ফরিদগঞ্জে পরিবার পরিকল্পনা কার্যালয় পরিদর্শনে ডা. কাজী মোস্তফা সারোয়ার

গোলাম কিবরিয়া জীবন : পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ডাঃ কাজী মোস্তফা সারোয়ার বলেছেন, প্রাতিষ্ঠানিক ডেলিভারী বৃদ্ধি এবং প্রসব পরবর্তি পরিবার পরিকল্পনা পদ্ধতি নিশ্চিত করার লক্ষেই দেশব্যাপী ২৪ থেকে ২৯ নভেম্বর ‘‘পরিবার কল্যাণ সেবা ও প্রচার সপ্তাহ” পালন করা হচ্ছে।

২৪ নভেম্বর সেবা সপ্তাহে মাঠ পর্যায়ে কেমন কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে তা দেখার জন্য হঠাৎ করে ফরিদগঞ্জ উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কার্যালয়ে আসলে উপস্থিত সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে এ সব কথা বলেন।

জনাব মোস্তফা সারোয়ার বলেন, আমরা সবাই একটি সুস্থ সবল শিশু চাই, চাই সুখী সমৃদ্ধশালী বাংলাদেশ। সেজন্য মা ও শিশু উভয়কেই সুস্থ থাকার প্রয়োজন। প্রয়োজন সমস্যা বিহীন সন্তান প্রসব। আর এই কাজটিই পরিবার পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তর সারা দেশে অত্যন্ত দক্ষতার সাথে পরিচালনা করে আসছে। এই কথাগুলো জানান দেওয়ার জন্য এবং পরিকল্পিত পরিবার গড়ে তোলার রক্ষে জনসচেতনা সৃষ্টি করতেই সপ্তাহ পালন করা হচ্ছে। চাঁদপুরের প.প.উপ-পরিচালক ডা: মো: ইলিয়াছ জানান এ সপ্তাহ সফল করার লক্ষে জেলার ৮ টি উপজেলায় পরিবার পরিকল্পার সেবা গ্রহন করার জন্য স্থায়ী ও দীর্ঘ মেয়াদী ক্যাম্প পরিচালনা করা হচ্ছে। এসব ক্যাম্পে এসে সবাই বিনা পয়সায় সেবা সেবা গ্রহন করতে পারেন। প্রতিটি ক্যাম্পে ডেলিভারী, জরুরি প্রসূতি সেবা, প্রসব পরবর্তি পরিবার পরিকল্পনা সেবা, গর্ভবতীর সেবা, নবজাত ও শিশু সেবা, কৈশোরকালীন প্রজনন স্থাস্ব্য ও পুষ্টি সেবা সহ সকল প্রকার পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে।উপ-পরিচালক ডা: ইলিয়াছ জানান সপ্তাহের প্রথম দিনে এন এস ভি ২ জন, টিউভেকটমি ৩৫ জন, সাধারন ২৯ জন, প্রসব পরবর্তি ৬ জন,ইমপ্লান্ট ২১৭ জন, আই ইউডি ১৪৫ জন, সাধারন ১২০ প্রসব পরবর্তি ২৫ জন, গর্ভবতীর যতœ ৪৮০ জন, প্রসব সেবা ১৩৬ জন, প্রসোবত্তর সেবা ২৫৬ জন, শিশু সেবা ১ হাজার ৩১৫ জন, কিশোর ১ হাজার ২৩ জন, কিশোরী ২ হাজার ৫৬৭ জন,সাধারন রোগী পুরুষ ১ হাজার ৫৪ জন এবং মহিলা ২ হাজার ৭৪৫ জন সেবা গ্রহন করেছেন।

একই রকম খবর

Leave a Comment