কল্যাণপুরে ডা. দীপু মনির মহিলা সমাবেশ

স্টাফ রিপোর্টার : চাঁদপুর সদর উপজেলার কল্যাণপুর ইউনিয়নে দীপু মনির মহিলা সমাবেশ বিশাল জনসভায় রূপান্তর। সদর উপজেলার কল্যানপুর ইউনিয়নে চাঁদপুর-৩ আসনে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডাঃ দীপু মনি দিনভর উঠান বৈঠক, মহিলা সমাবেশ ও ব্যাপক গণসংযোগ করেছেন।

তিনি ১৯ ডিসেম্বর বুধবার সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত কল্যাণপুর ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ড কল্যান্দী গাজী বাড়ির উঠান বৈঠক, ৪নং ওয়ার্ডে মিজান মেম্বারের বাড়ির উঠান বৈঠক, ১৫নং কল্যান্দী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রাঙ্গণের মহিলা সমাবেশ, কল্যাণন্দী আমানউল্যাপুর এলাকার দীঘির পারের উঠান বৈঠক, ৮নং ওয়ার্ড নুরুল ইসলাম খান বাড়ির উঠান বৈঠক ২নং ওযার্ডে ১৭নং দাসদী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠের মহিলা সমাবেশ।

১৪নং ডাসাদী উচ্চ বিদ্যালয় মাঠের মহিলা সমাবেশ রূপনেয় বিশাল জনসভায়। এছাড়া তিনি কল্যান্দী সাইকুল হাদিস আলহাজ্ব হযরত মাওলানা আব্দুল খালেক (রঃ) কবর জিয়ারত।

এর আগে তিনি সকাল ৯টায় পৌর এলাকার স্টেডিয়াম রোডে স্বাধীনতা পদকপ্রাপ্ত নারী মুক্তিযোদ্ধা সৈয়দা বদরুন্নাহারের আয়োজনে ফ্রি-মেডিকেল ক্যাম্পের উদ্বোধন করেন।

ডাঃ দীপু মনি উঠান বৈঠক ও মহিলা সমাবেশে বক্তব্যে বলেন, এই ইউনিয়নে আদমখান সড়কের কাজ নাকি বিএনপির প্রার্থী করছে। কি করে একজন ব্যাক্তি সরকারি রাস্তা বানাতে পারে, কতবড় মিথ্যাচার করছে তারা। যারা দেশের উন্নয়নে কোনদিন এক ফোটা কাজও করে নাই. তাদের ভোট দিলেই সব কাজ করে দিবে আপনারা কি তা বিশ্বাস করেন। তারা যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের সময় বলেছিল সাইদীকে চাঁদে দেখা গেছে, সৌদি আরবের মক্কায় নাকি সকল ধর্মীয় নেতারা যুদ্ধাপরাধীদের মুক্তির জন্য মানববন্ধন করেছিল। মিথ্যাচারের দল হচ্ছে বিএনপি, এত বড় মিথ্যাচার আল্লাহও কোনদিন সহয্য করবে না। আমার নির্বাচনী এলাকায় ৫৯ হাজার কোটি টাকা ব্যায়ে সাড়ে ১০ হাজার একর জমির উপর বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল তৈরী হচ্ছে। যেখানে হাজার হাজার নারী-পুরুষের কর্মসংস্থানের ব্যাবস্থা হবে। আপনার সন্তানের আগামীর উজ্জল ভবিশ^ত গড়ার জন্য আবারো নৌকায় ভোটদিন।

