দুর্গাপূজা নির্বিঘ্নে উদযাপন করতে কঠোর অবস্থানে থানা পুলিশ

চাঁদপুর খবর রির্পোট : আসন্ন শারদীয় দুর্গাপূজা সুষ্ঠু ও নির্বিঘ্নে উদযাপন করতে যেকোন অপতৎপরতা রুখতে প্রস্তুত এবং কঠোর অবস্থানে থাকবে চাঁদপুর সদর মডেল থানা পুলিশ বলে জানিয়েছেন সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবদুর রশিদ।

তিনি ২৩ সেপ্টেম্বর শুক্রবার গণমাধ্যমের সাথে আলাপকালে এসব কথাগুলি বলছিলেন। এ সময় তিনি আরও জানায় চাঁদপুর শহরে গড়েউঠা কিশোর গ্যাংয়ের যেকোন অপতৎপরতা রোধে কঠোর অবস্থানে রয়েছে পুলিশ, আপনারা ইতিমধ্যে জেনেছেন পুলিশ সুপার মহোদয় পুজা পরিষদ সহ আমাদের সাথে কয়একটি বৈঠক করেছেন এবং আমাদের বিভিন্ন দিকনির্দেশনা প্রদান করেছেন আমরা তার নিদর্শনা মোতাবেক কাজ করে যাচ্ছি। আমরা ইতিমধ্যে সদর মডেল থানায় পুজা কমিটির সাথে তাদের সমস্যাগুলি নিয়ে কথা বলেছি আশা রাখি সকলের সহযোগিতায় একটি সুষ্ঠু ও সুন্দর সার্বজনীন উৎসব করতে আমাদের সর্বাত্মক চেষ্টা অব্যাহত থাকবে।

জানাযায় এবার,চাঁদপুর সদরে ৩৬ টি সহ পুরো জেলায় ২১৯টি মন্দিরে সনাতন ধর্মীয় সব থেকে বড় উৎসব শারদীয় দূর্গা পূজা উদযাপিত হবে। পূজা উপলক্ষে সব ধরনের প্রস্তুতি চলছে জেলায়। আয়োজক ও কারিগররা শেষ সময়ের কাজ গুছিয়ে নিচ্ছেন। নিরাপদ ও ঝামেলাহীন উৎসব আয়োজনে তৎপর রয়েছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

এ উপলক্ষে চাঁদপুরের উপজেলা প্রশাসন সহজেলা পুলিশ দফায় দফায় বৈঠক করেছেন খুটিনাটি বিষয় নিয়ে নিজেদের মধ্যে আলোচনা করে সেগুলোর ব্যাপারে চুলছেড়া বিশ্লেসন করা হয়েছে। জেলার সনাতন ধর্মাবলম্বী নেতৃবৃন্দের সাথে জেলা পুলিশজেলা প্রশাসনের মতবিনিময় সভা করা হয়েছে।

(২১সেপ্টেম্বর) দুপুরে পুলিশ সুপার মিলন মাহমুদের সভাপতিত্বে পুলিশ লাইনসে এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় অতিঃ পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অর্থ) সুদীপ্ত রায়, অতিঃ পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) আসিফ মহিউদ্দীন, সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবদুর রশিদ সহ জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি সুভাষ রায়,সাধারণ সম্পাদক তমাল কুমার ঘোষ , জেলা সদর ও সকল উপজেলার পূজা উদযাপন পরিষদ এর সভাপতি সম্পাদকসহ হিন্দু ধর্মীয় নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

এসময় ধর্মীয় নেতারা পূজার সার্বিক প্রস্তুতি সম্পর্কে সকল বিষয় নিয়ে বিস্তারিত তুলে ধরেন। পুলিশের পক্ষ থেকে আইন শৃঙ্খলা স্বাভাবিক রাখতে সকল বিষয় সতর্ক অবস্থার কথা উল্লেখ করা হয়।

 

একই রকম খবর