চাঁদপুর জেলা রেন্ট একার ড্রাইভার কল্যাণ সমিতির নির্বাচন সম্পন্ন

স্টাফ রিপোটার : অত্যান্ত উৎসবমুখোর পরিবেশে অনুষ্ঠেয় চাঁদপুর জেলা রেন্ট-এ-কার ড্রাইভার কল্যান সমিতি কার্যকরী কমিটির নির্বাচনে সভাপতি হিসেবে নাছির গাজী এবং সাধারণ সম্পাদক হিসেবে শাহিন মোল্লা নির্বাচিত হয়েছেন।

১৭ নভেম্বর শনিবার সকাল ১০ টা থেকে মধ্যহ্ন বিরতিসহ বিকাল ৪ টা পর্যন্ত চাঁদপুর বাসট্যান্ড এলাকায় সমিতির নিজ কার্যালয়ে এ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়।

এবারের নির্বাচনে মোট ১৩ পদে ১৫ জন প্রার্থী বিভিন্ন প্রতীক(মার্কা) নিয়ে নির্বাচনে অংশ নেন।এবার মোট ভোটার সংখ্যা ২৯৩ টি থাকলেও ভোট পরেছে ২৩০ টি।এর মধ্যে ৪ টি পদে বিনা প্রতিদ্বন্দিতায় ৪ জন বিজয়ী হয়েছেন। তারা হলেন, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ শাজাহান খান,দপ্তর সম্পাদক জাহাঙ্গীর হোসেন,ক্রীড়া সম্পাদক হেলাল গাজী এবং প্রচার সম্পাদক মোঃ অানিছ।

এ নির্বাচনে নির্বাচন কমিশনারের দায়িত্ব পালন করেন ওয়াহিদুর রহমান বাবু, অাবু সাঈদ কবির পাটওয়ারী ও বশির অাহম্মেদ লিটন সহ মোট ৩ জন।তারাই সন্ধ্যায় নির্বাচনে অংশ গ্রহনকারী সকল প্রার্থী,ভোটার ও সমর্থকদের উপস্থিতিতে নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণা করেন।এই ঘোষণায় সভপতি পদে মোঃ নাছির গাজী ছাতা মার্কা নিয়ে ১’শ ৫৬ ভোট পেয়ে বিজয় হন। তাঁর একমাত্র প্রতিদ্বন্দী জিয়াউল হক জিয়া মোমবাতি মার্কা নিয়ে ৬৩ ভোট পেয়ে পরাজিত হন।সহ-সভাপতি পদে মোঃ রঞ্জু খান হরিন মার্কা নিয়ে ১’শ ৫১ ভোট পেয়ে ১ম এবং মোঃ শাহাজাহান শেখ অানারস মার্কা নিয়ে ৭৩ ভোট পেয়ে ২য় সহ-সভাপতি নির্বাচিত হন।

এ পদে মোঃ মাসুদ খান জুলহাস মোবাইল মার্কা নিয়ে ৬৩ ভোট পেয়ে পরাজিত হন।সাধারন সম্পাদক পদে হাবিব মুন্সী চাকা মার্কা নিয়ে ৭৮ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন।অার এ পদে মোঃ শাহিন মোল্লা চেয়ার মার্কা নিয়ে ৫০ এবং মোঃ হাবিব বেপারী মিনার মার্কা নিয়ে ৪৮ ভোট পেয়ে পরাজিত হন।

এদিকে সহ-সাধারন সম্পাদক পদে মোঃ খালেদুর রহমান মোটর সাইকেল মার্কা নিয়ে ৯৯ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন।অার এ পদে মোঃ বিল্লাল গাজী অাপেল মার্কা নিয়ে ৭৪ ভোট পেয়ে পরাজিত হন।

সাংগঠনিক সম্পাদক পদে মোঃ এমরান শেখ বই মার্কায় ৯৬ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন।অার এ পদে মোঃ হাসান হাওলাদার হারিকেন মার্কা নিয়ে ৭২ ভোট পেয়ে পরাজিত হন।

এদিকে ৩ জন কোষাধক্ষ্য পার্থীর মধ্যে মোঃ মিজানুর রহমান হাতি মার্কা নিয়ে বিজয়ী হন।এ পদে অন্য ২ প্রার্থী মোঃ খালেক গাজী গোলাপ ফুল মার্কায় ৭৬ এবং মোঃ সোহেল ভূঁইয়া দোয়াত কলম মার্কায় ২০ ভোট পেয়ে পরাজিত হন।

ব্যাপক উৎসাহ উদ্দিপনা সুষ্ঠ ও শান্তিপূর্ন পরিবেশে এই নির্বাচনে ভোটাররা তাদের পছন্দের প্রার্থীকে জয় যুক্ত করার লক্ষ্যে ভোট দেন। কেন্দ্রে গিয়ে ভোট দিতে পেরে ফলাফল প্রকাশ হতেই তাই তারা অানন্দে উল্লাস করতে থাকেন।এ সময় নিজ নিজ ভোটার ও সমর্থকরা তাঁদের বিজয়ী প্রার্থীদের গলায় ফুলের মালা পরিয়ে দিতেও দেখা যায়।

একই রকম খবর

Leave a Comment