তিনি নতুন ভোটারদের উদ্যেশ্যে বলেন, তোমরা নতুন প্রজন্ম মুক্তিযোদ্ধের ইতিহাস জেনেছো, অনেক শহীদের রক্ত আর মায়ের সম্ভ্রমের বনিময়ে অর্জিত এই স্বাধীনতা। এই স্বাধীনতাকে রক্ষা করতে ”নতুন ভোটারের ভোট স্বাধীনতার পক্ষে হউক” নতুন ভোটারের ভোট মুক্তিযোদ্ধের পক্ষে হউক” নতুন ভোটারের ভোট উন্নয়নের পক্ষে হউক” নতুন ভোটারের ভোট রাজাকার মুক্ত বাংলাদেশের পক্ষে হউক” নতুন ভোটারের ভোট নৌকার পক্ষে হউক। বিগত দশ বছরের উন্নয়ন কাজের কথা উল্লেখ করে বলেন, চাঁদপুর-হাইমচর মেঘনা নদীর ভাঙ্গন রোধে প্রায় ১৯ কিলোমিটার স্থায়ী বাঁধ নির্মাণ, লাকসাম-চাঁদপুর রেললাইন সংস্কার, ৩২৪টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভবন নির্মাণ, ১৫০ মেগা ওয়াট বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণ, শতভাগ বিদ্যুতায়ন, চাঁদপুরে মেডিকেল কলেজ স্থাপন, ৫৩টি উচ্চ বিদ্যালয় মাদরাসা ও কলেজের ভবন নির্মাণ, ২৩৭ কিলোমিটার রাস্তা পাকাকরন, ৩৮টি কমিউনিটি ক্লিনিক নির্মাণ, ১৫৯টি সেতু ও কালভার্ট নির্মাণ, মেরিন একাডেমী, পাসপোর্ট অফিস, নাসিং ইন্সটিটিউট, ১৫০ কোটি টাকা ব্যায়ে আধুনি নৌবন্দর(প্রক্রিয়াধীন), ১১টি ইউনিয়ন পরিষদ কমপ্লেক্স ভবন স্থাপন, ৩০টি আশ্রয়ন প্রকল্পে ৩৭৫০ টি পরিবারকে ঘর বরাদ্ধ, ২টি আধুনিক পানি শোধনাগার নির্মাণ, ৫৯ হাজার কোটি টাকা ব্যায়ে সাড়ে ১০ হাজার একর জমির উপর বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল (প্রক্রিয়াধীন)।

তিনি ভোটারদের প্রতি প্রশ্ন রেখে বলেন, অন্য প্রার্থীরা নিজেদের ভাগ্যউন্নয়নে জন্য বড় বড় বাড়ি বানিয়েছে। মানুষের জীবনমান উন্নয়নে কোন কাজ করেনি। তাহলে কাকে ভোট দিবেন। নিশ্চয় উন্নয়নের কথা মাথায় রেখে নৌকায় ভোট দিবেন। শেখ হাসিনার সরকার আগামীদিনের কথা চিন্তা করে কাজ করে যাচ্ছে। আপনাদের ভবিষ্যৎ যাতে সুদৃড় হয় ও জীবনমান যাতে উন্নত হয় সেই লক্ষ্যে শেখ হাসিনার সরকার কাজ করছে।

তিনি নারীর ক্ষমতায়ন ও উন্নয়নের প্রসঙ্গে বলেন, শেখ হাসিনা সরকার সংসদে ৩০ভাগ নারীর আসন সংরক্ষিত করা হয়েছে। আজ নারীরা প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষক হিসেবে চাকুরী করছে। আজ দেশে নারী আকাশে বিমান উড়াচ্ছে। নারীরা আজ আর ঘরে বসে নেই তারা কোন না কোন কাজ করছে, তাতে সংসারের আয় উন্নতিতে সহযোগিতা হচ্ছে। নারীর স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিত করতে মাতৃত্বকালীন ভাতা দেওয়া হচ্ছে।

তিনি ভোট প্রসঙ্গে বলেন, যে প্রার্থীকে ভোট দিলে আপনার কল্যান বয়ে আনবে তাকেই তো ভোট দিবেন। আপনার ভোটে জয়ী হয়ে শেখ হাসিনা দশটা বছর দেশের প্রত্যেক জনগণের কল্যাণে কাজ করে যাচ্ছে। আবারও নৌকায় ভোট দিয়ে শেখ হাসিনাকে প্রধানমন্ত্রী করুন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নুরুল ইসলাম নাজিম দেওয়ান, সাধারন সম্পাদক আলী আরশাদ মিয়াজী, সহ সভাপতি শহীদ মাস্টার, জেলা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক মাহফুজুর রহমান টুটুল, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের যুগ্ম আহবায়ক জাফর ইকবাল মুন্না, কেন্দ্রীয় যুবলীগ নেতা সাইফুল ইসলাম শাহীন, কল্যাণপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি ও ইউপি চেয়ারম্যান শওকত হোসেন পাটওয়ারী রনি, সাধারণ সম্পাদক জি এম শফিকুল ইসলাম, সদর উপজেলা মহিলা আওয়ামীলীগের সভাপতি সাহিদা বেগম, সাধারন সম্পাদক নাহিদ সুলতানা রনি, সদর উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক শাহানুর শাবনু, কল্যানপুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান মন্নান মাল, ৪নং ওয়ার্ডের ইউপি মেম্বার মিজানসহ ইউনিয়ন াাওয়ামীলীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, মহিলা আওয়ামীলীগ, শ্রমিকলীগ ও এর অংগ সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মী বৃন্দ।

একই রকম খবর

Leave a Comment