চাঁদপুরে ‘জয় বাংলা ইয়ুথ অ্যাওয়াড’ এর কার্যক্রম শুরু

স্টাফ রিপোর্টার : চাঁদপুরে সেন্টারফর রিসার্চ এন্ড ইনফরমেশন (সিআইআর) এবং ইয়াং বাংলা আয়োজিত ‘জয় বাংলা ইয়ুথ এ্যাওয়ার্ড’ এর কার্যক্রম শুরু হয়েছে।

এ বিষয়ে প্রচার-প্রাচারণার লক্ষ্যে ১০ সেপ্টেম্বর সোমবার সকাল ১০টায় চাঁদপুর জেলা প্রশাকসের কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

চাঁদপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোহাম্মদ শওকত ওসমানের সভাপতিত্বে ও ২০১৭ সনে ‘জয় বাংলা ইয়ুথ এ্যাওয়ার্ড’ রুপক রায়ের পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন, সিআরআই এর আঞ্চলিক প্রতিনিধি ডা. মাহমুদুল হাসান দিপু, জেলা সমন্বয়কারী মাসদ আল রণি, সহকারী সমন্বয়কারী নাইমুল ইসলাম, মাসুদ রানা প্রমুখ।

অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ শওকত ওসমান তার বক্তব্যে বলেন, তরুণেরাই দেশের ভবিষ্যত। কারণ তারাই আগামী দিনের বাংলাদেশ গড়ে তুলবে। তাই সারাদেশের বিভিন্ন প্রান্তে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা মেধাবী তরুণদের সামনের কাতারে নিয়ে আসার লক্ষ্যেই তরুণদের সর্ববৃহত প্লাটফর্ম ‘ইয়াং বাংলা’ গড়ে তোলা হয়েছে। দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলের তরুন প্রজন্মকে উজ্জিবিত কারর লক্ষ্যে এই আয়োজন আরো ব্যবপভাবে করা হচ্ছে।

তিনি বলেন, দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে ছড়িয়ে থাকা অনেক সফল তরুণরা সামাজিক উন্নয়নম‚লক পদক্ষেপ, তরুণদের ব্যবসায়িক উদ্যোগ ও নতুন নতুন উদ্ভাবনসহ ইতিবাচক অবদান রেখে যাচ্ছে। মূলত তাদের স্বীকৃতি দিতে ‘জয় বাংলা ইয়ুথ অ্যাওয়ার্ড’-এর কার্যক্রম শুরু করেছে ইয়াং বাংলা। আমরা চাইবো চাঁদপুরেন জেলা থেকে এবছর অনেক বেশী তরুন এই আয়োজনে অংশ নিবে। একটি সুন্দর দেশ গঠনে চাঁদপুরের তরুনরা বেশী করে অবদান রাখবে।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে সহকারি কমিশনার মো. ছামিউল ইসলাম, মো, উজ্জল হোসেন, মোছা: আজিজুন্নাহার, মো. মেহেদী হাসান মানিক ও মো. ওয়ালিদুজ্জামানসহ চাঁদপুরে কর্মরত বিভিন্ন পর্যায়ের সাংবাদিকগণ প্রমুখ।
উল্লেখঃ তরুন প্রজন্মকে অনুপ্রানিত করতে ব্যাক্তিগত ও প্রাতিষ্ঠানিক পর্যায়ে বিভিন্ন ক্ষেত্রে তাদের অবদানের স্বীকৃতি স্বরূপ ইয়ং বাংলা ২০১৫ সাল থেকে ‘জয় বাংলা ইয়ুথ এ্যাওয়ার্ড’ প্রদান করে আসছে। সেই ধারাবাহিকতায় এ বছরেও (২০১৮) অক্টোবরে ৩য় বারের মতো মতো ‘জয় বাংলা ইয়ুথ অ্যাওয়ার্ড’ এর আয়োজন করা হয়েছে।

১০টি বিভগে বিশেষ অবদানের জন্য এই পুরস্কার প্রদান করা হবে। এরমধ্যে দক্ষতায় সমাজ উন্নয়ন, সর্বব্যাপী শিক্ষ, বিশেষভাবে সক্ষমদের (প্রতিবন্ধি) জন্য কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা সাংস্কৃতিক বিপ্লব, উদ্ভাবক. খেলাদুলা এবং ফিটনেস, জনসচেতনতা সৃষ্টি, লিঙ্গ বৈষমহ্রসসহ আরো বেশ কিছু বিভাগ রয়েছে।

এ লক্ষে নির্বাচিত ৩৬ জেলায় ১টি করে সংবাদ সম্মেলন, দেশের ২০টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ক্যাম্পেইন এ্যাক্টিভেশন, ১৪৪টি উপজেলা ও টাউনহলে অ্যাক্টেভেশন প্রগ্রামের পরিকল্পনা করা হয়েছে। চাঁদপুর জেলার মধ্যে ফরিদগঞ্জে ১৩, সদর উপজেলায় ১৫, হাজিগঞ্জে ১৬ এবং মতলব দক্ষিণে ১৭ সেপ্টেম্বর ক্যাম্পেইন এ্যাক্টিভেশন অনুষ্ঠিত হবে। আয়োজনে অংশ নিয়ার বিষয়ে জানতে ইয়াং বাংলার ওয়েবসাইট ঊৎৎড়ৎ! ঐুঢ়বৎষরহশ ৎবভবৎবহপব হড়ঃ াধষরফ. এই লিংকে ভিজিট করতে হবে।

একই রকম খবর

Leave a Comment