প্রধানমন্ত্রীকে চাঁদপুরের ৫টি আসন উপহার দিবো : ওচমান গনি পাটওয়ারী

স্টাফ রিপোর্টার : বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭২ তম জন্মদিন উপলক্ষে আলোচনা সভা ও কেক কাটা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শুক্রবার বিকেলে জেলা ছাত্রলীগের আয়োজনে চাঁদপুর শহরের নতুনবাজারস্থ আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ ওচমান গনি পাটওয়ারী।

তিনি তাঁর বক্তব্যে বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান আমাদের স্বাধীনতা দিয়েছেন। জাতির পিতার ভাষন আমাদের জন্য মুক্তির ভাষন। যে ভাষনের মাধ্যমে একটি সোনার বাংলাদেশ বিনির্মান করতে চেয়েছেন তিনি। আজ বঙ্গবন্ধু আমাদের মাঝে নেই কিন্তু তার আদর্শ আমাদের মাঝে বেচে রয়েছে। বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলাদেশ গড়তে তাঁর সুযোগ্য কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা জীবনকে বাঝি রেখে কাজ করছেন। দেশের অগ্রনি ভ‚মিকার জন্য একমাত্র জননেত্রী শেখ হাসিনাই যোগ্য নেত্রী।

তিনি আরো বলেন, আমরা জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে একটি সুখি-সমৃদ্ধশালী দেশ গড়ার লক্ষে কাজ করবো। উন্নয়নের ধারা বন্ধ করতে জননেত্রীকে বার বার হত্যা করা প্রচেষ্টা করেছিলো ষড়যন্ত্রকারীরা। মানুষের দোয়া ও ভালোবাসায় তিনি আমাদের মাঝে বেচে আছেন। নৌকার বিজয় সুশ্চিত করে আমরা জননেত্রীকে চাঁদপুরের ৫টি আসন উপহার দিবো ইনশাল্লাহ। ছাত্রলীগের অভিভাবক ছিলেন বঙ্গবন্ধু নিজেই, এখন জননেত্রী শেখ হাসিনা। আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন চাঁদপুরে ছাত্রলীগ মূল এজেন্ডার হিসেবে কাজ করবে আশা করি। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী চাঁদপুরে যাকে নৌকার মনোনয়ন দিবেন আমরা তাঁর জন্যই কাজ করবো। সকল বাধা কাটিয়ে পুরো আসনটি আমরা জননেত্রী শেখ হাসিনাকে উপহার দিবো।

জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি মো. হাসিবুজ্জামান পাটওয়ারীরর সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সাবেক জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য অ্যাড. জসিম উদ্দিন পাটওয়ারী। জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক কাইয়ুম খন্দকারের পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন সাবেক ছাত্রলীগ নেতা মাইনুল ইসলাম কিশোর, আজিজুর রহমান খোকা, মাইনুদ্দিন, সাবেক কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সদস্য উপম পাটওয়ারী, সদর থানা ছাত্রলীগের সভাপতি মাসুদুর রহমান পরান, জেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম সম্পাদক হাসিবুল হাসান মুন্নান, চাঁদপুর সরকারি কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি মো. আবু বকর সিদ্দিক, সদস্য তানিম পাটওয়ারী, সাবেক ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি হাফিজুর রহমান মোল্লা, শহর ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক জিয়াউল আমি দীপু, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সম্পাদক আরিফ হোসেন মজুমদার, শহর ছাত্রলীগের যুগ্ম সম্পাদক জুয়েল দেওয়ান, আব্দুল্লাহ আল মামুন, কলেজ ছাত্রলীগের সদস্য শাহ জালাল হোসেন রাজু, চান্দ্রা ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি ইব্রাহীম হোসেন, জেলা ছাত্রলীহের সাবেক উপ-সম্পাদক নবীন খান, কলেজ ছাত্র লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক হারুনুর রশিদ মোল্লাসহ বিভিন্ন পর্যায়ের ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

একই রকম খবর

Leave a Comment