব না, তাদের প্রতি আপনার প্রতিক্রিয়া কি ?

আতাউর পাটওয়ারী ঃ যারা বিরোধীতা করেছে তাদের দাঁতভাংগা জবাব দিয়েছে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী। দেশের উন্নয়ন কাজে যারা বাঁধা দিবে তাদেরকে সে¦চছাসেবক লীগ তথা বাংলার আপামর জনতা মোকাবেলা করবে।

চাঁদপুর খবর ঃ সময় দেয়ার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ।
আতাউর পাটওয়ারী ঃ চাঁদপুর খবর পরিবারকেও ধন্যবাদ।

একই রকম খবর