মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে হাজীগঞ্জের নাহিমার বেঁচে থাকার আকুতি

সাইফুল ইসলাম সিফাত : হাজীগঞ্জের ব্রেন টিউমারে আক্রান্ত ১০ম শ্রেনীর ছাত্রী নাহিমা আক্তার (১৫) জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষনে হাসপাতালের বারান্দায় মৃত্যুর প্রহর গুনছেন। অসহায় পরিবার একের পর এক ঋণ উঠিয়ে চিকিৎসার জন্য ব্যয় করে সর্বশেষ ৫০ হাজার টাকার বিনিময়ে ভিটে-মাটি টুকুও বন্ধক রেখে ঢাকা নিউরো সাইন্স হাসপাতালের বারান্দায় মৃত্যু যন্ত্রণায় ছটপট করছেন।

ব্রেন টিউমারে আক্রান্ত নাহিমা বাকিলা ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ড রাঁধাসার গ্রামের কাশেম প্রধানের মেয়ে ও শ্রীপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের ব্যবসায়ী শাখার ১০ম শ্রেণীর ছাত্রী। অসুস্থ্যতা দেখে তাকে গত প্রায় ৯ মাস পূর্বে ঢাকার একটি হাসপাতালে পরীক্ষা করার পর জানতে পারে তার মাথায় বেঁধেছে মরণ ব্যধি টিউমার। বর্তমানে চিকিৎসার জন্য প্রয়োজন প্রায় ২ লক্ষ টাকা ।

ব্রেন টিউমারে আক্রান্ত নাহিমার বাবা একজন দিনমজুর। পরিবারের অসহায় অবস্থায় বর্তমানে স্কুল পড়ুয়া নাহিমার জীবন-মৃত্যু মুখোমুখি অবস্থানে রয়েছে ।

সর্বশেষ গত ১০/১২ দিন পূর্বে বাড়ির ঘর ভিটা ৫০ হাজার টাকা বন্ধক রেখে নাহিমার বাবা তাকে চিকিৎসার জন্য ঢাকা নিয়ে যান। বর্তমানে ঢাকা নিউরো সাইন্স হাসপাতালে ৬ষ্ট তলায় ৬২৬ নং বেডের পাশে দিন পার করছেন। অপারেশনের জন্য টাকার ব্যবস্থা করতে না পেরে এখন পর্যন্ত সিটও পায়নি বলে অসহায় পরিবারটির দাবি। আর এ জন্য জনপ্রতিনিধি, বিত্তবান ও প্রশাসনের সু-দৃষ্টি কামনা করছেন নাহিমার পরিবার।

ইতিপূর্বে বাকিলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নগদ কিছু অর্থ দান করেছেন এবং সর্বশেষ গত ৩০ সেপ্টেম্বর তার পরিষদের পেডে সাহায্যের জন্য প্রত্যয়ন পত্র দিয়েছেন। মেয়ের চিকিৎসার জন্য সহযোগিতা কামনা করে মা তাছলিমা বেগম বিকাশ নং ০১৮৬৯৯৭৬২০৮ (পার্সোনাল) দিয়েছেন।

একই রকম খবর

Leave a Comment