দুলাল কৃষ্ণ ঘোষের চাকুরী থেকে অবসর গ্রহণ

চাঁদপুর খবর রিপোর্ট : চাঁদপুর সদর উপজেলার ৬নং মৈশাদী ইউনিয়নের ঐতিহ্যবাহী হামানকর্দ্দি পল্লীমঙ্গল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক দুলাল কৃষ্ণ ঘোষ চাকুরী থেকে অবসর গ্রহন করেছেন।  বিদ্যালয় অফিস সূত্রে বিষয়টি গতকাল নিশ্চিত করা হয়েছে ।

গতকাল ৩০জুলাই (শনিবার) তার শেষ কর্মদিবস ছিল। বেসরকারি এমপিওভুক্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের এমপিও নীতিমালা অনুযায়ী ষাট বছর পূর্ন হলে চাকুরী থেকে অবসর গ্রহন করা হয়। সে প্রেক্ষিতেই গতকাল তিনি অবসরে গ্রহন করেন।

তিনি দীর্ঘদিন অত্র বিদ্যালয়ে অবসর গ্রহনের আগ পর্যন্ত প্রধান শিক্ষকের দায়িত্ব পালন করেছেন।

জানা গেছে, বিদায়ী প্রধান শিক্ষক দুলাল কৃষ্ণ ঘোষ সর্বশেষ অত্র হামানকর্দ্দি পল্লীমঙ্গল উচ্চ বিদ্যালয়ে নিয়মিত ম্যানেজিং কমিটি করতে তিনি ব্যর্থ হোন । যার কারণে বর্তমানে অত্র বিদ্যালয়ে এডহক কমিটি দিয়ে চলছে । অভিভাবক ও  শিক্ষকদের মধ্যে তার ব্যাপারে মারাত্নক অসন্তোষ বিরাজ করছে । ফান্ডে থাকা সত্ত্বেও অত্র বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের প্রাতিষ্ঠানিক বেতন (বাড়ী ভাড়া ভাতা )দিতেন না নিয়মিত । কিন্তু ঠিকই নিজে প্রাতিষ্ঠানিক ভাতা গ্রহন করতেন ।

জানা গেছে, অত্র সভাপতি  এলাকার বিশিষ্ট শিক্ষানুরাগী ও সমাজসেবক  মো: রাকিব উদ্দিন  জুয়েল ঢালী দায়িত্ব পাওয়ার পর থেকে অত্র  শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের জন্য শুরু থেকেই নিরলসভাবে কাজ করছেন । অবকাঠামো উন্নয়ন করেছেন ব্যাপক ভাবে । যার জন্য সভাপতির সুনাম রয়েছে এলাকায় । কিন্তু প্রধান শিক্ষক দুলাল কৃষ্ণ ঘোষের খাফিলতির কারণে খোদ অসন্তোষ ম্যানেজিং কমিটি ।

যার কারণে তাকে প্রধান শিক্ষক পদে তার শত তদবির সত্ত্বেও  ম্যানেজিং কমিটির পক্ষ থেকে তার চুক্তির মেয়াদ বাড়ানো হয়নি ।

এ ব্যাপারে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বেশকজন শিক্ষক  দৈনিক চাঁদপুর খবরকে জানান, ফান্ডে থাকা সত্ত্বেও অত্র আমাদের  প্রাতিষ্ঠানিক বেতন (বাড়ী ভাড়া ভাতা )দিতেন না নিয়মিত ।কিন্তু ঠিকই  নিজে নিয়ে নিতেন । শিক্ষকদের সবসময়ই বঞ্চিত করতেন । আমাদের সাথে প্রায় সময় খারাপ আচারণ করতেন ।নিজেকে মহাজ্ঞানী ভাবতেন ।

এলাকার  কাউকেই পাত্তা দিতেন না ।  অনেক অভিযোগ রয়েছে বিদায়ী প্রধান শিক্ষক দুলাল কৃষ্ণ ঘোষের বিরুদ্ধে । সভাপতি মহোদয় সবই জানেন । একটা নিয়মিত কমিটিও তিনি করতে পারেননি ।

একই রকম খবর